ঢাকা, সোমবার, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২০ মে ২০২৪, ১১ জিলকদ ১৪৪৫

ফুটবল

রহমতগঞ্জকে হারিয়ে শীর্ষে বসুন্ধরা কিংস

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২২ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২২
রহমতগঞ্জকে হারিয়ে শীর্ষে বসুন্ধরা কিংস ছবি: শোয়েব মিথুন

প্রথমার্ধে বসুন্ধরা কিংসের সঙ্গে সমানতালে লড়াই করেছে রহমতগঞ্জ মুসলিম ফ্রেন্ডস অ্যান্ড সোসাইটি। বিরতির আগেও দুই দল ছিল সমতায়।

তবে দ্বিতীয়ার্ধে ইয়াসিন আরাফাতের গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়লো অস্কার ব্রুজোনের দল। সেই সঙ্গে কিংসরা উঠে এলো পয়েন্ট তালিকার শীর্ষেও।

প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলের ম্যাচে আজ মঙ্গলবার ঘরের মাঠ বসুন্ধরা কিংস অ্যারেনায় ৩-২ গোলে জয় পেয়েছে স্বাগতিকরা। সানডে চিজোবার গোলে রহমতগঞ্জ এগিয়ে যাওয়ার পর তার শোধ করেন রবিনহো। এরপর মোহাম্মদ ইব্রাহীমের গোলে এগিয়ে যায় কিংস। কিন্তু বিরতির ঠিক আগ মুহূর্তে পেনাল্টি থেকে করা চিজোবার দ্বিতীয় গোলে সমতায় ফেরে রহমতগঞ্জ। তবে ৭৫তম মিনিটে ব্রুজোনের দলকে জয়সূচক গোলটি এনে দেন ইয়াসিন আরাফাত।

শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ছিল অস্কার ব্রুজোন শিষ্যরা। শেষ তিন ম্যাচে জয়ের আত্মবিশ্বাস নিয়ে শুরুর ২০তম মিনিটে দু'দফা আক্রমণে গিয়েও গোলের দেখা পায়নি। বরং রহমতগঞ্জ প্রথম আক্রমণেই গোল আদায় করে নেয়। তবে দ্রুত ম্যাচে ফিরে আবার এগিয়েও যায় কিংস। তবে প্রথমার্ধেই সমতায় ফিরে ম্যাচ জমিয়ে তুলে অতিথিরা। দ্বিতীয়ার্ধে বাজিমাত করে কিংস। নিজেদের রক্ষণ সামলিয়ে জয়সূচক গোলও পেয়ে যায় স্বাগতিকরা।

১৮তম মিনিটে রবসন রবিনহোর ফ্রি-কিকে এলিটা কিংসলের গতির হেড জাল খুঁজে পায়নি। পরের মিনিটেই রবিনহোর ফ্রি-কিক ক্রস বারের উপর দিয়ে চলে যায়। ২৮তম মিনিটে প্রথম আক্রমণে উঠেই বাজিমাত করে অতিথিরা। সানডে চিজোবার গোলে এগিয়ে যায় রহমতগঞ্জ। মাহমুদুল হাসান কিরণের কর্নারে হেড করেন সানডে। গোললাইন থেকে ইব্রাহিম ক্লিয়ার করার চেষ্টা করলেও তা পারেনি। পিছিয়ে পড়া কিংস ম্যাচে ফিরতে খুব বেশি সময় নেয়নি।

৩২তম মিনিটে রহমতগঞ্জের বক্সে জোরালো আক্রমণ করে ম্যাচে সমতা টানে বসুন্ধরা কিংস। ডি বক্সের ভিতর থেকে রহমতগঞ্জের গোলমুখে কয়েক সেকেন্ডে তিনবার আক্রমণ করেন রোবিনহো-ইব্রাহিমরা। তৃতীয়বারের আক্রমণে জনির সঙ্গে দুই বার বল দেওয়া নেওয়া করে ছোটো ডি বক্সের বাম কোন থেকে দৃষ্টিনন্দন চিপ শটে গোল করেন রবসন রোবিনহো। লিগে রোবিনহোর এটি চতুর্থ গোল।

৪৪তম মিনিটে রোবিনহো-ইব্রাহিমের রসায়নে ম্যাচে এগিয়ে যায় বসুন্ধরা কিংস। মাঝ মাঠের খানিকটা সামনে থেকে রোবিনহোর মাপা ক্রস গিয়ে ইব্রাহিমের পায়ে, দারুণভাবে নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সহজেই লক্ষ্যভেদ করেন জাতীয় দলের এই স্ট্রাইকার। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে সমতায় ফেরে রহমতগঞ্জ। স্পট কিকে গোল করেন সানডে চিজোবা। ডান দিকে ঝাঁপিয়েও আটকাতে পারেননি জিকো।  

৫৯তম মিনিটে সোহেল রানার কর্নারে ফাকা পোস্টে হেড করলেও জালে জড়াতে পারেনি কেষ্ট কুমার। অবশেষে ৭৫তম মিনিটে জয়সূচক গোলের দেখা পায় বসুন্ধরা কিংস। রবসন রোবিনহোর কর্নারে গতির হেডে বল জালে জড়ান বদলি নামা ইয়াসিন আরাফাত। ৮৮তম মিনিটে ম্যাচে ফেরার দারুণ সুযোগ নষ্ট করেন সানডে চিজোবা। গোলরক্ষক জিকোকে একা পেয়েও বল মারেন বাইরে। চোখে-মুখে হতাশা দেখা যায় সানডের।  

এই নিয়ে টানা চার ম্যাচ জিতে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে উঠে এল বসুন্ধরা কিংস। ৫ ম্যাচে ৪ জয়ে ১২ পয়েন্ট তাদের। দুইয়ে থাকা আবাহনী লিমিটেড ১০ পয়েন্ট নিয়ে আছে দুইয়ে। অবশ্য মারিও লেমোসের দল এক ম্যাচ কম খেলেছে। অন্যদিকে ৫ ম্যাচে এখন পর্যন্ত ৪ হার ও ১ ড্রয়ে ১ পয়েন্ট পাওয়া রহমতগঞ্জ আছে তালিকায় একাদশ স্থানে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭২২ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২২
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।