ঢাকা, রবিবার, ১ বৈশাখ ১৪৩১, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৪ শাওয়াল ১৪৪৫

ফুটবল

ক্রীড়াক্ষেত্রে বেসরকারি পৃষ্ঠপোষকতা চান ক্রীড়ামন্ত্রী

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, স্পোর্টস  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১২৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৪, ২০২৪
ক্রীড়াক্ষেত্রে বেসরকারি পৃষ্ঠপোষকতা চান ক্রীড়ামন্ত্রী

দেশের ক্রীড়াক্ষেত্রের উন্নয়নে বেসরকারি পৃষ্ঠপোষকতা চান যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী নাজমুল হাসান পাপন। একইসঙ্গে ক্রীড়াঙ্গনে ‘গুড গভর্নেন্স’ নিশ্চিত করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

 

আজ দুপুরে সচিবালয়ে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন ও হকি ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে ক্রীড়ামন্ত্রী এসব কথা বলেন। এ সময়ে ক্রীড়াঙ্গনকে এগিয়ে নিতে সরকারের পাশাপাশি প্রাইভেট সেক্টরকেও এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।  

গতকাল নয়টি ফেডারেশনরে সঙ্গে আলোচনায় বসেছিলেন ক্রীড়ামন্ত্রী। আর আজ বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) ও হকি ফেডারেশনের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে আজ আলোচনায় বসেন নাজমুল হাসান।  

আলোচনা সভায় ক্রীড়ামন্ত্রী বলেন, কোনো বিশেষ ফেডারেশনের জন্য  নয়, ক্রীড়ার সকল ক্ষেত্রেই ‘গুড গভর্নেন্স’ নিশ্চিত করা হবে। আর যারা ব্যত্যয় ঘটাবে তারা অবশ্যই পরবর্তীতে সরকার থেকে কোনো সহযোগিতা পাবে না।  

ফুটবলকে দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা উল্লেখ করে নাজমুল হাসান বলেন, ‘আমাদের নারী ফুটবলাররা ধারাবাহিকভাবে ভালো ফলাফল অর্জন করছে। পুরুষরাও ভালো করছে। তারা ধীরে ধীরে উন্নতির দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। তবে ফুটবলে কিছু সমস্যা রয়েছে। ফুটবল ফেডারেশনের মাঠ সংকট রয়েছে। বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের আধুনিকায়ন ও সংস্কার কাজ চলমান। এটি যেন আর বিলম্ব না হয় সেদিকে আমরা সচেষ্ট থাকব। ইতিমধ্যে আমি দ্রুততম সময়ের মধ্যে শেষ করার নির্দেশনা দিয়েছি। তারপরও বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের প্রকৃত চিত্র সশরীরে দেখতে চাই। দেখে এসে পর্যালোচনা করে পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে পারব। ’

তিনি বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের পাশাপাশি কমলাপুর স্টেডিয়ামও পরির্দশনের কথা জানিয়ে বলেন, ‘কমলাপুর স্টেডিয়ামে আপগ্রেডের বিষয়টিও আমরা ভাবছি। কমলাপুর স্টেডিয়াম যদি আরো উন্নত করা যায় তাহলে সেখানেও ফুটবল ফেডারেশন অনেক টুর্নামেন্ট বা নানাভাবে ব্যবহার করতে পারে। ’

ফুটবল ফেডারেশনের প্রস্তাবিত বাজেট বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘ফুটবলের ব্যাপ্তি অত্যন্ত বেশি। দেশি-বিদেশে খেলায় অংশগ্রহণে নানা ব্যয় ফলে তাদের বাজেটের চাহিদাও বেশি থাকবে এটাই  স্বাভাবিক। ফুটবলসহ অন্যান্য খেলাধুলাকে এগিয়ে নিতে সরকারের পাশাপাশি প্রাইভেট সেক্টরকেও এগিয়ে আসার আহ্বান জানাই। ’

যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী আগামী সপ্তাহের শুরুতে ইন্দোনেশিয়ার বালিতে অনুষ্ঠিতব্য এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের সভায় যোগদান করবেন । সেই সভা থেকে ফিরবেন ৩ ফেব্রুয়ারি। এর পরপরই স্টেডিয়াম পরিদর্শনে যাবেন বলে জানান তিনি।  

বাংলােদশ সময়: ২১২৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৪, ২০২৪
এআর/এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।