ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ কার্তিক ১৪২৮, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ফিচার

ইতিহাসের এই দিনে

প্রখ্যাত বাঙালি পদার্থবিজ্ঞানী সত্যেন্দ্রনাথ বসুর প্রয়াণ

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০১১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২১
প্রখ্যাত বাঙালি পদার্থবিজ্ঞানী সত্যেন্দ্রনাথ বসুর প্রয়াণ পদার্থবিজ্ঞানী সত্যেন্দ্রনাথ বসু

প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই সেখানে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার অভিশাপ-আশীর্বাদ।

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এ গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিন’।

বৃহস্পতিবার, ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২১ মাঘ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪২। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা
১৬২৮: সম্রাট শাহজাহান আনুষ্ঠানিকভাবে আগ্রার সিংহাসনে বসেন।
১৭৮৯: জর্জ ওয়াশিংটন যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।
১৭৯২: যুদ্ধে পরাজিত হওয়ার পর টিপু সুলতান অর্ধেক মহীশুর ইংরেজদের হাতে তুলে দিতে বাধ্য হয়েছিলেন।
১৭৯৪: ফরাসি আইনসভা দাসপ্রথা বিলুপ্ত করে।
১৯০৪: রুশ-জাপান যুদ্ধ শুরু হয়।
১৯১৬: তুরস্কের যুবরাজ ইউসুফ ইজেদিন আততায়ীর হাতে নিহত হন।
১৯৪৫: যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ফ্রাংকলিন ডি রুজভেল্ট, বৃটেনের প্রধানমন্ত্রী উইনস্টন চার্চিল এবং সোভিয়েত নেতা জোসেফ স্তালিন রাশিয়ার ইয়েল্টা নগরীতে বৈঠক করেন।
১৯৪৮: সিংহল (পরবর্তীতে শ্রীলংকা নামকরণ হয়) স্বাধীন হয়।
১৯৪৯: নির্মাণের ১৭৬ বছর পর কলকাতার ফোর্ট উইলিয়াম দুর্গের দরজা জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়।
১৯৫২: রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবিতে সমগ্র পূর্ব পাকিস্তানের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সমূহে ধর্মঘট।
১৯৭২: বাংলাদেশকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দেয় ব্রিটেন, পশ্চিম জার্মানি, ডেনমার্ক, সুইডেন, ফিনল্যান্ড, নরওয়ে, আইসল্যান্ড ও ইসরায়েলসহ ১০টি দেশ।
১৯৭২: বাংলাদেশ বিমানের প্রথম ফ্লাইট ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম অভিমুখে যাত্রা করে।
২০০৪: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক চালু হয়।

জন্ম
১৮৭১: ফ্রেডরিক অ্যাবের্ট‌, জার্মান আইনজীবী ও রাজনীতিবিদ, জার্মানির প্রথম রাষ্ট্রপতি
১৯১৭: ইয়াহিয়া খান, পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি ও সামরিক শাসক
১৯১৮: বাঙালি ঔপন্যাসিক কবি প্রাবন্ধিক ও ছোটগল্পকার নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়
১৯২২: ভারতীয় কণ্ঠশিল্পী ভারতরত্ন পণ্ডিত ভীমসেন জোশী
১৯৩৬: ফজল শাহাবুদ্দীন, বাংলাদেশের প্রখ্যাত কবি
১৯৪০: নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ওয়েলশ পদার্থবিজ্ঞানী ও অধ্যাপক ব্রায়ান ডেভিড জোসেফসন জন্মগ্রহণ করেন।
১৯৪৩: কেন থম্পসন, মার্কিন কম্পিউটার বিজ্ঞানি ও প্রোগ্রামার
১৯৪৫: নোবেল পুরস্কার বিজয়ী আমেরিকান রসায়নবিদ ও অধ্যাপক রিচার্ড রয়েস শ্রক জন্মগ্রহণ করেন।
১৯৮৬: মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, বাংলাদেশি ক্রিকেটার।

মৃত্যু
১৯১২: মনোমোহন বসু, বাঙালি কবি, নাট্যকার ও হিন্দুমেলার সংগঠক।
১৯২৮: নোবেল বিজয়ী ওলন্দাজ পদার্থবিজ্ঞানী হেন্ড্রিক আন্টোন লোরেনৎস
১৯৪১: নোবেল পুরস্কার বিজয়ী ফরাসি দার্শনিক ও অধ্যাপক অঁরি লুই বর্গসাঁ মৃত্যুবরণ করেন।
১৯৬০: নোবেল পুরস্কার বিজয়ী আলজেরিয়ার বংশোদ্ভূত ফরাসি দার্শনিক, লেখক ও নাট্যকার আলবেয়ার কামু মৃত্যুবরণ করেন।
১৯৬১: নোবেল পুরস্কার বিজয়ী অস্ট্রিয়ান পদার্থবিদ ও অধ্যাপক এরভিন শ্রোডিঙার মৃত্যুবরণ করেন।
১৯৭৪: সত্যেন্দ্রনাথ বসু (সত্যেন বোস), আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বাঙালি গণিতবিদ ও পদার্থবিজ্ঞানী।

১৮৯৪ সালের ১ জানুয়ারি উত্তর কলকাতার গোয়া বাগান অঞ্চলে সত্যেন্দ্রনাথ বসুর জন্ম। তার পরিবারের আদি নিবাস ২৪ পরগণার কাঁড়োপাড়ার সন্নিকটে বড়োজাগুলিয়া গ্রামে। তার পিতার নাম সুরেন্দ্রনাথ বসু এবং মায়ের নাম আমোদিনী দেবী।

সত্যেন্দ্রনাথ বসুর গবেষণার ক্ষেত্র ছিল গাণিতিক পদার্থবিজ্ঞান। সত্যেন্দ্রনাথ বসু আলবার্ট আইনস্টাইনের সঙ্গে যৌথভাবে বোস-আইনস্টাইন পরিসংখ্যান দেন, যা পদার্থবিজ্ঞানের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার বলে বিবেচিত হয়।

ছাত্রজীবনে অত্যন্ত মেধাবী সত্যেন্দ্রনাথ কর্মজীবনে সংযুক্ত ছিলেন বৃহত্তর বাংলার তিন শ্রেষ্ঠ শিক্ষায়তন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে। সান্নিধ্য পেয়েছেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, প্রফুল্লচন্দ্র রায়, মারি ক্যুরি প্রমুখ মনীষীর।

সত্যেন্দ্রনাথ শুধু বাংলায় বিজ্ঞানচর্চার প্রবল সমর্থকই ছিলেন না, সারা জীবন ধরে তিনি বাংলায় বিজ্ঞানচর্চার ধারাটিকেও পুষ্ট করে গেছেন। এ উদ্দেশ্যে বিজ্ঞান পরিচয় নামে একটি পত্রিকাও প্রকাশ করেন তিনি।

বসু-আইনস্টাইন পরিসংখ্যান, বসু-আইনস্টাইন ঘনীভবন, বোসনের ওপর গবেষণা করে ১৯৮৪ সালে পদার্থবিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন কার্লো রুবিয়া এবং সাইমন ভ্যান দের মিয়ার; ১৯৯৬ সালে ডেভিড এম. লি, ডগলাস ড. ওশেরফ এবং রবার্ট সি. রিচার্ডসন; ২০০১ সালে এরিক এলিন কর্নেল, কার্ল এডউইন ওইম্যান এবং ওলফগ্যাং কেটেরলে; কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে বোসকে নোবেল পুরস্কার দেওয়া হয়নি।

হিগস-বোসন বা ঈশ্বর কণা পদার্থবিজ্ঞানের স্ট্যান্ডার্ড মডেলের প্রস্তাবিত মৌলিক কণা। পদার্থবিজ্ঞানী পিটার হিগস ও সত্যেন্দ্রনাথ বসুর নামে এ কণার নামকরণ করা হয়। ১৯২৪ সালে সত্যেন্দ্রনাথ বসু প্রথম এর ধারণা দেন এবং এর অস্তিত্ব আবিষ্কার হয় ২০১২ সালে।

সত্যেন্দ্রনাথ বসু ১৯৭৪ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি কলকাতায় মৃত্যুবরণ করেন।

১৯৯০: মৈত্রেয়ী দেবী, ভারতীয় বাঙালি সাহিত্যিক।

বাংলাদেশ সময়: ০০০৬ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৪, ২০২১
এফএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa