ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আইন ও আদালত

হয়রানিমূলক মামলা

মানবাধিকার ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৩১ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৯, ২০১৪
হয়রানিমূলক মামলা ছবি: প্রতীকী

অনেক সময় আদালতে প্রতিকার চাইতে গিয়ে আমরা ভুল ব্যক্তির নামে মামলা করি। এতে মামলার বাদীর তেমন কোনো ক্ষতি না হলেও নিরীহ ব্যক্তিরা হয়রানির শিকার হন ও মামলায় অহেতুক জটিলতা বাড়ে।



তবে, ভুল ব্যক্তির অন্তর্ভূক্তি অনেক সময়েই বাদীর অনিচ্ছাকৃতও হতে পারে। অনেক ক্ষেত্রেই বাদীর প্রতিকার লাভের অধিকার কার বিরুদ্ধে সে বিষয়ে সন্দেহ থাকে। দুই বা ততোধিক বিবাদীর মধ্যে কোন বিবাদী দায়ী এবং কী পরিমাণ দায়ী সে বিষয়টি অনিশ্চিত হলে একাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধেই মামলা করা যায়।

যেসব ক্ষেত্রে কোনো একটি মামলায় একই ধরনের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে অনেক লোক বিদ্যমান থাকে, সে সব ক্ষেত্রে আদালতের অনুমতি নিয়ে তাদের সবাই বা একাধিক লোক মামলা দায়ের করার অধিকার রাখে কিংবা তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করতে পারে।

একই সাথে তারা সবাই একই মামলায় স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে আত্মপক্ষ সমর্থন করতে পারে।

যেকোনো  লোক যাদের পক্ষে বা সুবিধার্থে কোনো মামলা করা হয়েছে বা আত্মপক্ষ সমর্থন করা হয়েছে, আইনানুযায়ী এসব মামলা পক্ষ হওয়ার জন্য আদালতে আবেদন করতে পারবে।

এ বিধানে প্রতিনিধিত্বমূলক মামলা করার  বিধান দেয়া হয়েছে। এই মামলার জন্য আদালতের অনুমতি নেয়া প্রয়োজন।

একজন অংশীদার অপর সহ অংশীদারের পক্ষে দখলের মামলা করতে পারেন। একইভাবে যদি বাটোয়ারা মামলার বিবাদিদের একই স্বার্থ থাকে তবে তারা আইনানুযায়ী মামলা করতে পারেন।

কাউকে ভুল করে মামলার পক্ষ করা হয়ে থাকলে বিংবা পক্ষ থেকে বাদ দেয়া হলে সেজন্য মামলার কোনো ক্ষতি হবে না। আদালতের সামনে উপস্থাপিত প্রত্যেকটি মামলায় বিরোধীয় বিষয়টি পক্ষদের অধিকার ও স্বার্থের সঙ্গে যতটুকু সম্পর্কিত ততটুকুই বিবেচনা করতে পারবেন।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa