ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৮ শাবান ১৪৪৫

ফুটবল

আবাহনীর টানা দ্বিতীয় জয়

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২৩
আবাহনীর টানা দ্বিতীয় জয়

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলে  হাইভোল্টেজ ম্যাচে জিতেছে আবাহনী লিমিটেড। গোপালগঞ্জের শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়ামে শেখ জামালের বিপক্ষে ২-১ গোলের জয় পায় তারা।

লিগে এটি তাদের টানা দ্বিতীয় জয়। এর আগের ম্যাচে হারায় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবকে।

শুরু থেকে প্রতিপক্ষের রক্ষণের কঠিন পরীক্ষাই নিয়েছে আবাহনী। যার ধারাবাহিকতায় ম্যাচের ১০ মিনিটেই গোলের দেখা পায় মারিও লেমোসের শিষ্যরা। ইউসেফ মোহাম্মদের ক্রসে পিটার এনওরাহ’র হেড জালে জড়ায়।  

ম্যাচের ১৫ মিনিটে রাফায়েলের বাঁকানো শট ঝাঁপিয়ে আটকান শেখ জামাল  গোলরক্ষক। ২২তম মিনিটে ফ্রি কিক পায় শেখ জামাল। ওতাবেকের ফ্রি-কিক ফিরিয়ে দেন আবাহনীর গোলরক্ষক শহীদুল আলম সোহেল।

ম্যাচের ৩৪ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে আবাহনী। পিটারের বাড়িয়ে দেয়া বলে নিচু বাঁকানো শটে জাল খুঁজে নেন কলিনদ্রেস। লিগে কোস্টারিকার ফরোয়ার্ডের পঞ্চম গোল।  

দ্বিতীয়ার্ধের শুরু থেকেই আক্রমণের ধার বাড়ায় শেখ জামাল। ম্যাচে ফিরতে মরিয়ে হয়ে উঠে। ৫৪তম মিনিটে কর্নেলিয়াসের ফ্রি কিকে দূরের পোস্টে ফাঁকায় থাকা সুলাইমান সিল্লাহ অনেকটা লাফিয়ে হেড করলেও বল যায় ক্রসবারের উপর দিয়ে। ৬৩তম মিনিটে একাধিক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে কাছের পোস্টে নেওয়া ওতাবেকের শট কোনোমতে হাঁটু দিয়ে আটকান আবাহনী গোলরক্ষক শহীদুল।

সোহানুর রহমান সোহানকে বক্সের ভেতরে রেজাউল রেজা ফাউল করলে পেনাল্টি পায় শেখ জামাল। ৭০তম মিনিটে স্পট কিক থেকে দলকে এগিয়ে নেন কর্নেলিয়াস স্টুয়ার্ট। পেনাল্টি শটে গতি থাকায় বলের লাইনে ঝাঁপিয়েও নাগাল পাননি আবাহনীর গোলরক্ষক। চলতি লিগে বসুন্ধরা কিংসের দোরিয়েলতন গোমেজ নাসিমেন্তো ও শেখ রাসেলের এমফন উদোহর মতো কর্নোলিয়াসের গোলও হলো ৭টি।

আট ম্যাচে পাঁচ জয় ও তিন ড্রয়ে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে আবাহনী। শীর্ষে থাকা বসুন্ধরা কিংসের পয়েন্ট ২৪। ৭ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে চারে আছে শেখ জামাল

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৪, ২০২৩
এআর/এএইচএস
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।