ঢাকা, শুক্রবার, ৬ কার্তিক ১৪২৮, ২২ অক্টোবর ২০২১, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

তথ্যপ্রযুক্তি

বুয়েটে মাইক্রোসফটের সেবা নিয়ে ইজেনারেশন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৬, ২০২১
বুয়েটে মাইক্রোসফটের সেবা নিয়ে ইজেনারেশন

ঢাকা: বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) জন্য সহায়ক মাইক্রোসফট সেবা নিয়ে এসেছে দেশীয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ই-জেনারেশন। মাইক্রোসফট ৩৬৫ প্ল্যাটফর্মের এই সেবার মাধ্যমে অ্যাডভান্সড অনলাইন ক্লাস ও পরীক্ষা ব্যবস্থা বাস্তবায়ন করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানায় ইজেনারেশন।

এতে বলা হয়, ক্লাউডভিত্তিক সল্যুউশনটি অত্যাধুনিক ই-লার্নিং সক্ষমতা ও ইন্টার‍এক্টিভ টুলসের মাধ্যমে কার্যদক্ষতা বাড়ানো, শিক্ষাদান পদ্ধতি উন্নতকরণ এবং কার্যকরী টিমওয়ার্ক বাস্তবায়নে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের দারুণভাবে সহায়তা করবে। সৃজনশীল চিন্তাভাবনা ও শিক্ষাধারার উন্নয়নে আধুনিক যোগাযোগপন্থা ও সমন্বিত টুলসের মাধ্যমে সল্যুউশনটি তৈরি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বুয়েট এবং ইজেনারেশনের মধ্যে এক সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর হয়। বুয়েটের ডিরেক্টরেট অব প্ল্যানিং অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের পরিচালক এবং ইনস্টিটিউট অব ওয়াটার অ্যান্ড ফুড ম্যানেজমেন্টের অধ্যাপক ড. জি.এম তারেকুল ইসলাম এবং ইজেনারেশনের অপারেশন ও সেলস বিভাগের পরিচালক এমরান আবদুল্লাহ নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বুয়েটের কম্পিউটার প্রোগ্রামার আদনান মাহমুদ, এস এম ফরিদ উদ্দিন, সহকারী কম্পিউটার প্রোগ্রামার ফেরদৌস আহমেদ ও ইজেনারেশনের বিজনেস ডেভেলপমেন্ট বিভাগের ব্যবস্থাপক মো. মামুনুর রশিদ উপস্থিত ছিলেন।

ইজেনারেশনের অপারেশন ও সেলস বিভাগের পরিচালক এমরান আবদুল্লাহ ভার্চ্যুয়াল ও ফিজিক্যাল ক্লাসরুমে প্রযুক্তির গুরুত্ব তুলে ধরে বলেন, ডিজিটাল রূপান্তরে দেশসেরা প্রকৌশল ইনস্টিটিউটটির অগ্রযাত্রায় কাজ করতে পেরে আমরা আনন্দিত। চলমান মহামারিতে গণশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য লার্নিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (এলএমএস) এবং মাইক্রোসফট সল্যুউশনসহ বিভিন্ন সেবার মাধ্যমে দেশের শিক্ষাখাতকে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে সহায়তা করেছে ইজেনারেশন। ডিজিটাল এডুকেশন ইকোসিস্টেম তৈরিতে আমরা আরও অধিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে কাজ করতে আগ্রহী।

বুয়েটের আইআইসিটির পরিচালক ড. মো. রুবায়েত হোসেন মন্ডল বলেন, নিয়মিত ক্লাসের পরিপূরক হিসেবে প্রযুক্তির মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়া চালিয়ে নেয়ার ক্ষেত্রে আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। আমাদের প্রতিষ্ঠানে আরও আধুনিক ও সমন্বিত শিক্ষার পরিবেশ তৈরি করতে চাই। আর এই লক্ষ্য অর্জনে আমাদের অন্যতম প্রযুক্তি অংশীদার ইজেনারেশন মাইক্রোসফট ৩৬৫ সল্যুউশনের মাধ্যমে প্রয়োজনীয়তা সহায়তা করছে এবং আন্তর্জাতিক মানে আমাদের শিক্ষা প্রযুক্তি অবকাঠামো তৈরি করছে। স্থানীয় শিক্ষা খাতের সহায়তায় ইজেনারেশনের একাগ্রতা ও সময়োপযোগী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৬, ২০২১
এসএইচএস/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa