ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ মাঘ ১৪২৮, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

আন্তর্জাতিক

কলকাতার পৌরভোটে কোটিপতি প্রার্থীর ছড়াছড়ি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৯, ২০২১
কলকাতার পৌরভোটে কোটিপতি প্রার্থীর ছড়াছড়ি

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা পৌরসভার ভোট আর মাত্র ১০ দিন পর। এই ভোটে বেশ কয়েকজন প্রার্থীর সম্পদের হিসাব দেখে অবাক হতে হয়।

 

পৌরসভা নির্বাচনে এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইয়ের স্ত্রী কাজরী বন্দ্যোপাধ্যায় লড়ছেন ৭৩ নম্বর ওয়ার্ডে। তিনি মুখ্যমন্ত্রীর ভাই সমীর বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী। সমীর অবশ্য কার্তিক নামেই বেশি পরিচিত। রাজ্য নির্বাচন কমিশনের কাছে কাজরী বন্দ্যোপাধ্যায় যে হলফনামা দিয়েছেন, তাতে দেখা যাচ্ছে, স্বামী-স্ত্রী মিলিয়ে তাদের সম্পত্তির পরিমাণ প্রায় পাঁচ কোটি টাকা।

কাজরী বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তির আর্থিক পরিমাণ ৩ কোটি ৮৬ লাখ ৮২ হাজার ৯৯৯ টাকা। তার মধ্যে অস্থাবর সম্পত্তির মূল্য ২ কোটি ৪৫ লাখ ৫৬ হাজার ৮৮৩ টাকা। আর স্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ১ কোটি ৪১ লাখ ২৬ হাজার ১১৬ টাকা।

আর কার্তিকের স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ৯৮ লাখ ২৪ হাজার টাকা। দুজনের মিলিত সম্পত্তির পরিমাণ চার কোটি ৮৫ লাখ টাকারও বেশি। কাজরী হলফনামায় জানিয়েছেন, ২০২০-২১ সালের আয়কর রিটার্ন অনুসারে তার বার্ষিক আয় ২৫ লাখ টাকারও বেশি।

কাজরীর মোট ৯টি জমি আছে, কার্তিকের আছে চারটি। কাজরীর জমি রয়েছে ওড়িশা, কলকাতার কালীঘাট ও সংলগ্ন এলাকায় এবং বোলপুরে। আর কার্তিকের জমি আছে কলকাতা, পুরী ও বোলপুরে। স্বামী-স্ত্রী দুজনেরই পেশা সমাজসেবা।

মেয়রসহ তৃণমূলের আরও কয়েকজন
গত পৌরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিম এবার লড়ছেন ৮২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে। তার হলফনামা অনুযায়ী, তার কাছে অস্থাবর সম্পত্তি রয়েছে চার কোটি ৩৮ লাখ ৬৬ হাজার টাকার এবং তার স্ত্রীর অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ হলো পাঁচ কোটি ৭১ লাখ ৫৩ হাজার টাকা। তাছাড়া ফিরহাদের এক কোটি ৮১ লাখ টাকার স্থাবর সম্পত্তি আছে এবং তার স্ত্রীর আছে দুই কোটি ১৬ লাখ ৬৫ হাজার টাকার।  

২০১৯-২০ সালের আয়কর রিটার্ন অনুসারে তার বার্ষিক আয় ৬৫ লাখের বেশি এবং তার স্ত্রীর এক কোটি ৩২ লাখ ৫৪ হাজার। পৌরসভায় যেসব প্রার্থী লড়ছেন, তাদের মধ্যে সম্পদের দিক থেকে ফিরহাদের স্থান উপরের দিকে।

পৌরসভার ১১৭ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূলের হয়ে লড়ছেন কৃষ্ণা সিং। তার মোট অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ তিন কোটি ছয় লাখ টাকা। তার স্বামীর চার কোটি ৮৭ লাখ। তাছাড়া কলকাতায় তার ছয়টি বাড়ি আছে, যার বর্তমান বাজারদর হলো চার কোটি ৫৫ লাখ। তার স্বামীর যে বাড়িঘর আছে তার বাদজারদর হলো ৯ কোপি ৫৪ লাখ টাকা। হলফনামায় এই কথা জানিয়েছেন কৃষ্ণা। তিনিও বিত্তবান প্রার্থীদের মধ্যে অন্যতম।

১০৩ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূলের প্রার্থী সুকুমার দাস পেশায় চিকিৎসক। তার অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ এক কোটি ৫৫ লাখ টাকা। আর তার স্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ হলো ৫ কোটি ৩৬ লাখ। তিনি থাকেন সন্তোষপুর অ্যাভিনিউতে। তাছাড়াও তার বেশ কয়েকটি বাণিজ্যিক সম্পত্তি ও চাষের জমি আছে।

বিগত পৌরসভায় পানির দায়িত্বে ছিলেন তারক সিং। তার অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ১ কোটি ৫৫ লাখ এবং স্থাবর সম্পত্তি, যা রয়েছে তার বর্তমান বাজারদর এক কোটি ৫৫ লাখ টাকা। তার স্ত্রীর জমি-বাড়ির বাজারদর এক কোটি ৩৩ লাখ টাকা। তিনি হায়ার সেকেন্ডারি পাস।

তার মেয়ে কাকলি বাগ লড়ছেন পাশের ১১৯ নম্বর কেন্দ্র থেকে। তার অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ৩৫ লাখ টাকা এবং স্থাবর সম্পত্তির বর্তমান বাজারদর ৭৫ লাখ টাকা।

তৃণমূল নেতা বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায় লড়ছেন ৮৯ নম্বর ওয়ার্ড থেকে। হলফনামা অনুসারে, তার অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ৯২ লাখ ৯৯ হাজারেরও বেশি। তার স্থাবর সম্পত্তির বর্তমান বাজারদর ছয় লাখ ৩৬ হাজার টাকার মতো।

পৌরসভা ৮১ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূল প্রার্থী হয়েছেন জুঁই বিশ্বাস। তার অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ৪৫ লাখ ৪১ হাজার। তার বাড়ির বর্তমান বাজারদর ২৭ লাখ টাকা। আর তার স্বামী স্বরূপ বিশ্বাসের অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ হলো এক কোটি ২২ লাখ ৬৫ হাজারের বেশি।

অন্য দলের প্রার্থীরা
বিজেপি, সিপিএম এবং কংগ্রেস প্রার্থীরাও পৌরসভা ভোটে লড়ছেন। তাদের কয়েকজন প্রার্থীর সম্পত্তির হিসাব দেয়া হলো।

৮১ নম্বর ওয়ার্ডে সিপিএমের প্রার্থী হলেন রিঙ্কু দে। হলফনামা অনুসারে তার অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ এক লাখ ৫৩ হাজার ৫০০ টাকা। কোনো স্থাবর সম্পত্তি নেই। তার স্বামীর অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ দুই লাখ ৭ হাজার টাকা।

একই ওয়ার্ডে বিজেপি প্রার্থী দিতয়া কাউরের অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ এক লাখ ১২ হাজার টাকা এবং স্থাবর সম্পত্তির বর্তমান বাজারদর ২০ লাখ টাকা।

৮৯ নম্বর ওয়ার্ডে বিজেপি প্রার্থী শান্তনু ভট্টাচার্যের অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ পাঁচ লাখ ৫৫ হাজার টাকা। আর তার অস্থাবর সম্পত্তির মধ্যে আছে উত্তরাধিকার সূত্রে পাওয়া বাড়ি, যার বাজারদর আনুমানিক ৮০ লাখ টাকা।

এই ওয়ার্ডে কংগ্রেস প্রার্থী সমীর সাহার অস্থাবর সম্পত্তি আছে পাঁচ লাখ ৫৫ হাজার টাকা। তার বাড়ির বাজারদর এখন ১০ লাখ টাকা বলে তিনি হলফনামায় জানিয়েছেন।

বিজেপি প্রার্থী অর্চনা গুপ্তার হলফনামা জানাচ্ছে, তার অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ দুই লাখ ৫৩ হাজার টাকা। তার নিজের কোনো বাড়ি বা ফ্ল্যাট নেই। তার স্বামীর আছে। তার বাজারদর ১০ লাখ টাকা।

সূত্র: ডয়েচে ভেলে

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৯, ২০২১
জেএইচটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa