ঢাকা, শুক্রবার, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৩১ মে ২০২৪, ২২ জিলকদ ১৪৪৫

আইন ও আদালত

ল্যাবএইডে রোগীর মৃত্যু: তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫৪ ঘণ্টা, মার্চ ১১, ২০২৪
ল্যাবএইডে রোগীর মৃত্যু: তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ

ঢাকা: রাজধানীর ধানমন্ডির ল্যাবএইড স্পেশালাইজড হাসপাতালে এন্ডোস্কপি করাতে গিয়ে কার্ডিয়াক অ্যারেস্টে রাহিব রেজা (৩১) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যুর অভিযোগ অনুসন্ধানে স্বাধীন তদন্ত কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবের নেতৃত্বে কমিটিতে কয়েকজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক ও একজন জ্যেষ্ঠ আইজীবীকে রাখতে বলা হয়েছে।

তিন মাসের মধ্যে এ কমিটিকে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

রাহিব রেজার পরিবারের পক্ষ থেকে করা এক রিটের প্রাথমিক শুনানি শেষে সোমবার (১১ মার্চ) বিচারপতি কে এম কামরুল কাদের ও বিচারপতি খিজির হায়াতের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন।

রুলে সারা দেশে চিকিৎসকদের অবহেলায় রোগী মৃত্যুর ঘটনার অভিযোগ খতিয়ে দেখতে একটি মেডিকেল বোর্ড গঠনের কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না এবং ল্যাবএইড হাসপাতালে রাহিব রেজার মৃত্যুর ঘটনায় তার পরিবারকে কেন ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়েছেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম। উপস্থিত ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার আখতার ইমাম ও ব্যারিস্টার রেশাদ ইমাম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ মো. সাইফুজ্জামান।

পরে রাশনা ইমাম জানান, ফেব্রুয়ারিতে রাহিব রেজা (৩১) একটি সিম্পল এন্ডোস্কপি করতে গিয়েছিলেন ল্যাবএইড স্পেশালাইজড হসপিটাল ধানমণ্ডিতে। ডাক্তার হচ্ছেন মামুন আল মাহতাব। অ্যানেস্থেসিয়া জনিত কারণে তার কার্ডিয়াক অ্যারেস্ট হয়। পরে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয়। কারণ, পালস, হার্টবিট, অক্সিজেন সারসুয়েশন কিছুই পাওয়া যাচ্ছিল না। শেষ পর্যন্ত তিন দিনের মাথার মৃত্যু ঘটে। সিম্পল এন্ডোস্কপি করতে গিয়ে তার মৃত্যু ঘটেছে। স্ত্রী, বাবা, বোন এবং দুই বছরের একটি কন্যা আছে তার। পরিবারের পক্ষ থেকে রিট করেছে।

তিনি আরও জানান, আদালত রুল জারি করেছেন। স্বাধীন একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির নেতৃত্বে থাকবেন অতিরিক্ত সচিব পদের একজন কর্মকর্তা। কমিটিতে বিশেষজ্ঞ কয়েকজন চিকিৎসক এবং একজন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী থাকবেন। তিন মাসের মধ্যে কমিটিকে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪৯ ঘণ্টা, মার্চ ১১, ২০২৪
ইএস/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।