ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৭ মে ২০২২, ১৫ শাওয়াল ১৪৪৩

স্বাস্থ্য

দিনাজপুরকে ‘রেড জোন’ ঘোষণার পরও উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২১, ২০২২
দিনাজপুরকে ‘রেড জোন’ ঘোষণার পরও উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি

দিনাজপুর: দিনাজপুরে ক্রমেই বেড়ে চলেছে করোনা সংক্রমণ ও শনাক্তের হার। দেশের ১২ জেলাকে করোনার ‘রেড জোন’ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।

এরমধ্যে দিনাজপুর জেলা অন্যতম। তবুও অনেকেই মাস্ক পরছেন না, মানছেন না স্বাস্থ্যবিধি।  

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) জেলায় ১৫২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৬৪ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৪২.১০ শতাংশ।

সিভিল সার্জনের দেওয়া বিজ্ঞপ্তির তথ্য অনুযায়ী ৮ থেকে ১৪ জানুয়ারি পর্যন্ত জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৪১ জন। এক সপ্তাহ পর  ১৫ থেকে ২১ জানুয়ারি পর্যন্ত প্রায় পাঁচ গুণ বেড়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২০২ জনে।  

শুধু আক্রান্তের সংখ্যাই নয়, সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যাও বেড়েছে প্রায় পাঁচ গুণ। ৮ থেকে ১৪ জানুয়ারি পর্যন্ত জেলায় করোনা সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ছিল ৪৯ জন। ১৫ থেকে ২১ জানুয়ারি এই এক সপ্তাহে সেই সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২৪০ জনে।  

করোনা আক্রান্তদের অধিকাংশই সদর উপজেলার। ১৫ থেকে ২১ জানুয়ারি এই এক সপ্তাহে আক্রান্ত ২০২ জনের মধ্যে ১৬০ জনই সদর উপজেলার।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( সার্বিক) শরিফুল ইসলাম বলেন, ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে, মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে অভিযান চলছে। লোকজনকে সচেতন করা হচ্ছে। যেভাবে সরকারের নির্দেশনাগুলো আসছে কেবিনেট থেকে সবগুলোই প্রতিপালন করা হচ্ছে।

এদিকে করোনা সংক্রমন বেড়ে যাওয়ায় ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে স্থগিত করা হয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে সব পরীক্ষা।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২১, ২০২২
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa