ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৮ মে ২০২৪, ১৯ জিলকদ ১৪৪৫

ইসলাম

বনানী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের নতুন ভবন উদ্বোধন

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১১ ঘণ্টা, মার্চ ৫, ২০২৩
বনানী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের নতুন ভবন উদ্বোধন

দীর্ঘ প্রতীক্ষিত রাজধানীর বনানী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের নতুন ভবন উদ্বোধন করা হয়েছে। ২০১৯ সালে মসজিদের নতুন ভবনের নির্মাণকাজ শুরু করা হয় মসজিদটির প্রধান খাদেম, সাবেক সংসদ সদস্য ও প্রিমিয়ার ব্যাংকের চেয়ারম্যান, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. এইচ বি এম ইকবাল এবং ৩১ সদস্য বিশিষ্ট খাদেম কমিটির উদ্যোগে।

গত শুক্রবার (৩ মার্চ) দুপুরে মসজিদের উদ্বোধন ফলক উন্মোচিত হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ এমপি, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বি এইচ হারুন এমপি, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম, সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত এসসা ইউসেফ এসসা আল দুহাইলান, সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাষ্ট্রদূত আব্দুল্লাহ আলি আল হামুদি, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকসের (বিএবি) চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম মজুমদার, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের (এফবিসিসিআই) সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান কাজী আকরাম উদ্দিন আহমদ, প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা মহাপরিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক মোল্লা ফজলে আকবর, কেন্দ্রীয় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল, বনানী সোসাইটির সভাপতি শওকত আলী ভূঁইয়া দিলন, কুতুববাগ দরবারের শরিফের পীর আলহাজ মাওলানা হযরত সৈয়দ জাকির শাহ নকশবন্দি মোজাদ্দেদি কুতুববাগী প্রমুখ।

জুমার নামাজ শুরু হওয়ার আগে অতিথিদের বক্তব্যের পর সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন মসজিদটির প্রধান খাদেম বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. এইচ বি এম ইকবাল। অনেক জটিলতা অতিক্রম করে মসজিদে প্রথম জুমার নামাজ আদায় সম্ভব হওয়ায় তিনি মহান আল্লাহপাকের কাছে শুকরিয়া জ্ঞাপন করেন। তিনি এ মসজিদ নির্মাণের দীর্ঘ প্রচেষ্টার কথা উল্লেখ করে তাঁর একান্ত আগ্রহ, ব্যক্তিগত ও অন্যান্য সংশ্লিষ্ট সবার প্রচেষ্টার কথাও স্মরণ করেন। মসজিদ আল্লাহর ঘর, ইবাদতের জায়গা। মসজিদে এসে মুসল্লিরা যাতে সুন্দর পরিবেশে নামাজ আদায় করতে পারেন এবং তাদের অন্তরে প্রশান্তি পায়, মহান আল্লাহর সান্নিধ্য লাভের সুযোগ হয়, নিজেদের ভুল-ত্রুটির মাগফিরাত কামনার সঙ্গে সঙ্গে ন্যায়, সত্য ও কল্যাণের পথে চলা যায় সেদিকে আলোকপাত করেন তিনি।

মাওলানা আবুল কালাম আজাদ এ মসজিদের প্রথম জুমার নামাজে ইমামতি করেন। নামাজ শেষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, দেশ-জাতি, বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি, সমৃদ্ধি ও কল্যাণ কামনা করে দোয়া করা হয়।

নামাজ ও বয়ানের আগেই মুসল্লিতে পূর্ণ হয়ে যায় মসজিদ। নামাজ ও দোয়ার পর বহু সংখ্যক মুসল্লি মসজিদটির উদ্বোধনে আসা সব অতিথিসহ প্রধান খাদেম বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. এইচ বি এম ইকবাল এবং ৩১ সদস্য বিশিষ্ট খাদেম কমিটির সবার সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। তারা দৃষ্টিনন্দন ও সুপরিসর এ মসজিদ নির্মাণের একান্ত প্রচেষ্টার জন্য সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়ে জন্য দোয়া করেন।

মেজনাইন ফ্লোরসহ আটতলা বিশিষ্ট নবনির্মিত মসজিদটিতে নারী ও পুরুষদের জন্য পৃথক ওজু এবং নামাজের ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়াও বয়স্কদের জন্যে আলাদা নামাজের ব্যবস্থা আছে, মসজিদের টপ ফ্লোরে রয়েছে ইসলামিক লাইব্রেরি।  

বাংলাদেশ সময়: ১৯১১ ঘণ্টা, মার্চ ০৫, ২০২৩

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।