ঢাকা, সোমবার, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৪ জিলহজ ১৪৪৩

তথ্যপ্রযুক্তি

আইসিটি খাতে সহযোগিতা বাড়াতে আগ্রহী বাংলাদেশ-থাইল্যান্ড 

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৪০ ঘণ্টা, মে ২৪, ২০২২
আইসিটি খাতে সহযোগিতা বাড়াতে আগ্রহী বাংলাদেশ-থাইল্যান্ড 

ঢাকা: গত ২৩-২৪ মে থাইল্যান্ডে দ্বিপাক্ষিক সফর করছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক। সফরের প্রথম দিন তিনি থাইল্যান্ডের ডিজিটাল ইকনোমি ও সোসাইটি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী চাইয়ুত থ্যংকামানুসরনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।

 

বৈঠকে প্রতিমন্ত্রী পলক দুই দেশের মধ্যকার সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্কের কথা উল্লেখ করেন।

বাংলাদেশের স্বাধীনতার অব্যবহিত পরে আসিয়ানের অন্যতম সদস্য রাষ্ট্র থাইল্যান্ড বাংলাদেশকে স্বীকৃতি দেওয়ায় প্রতিমন্ত্রী পলক থাইল্যান্ডের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। তিনি বাংলাদেশ ও থাইল্যান্ডের মধ্যকার কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে দুই দেশের আইসিটি খাতে সহযোগিতা আরও বাড়ানোর জন্য থাই মন্ত্রীকে আহ্বান জানান।

প্রতিমন্ত্রী পলক বর্তমান সরকারের আমলে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উল্লেখযোগ্য সাফল্য ও গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপ সম্পর্কে থাই তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রীকে অবহিত করেন। তিনি বর্তমান সরকারের রূপকল্প ২০৪১ বিষয়ে থাই মন্ত্রীর কাছে তুলে ধরেন এবং বাংলাদেশের সঙ্গে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে থাই বিনিয়োগ ও সহযোগিতা বাড়াতে আগ্রহ প্রকাশ করেন। প্রতিমন্ত্রী বিমসটেক সদস্যভুক্ত রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে অভিন্ন তথ্য সুরক্ষাবিধি তৈরির ওপর গুরুত্বারোপ করেন।  

তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার সব নাগরিকের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং প্রতিটি নাগরিকের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষার লক্ষ্যে সরকার তথ্য সুরক্ষা আইন তৈরির পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এ লক্ষ্যে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয় কাজ করছে বলেও জানান তিনি।  

বৈঠক শেষে প্রতিমন্ত্রী থাই মন্ত্রীকে আগামী ২০২২ সালের ডিসেম্বর মাসে ঢাকায় অনুষ্ঠেয় ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড- এ অংশগ্রহণের জন্য আমন্ত্রণ জানান। থাই মন্ত্রী এ আমন্ত্রণ সাদরে গ্রহণ করেন।

এরপর প্রতিমন্ত্রী এশিয়ান ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এআইটি) প্রেসিডেন্ট ড. এডেন উডসের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। এআইটি প্রেসিডেন্ট তার প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে প্রতিমন্ত্রী পলককে অবহিত করেন এবং এআইটিতে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি গ্রাজুয়েটদের ভূয়সী প্রশংসা করেন।  

 প্রতিমন্ত্রী পলক এআইটির সঙ্গে তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতা আরও বাড়ানোর প্রতি জোর দেন। তিনি আইসিটির বিভিন্ন ক্ষেত্রে গ্রাজুয়েশন এবং পোস্ট গ্রাজুয়েশন ডিগ্রির জন্য তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় বৃত্তি চালুর উদ্যোগ গ্রহণের কথা বলেন। এছাড়া বিভিন্ন মেয়াদের প্রশিক্ষণ কোর্সে ছাত্র, উদ্যোক্তাদের প্রশিক্ষণের জন্য এআইটির সহযোগিতা কামনা করেন। এ ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন এআইটির প্রেসিডেন্ট।

 বৈঠকগুলোতে আরও উপস্থিত ছিলেন থাইল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও দূতাবাসের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪০ ঘণ্টা, মে ২৪, ২০২২
টিআর/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa