ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৩ মে ২০২৪, ১৪ জিলকদ ১৪৪৫

ইসলাম

আমেরিকায় ১৫ বছরের চেষ্টায় নির্মিত হলো মসজিদ

মুফতি এনায়েতুল্লাহ, বিভাগীয় সম্পাদক, ইসলাম | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৩৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৯, ২০১৫
আমেরিকায় ১৫ বছরের চেষ্টায় নির্মিত হলো মসজিদ

উইসকনসিন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি অঙ্গরাজ্য। ১৮৪৮ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ৩০তম অঙ্গরাজ্য হিসেবে উইসকনসিন অন্তর্ভুক্ত হয়।

উইসকনসিনের বৃহৎ শহর মিলাউকি। সেই মিলাউকিতে নির্মাণ করা হয়েছে একটি মসজিদ। মসজিদের নাম, ব্রুকফিল্ড মসজিদ। এই মসজিদটিকে বলা হচ্ছে দীর্ঘ ১৫ বছরের স্বপ্নের মসজিদ। এই মসজিদ নির্মাণ ও তা নামাজের জন্য খুলে দেওয়ার মাধ্যমে আমেরিকার মুসলমানদের দীর্ঘদিনের লালিত স্বপ্ন পূরণ হলো।

এই মসজিদে একসঙ্গে প্রায় দুই হাজার মানুষ নামাজ আদায় করতে পারবেন। এই মসজিদ নির্মাণ প্রসঙ্গে মিলাউকির ইসলামিক সোসাইটির নেতা আহমেদ কোরেশি বলেন, 'মসজিদ নির্মাণের পুরো কার্যক্রমে আমাদের পাশে অনেক বন্ধুকে পেয়েছি। ১৫ বছর ধরে মসজিদ নির্মাণের লালিত স্বপ্ন বাস্তবায়নে বিভিন্ন ধর্মের অনেকের কর্মপ্রচেষ্টা এ কাজকে সহজ করেছে। অবশেষে কাজটি সম্পন্ন করতে পেরে আল্লাহর দরবারে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। ’

চলতি বছরের মার্চ মাসে নামাজের জন্য খুলে দেওয়া ব্রুকফিল্ড মসজিদ নির্মাণের মূল কাজ শুরু হয় পাঁচ বছর আগে মিলাউকির ইসলামিক সোসাইটি কর্তৃক জমি ক্রয়ের মধ্য দিয়ে। ২০১২ সালে মসজিদ নির্মাণের জন্য তহবিল সংগ্রহ শুরু হয়। মসজিদটি নির্মাণে মোট ব্যয় হয়েছে ৩ মিলিয়ন ডলার।

মসজিদের আকর্ষণীয় ডিজাইন ইতোমধ্যেই মুগ্ধ করেছে অনেককে।

উল্লেখ্য যে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যে কোনো মসজিদ নির্মাণের জন্য সরকারের অনুমতি নিতে হয়। মসজিদ নির্মাণের অনুমতি দেওয়ারে সময় ধর্মীয় সহিষ্ণুতা এবং ট্রাফিক সমস্যাকে প্রধান বাধা হিসেবে দেখা দেয়। তার পরও মসজিদ নির্মাণের অনুমতি মিলে। যদিও বর্তমানে উইসকনসিন রাজ্যে কমপক্ষে ১৮টি মসজিদ নির্মাণের আবেদন ঝুলে আছে।

তবে স্থানীয় মুসলমানদের প্রত্যাশা, খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে উস্টবুর্গ গ্রামে একটি মসজিদ নির্মানের অনুমতি তারা লাভ করবেন।

বেশ কয়েকটি জরিপে দেখা গেছে, পশ্চিমা বিশ্বের অনেক দেশের তুলনায় মুসলমানরা এখনও যুক্তরাষ্ট্রকে অনেক বেশি নিরাপদ ও স্বাধীন দেশ হিসেবে বিবেচনা করে থাকেন।

-অন ইসলাম অবলম্বনে



বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৯, ২০১৫
এমএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।