ঢাকা, রবিবার, ৮ কার্তিক ১৪২৮, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ফিচার

ইতিহাসের এই দিনে

কবি শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের প্রয়াণ

ফিচার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০০০ ঘণ্টা, মার্চ ২৩, ২০২১
কবি শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের প্রয়াণ কবি শক্তি চট্টোপাধ্যায়

প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সেসব ঘটনাই সেখানে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার আশীর্বাদ বা অভিশাপ।

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এ গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজন ‘ইতিহাসের এই দিন’।

মঙ্গলবার, ২৩ মার্চ ২০২১, ০৯ চৈত্র ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ০৯ শাবান ১৪৪২। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের এ দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্ম-মৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়।

ঘটনা

১৩৫১: ফিরোজ শাহ তুঘলকের দিল্লীর সিংহাসনে আরোহণ।

১৭৯৩: চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত ব্যবস্থা ঘোষিত হয়।

১৯১৭: ভাইসরয় লর্ড চেমস ফোর্ড ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দেন।

১৯১৮: জামার্ন বাহিনী তাদের নবনির্মিত কামানের সাহায্যে প্যারিসের ওপর গোলাবর্ষণ করে।

১৯১৮: লিথুনিয়া স্বাধীনতা ঘোষণা করে।

১৯২০: গভর্নর জেনারেল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুমোদন করেন।

১৯৩৩: অ্যাডলফ হিটলার জার্মানির একনায়ক হন।

১৯৪০: আবুল কাশেম ফজলুল হক নিখিল ভারত মুসলিম লীগের অধিবেশনে লাহোর প্রস্তাব উত্থাপন করেন।

১৯৬৬: শেখ মুজিবুর রহমান লাহোরে ছয় দফা প্রস্তাব আনুষ্ঠানিক ভাবে উত্থাপন করেন।

১৯৭২: বাংলাদেশকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দেয় বতসোয়ানা।

জন্ম

১৯০২: চারুচন্দ্র চক্রবর্তী, জরাসন্ধ ছদ্মনামে খ্যাতনামা বাঙালি সাহিত্যিক

১৯০৭: নোবেল পুরস্কার বিজয়ী সুইস বংশোদ্ভূত ইতালীয় ফার্মাকোলজিস্ট ড্যানিয়েল বভেট

১৯১০: আকিরা কুরোসাওয়া, জাপানি চলচ্চিত্র পরিচালক

১৯১৬: হরিনারায়ণ চট্টোপাধ্যায়, বাঙালি সাহিত্যিক

১৯৫৬: পর্তুগিজ শিক্ষাবিদ, রাজনীতিবিদ ও ১১৫তম প্রধানমন্ত্রী হোসে ম্যানুয়েল বারোসো

মৃত্যু

১৯১১: ইন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়, বাঙালি কবি ও সাহিত্যিক

১৯৫৩: ফরাসি চিত্রশিল্পী ও অঙ্কনশিল্পী রাউল দুফয়

১৯৯২: ফ্রিডরিখ হায়েক, অস্ট্রীয় অর্থনীতিবিদ

১৯৯৫: শক্তি চট্টোপাধ্যায়, বাঙালি কবি ও লেখক

শক্তি চট্টোপাধ্যায় ১৯৩৩ সালের ২৫ নভেম্বর ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের দক্ষিণ চব্বিশ পরগণা জেলার জয়নগরে জন্মগ্রহণ করেন।

তিনি জীবনানন্দ-উত্তর যুগের বাংলা সাহিত্যের অন্যতম প্রধান আধুনিক কবি ছিলেন। বিংশ শতাব্দীর শেষভাগে তিনি বিশেষভাবে পরিচিত এবং আলোচিত ছিলেন। ষাটের দশকে যে চারজন কবিকে হাংরি আন্দোলনের জনক মনে করা হয়, তাদের মধ্যে শক্তি চট্টোপাধ্যায় অন্যতম।

১৯৭৫ সালে তিনি আনন্দ পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৮২ সালে প্রকাশিত তার ‘যেতে পারি কিন্তু কেন যাবো’ কাব্যগ্রন্থ ইংরেজি এবং মৈথিলী ভাষায় অনুবাদিত হয়েছে। ১৯৮৩ সালে এ কাব্যগ্রন্থের জন্য তিনি সাহিত্য অকাদেমি পুরস্কার লাভ করেন। তিনি ১৯৭০ থেকে ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত কলকাতার আনন্দবাজার পত্রিকায় কাজ করেছেন।

শক্তি চট্টোপাধ্যায় ১৯৯৫ সালের ২৩ মার্চ কলকাতায় মৃত্যুবরণ করেন।

২০০৭: মার্কিন গণিতবিদ ও তাত্ত্বিক পল জোসেফ কোহেন

২০০৮: শহীদুল জহির, বাংলাদেশি গল্পকার ও ঔপন্যাসিক

২০১১: এলিজাবেথ টেলর, ব্রিটিশ-মার্কিন চলচ্চিত্র অভিনেত্রী

২০১৪: স্প্যানিশ আইনজীবী, রাজনীতিবিদ ও প্রথম প্রধানমন্ত্রী অ্যাডলফ সুয়ারেজ

২০১৫: লি কুয়ান ইউ, আধুনিক সিঙ্গাপুরের জনক

২০১৯: শাহনাজ রহমতুল্লাহ, বাংলাদেশি সঙ্গীতশিল্পী

 

বাংলাদেশ সময়: ০০০০ ঘণ্টা, মার্চ ২৩, ২০২১
এফএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa