ঢাকা, শুক্রবার, ২০ মাঘ ১৪২৯, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১১ রজব ১৪৪৪

ফুটবল

ইউরোপিয়ান বাধা টপকাতে পারবে ব্রাজিল?

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৪৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৯, ২০২২
ইউরোপিয়ান বাধা টপকাতে পারবে ব্রাজিল?

বিশ্বকাপের প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে আজ (০৯ ডিসেম্বর) ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে মাঠে নামবে ব্রাজিলে। কাতারের এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে এই দুই দল।

বিশ্বকাপে গত ২০ বছরে নক আউটে কোনো ইউরোপীয় প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে জয়ের রেকর্ড নেই ব্রাজিলের। এখানেই ক্রোয়েশিয়ার অনুপ্রেরণা এবং এটাই গতবারের রানার্স আপদের স্বপ্ন দেখাচ্ছে সামনে এগোতে।

শেষবার বিশ্বকাপ জয়ের পর ২০ বছর পার হয়ে গেছে ব্রাজিলের। জাপান-কোরিয়া থেকে শেষবার বিশ্বকাপ জয়ের পর আরও চারটি আসরে খেলেছে ব্রাজিল। এই চার আসরের মধ্যে তিনবারই বিদায় নিতে হয়েছে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে, আরেকবার সেমিফাইনাল থেকে।

প্রতিবার ইউরোপীয় শক্তির কাছেই হার মেনে টুর্নামেন্ট থেকে ছিটকে যেতে হয়েছে সেলেসাওদের। এবারও ব্রাজিলের সামনে ইউরোপ। ২০০২ সালের বিশ্বকাপের পর থেকে ইউরোপিয়ান দলগুলোর কাছে ব্রাজিলের পরাজয় একপ্রকার নিয়মেই পরিণত হয়েছে বলা যায়। এবার সামনে ক্রোয়েশয়া। সেই ইউরোপের দেশই। এবার কি তবে ঘুচবে আক্ষেপ, ঘুরবে ইতিহাসের চাকা?

বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত ফেভারিটের মতোই খেলেছে ব্রাজিল। নিজেদের প্রথম ম্যাচে সার্বিয়াকে ২-০ গোলে হারানোর পর ক্যাসেমিরোর একমাত্র গোলে সুইজারল্যান্ডের সঙ্গে জেতে তিতের শিষ্যরা। গ্রুপ পর্বে শেষ ম্যাচে অবশ্য ক্যামেরুনের বিপক্ষে শেষ মুহূর্তের গোলে হারতে হয় সেলেসাওদের। তবে সে ম্যাচে মাঠে নামেননি দলটির তেমন কোনো তারকা স্ট্রাইকার।

দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে উড়ন্ত জয় আবার আত্মবিশ্বাস ফিরিয়েছে তিতের ক্যাম্পে। নকআউটের প্রথম ম্যাচে দক্ষিণ কোরিয়াকে ৪-১ গোলে হারিয়েছেন নেইমার-ভিনিসিয়াসরা। তাই ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে বেশ আত্মবিশ্বাস নিয়েই মাঠে নামতে চলেছেন পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

অন্যদিকে জ্লাতকো দালিচের ক্রোয়েশিয়া প্রথম ম্যাচে মরক্কোর সঙ্গে ড্র করার পর কানাডাকে হারিয়ে প্রথম জয় পায়। গ্রুপের শেষ ম্যাচে বেলজিয়ামের সঙ্গে ড্র করে এফ গ্রুপের রানার্সআপ হয়ে শেষ ষোলতে আসে লুকা মদ্রিচরা। শেষ ষোলর লড়াইয়েও জয়টা সহজে আসেনি ক্রোয়েটদের। জাপানের বিপক্ষে নির্ধারিত ও অতিরিক্ত সময়ে ১-১ গোলে ড্র করার পর টাইব্রেকারে ৩-১ গোলে জিতে শেষ আটে পা রেখেছে দলটি।  

এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপে মোট দুইবার মুখোমুখি হয়েছে ব্রাজিল-ক্রোয়েশিয়া। ২০০৬ ও ২০১৪ সালের বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বের দুই দেখায় দুবারই শেষ হাসি হেসেছিল ব্রাজিল। প্রথমবার কাকার গোলে ১-০ তে জয় পায় সেলেসাওরা। আর ২০১৪ নিজেদের মাঠের বিশ্বকাপে ৩-১ গোলে জেতে ব্রাজিল, নেইমার করেন জোড়া গোল।

বিশ্বকাপ ছাড়া আরও দুইবার মুখোমুখি হয়েছে এই দুই দল। তাতেও কখনও ব্রাজিলকে হারাতে পারেনি ক্রোয়েশিয়া। সবশেষ ২০১৮ সালে নেইমার ও রবার্তো ফিরমিনোর দ্বিতীয়ার্ধের গোলে ২-০ তে প্রীতি ম্যাচ জিতেছিল সেলেসাওরা। পাঁচবারের চ্যাম্পিয়নদের বিপক্ষে ক্রোয়েশিয়া কেবল একবারই হার এড়াতে পেরেছিল। ২০০৫ সালে প্রথমবারের দেখায় ড্র করেছিল দুই দল। তবে ঐবারই প্রথম এবং ঐবারই শেষ। এরপরার কখনো হার এড়াতে পারেনি গত বিশ্বকাপের রানার আপরা।  

বাংলাদেশ সময়:
এআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa