ঢাকা, সোমবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ মে ২০২২, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩

আইন ও আদালত

ওয়ান ব্যাংকের ২ কর্মকর্তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩, ২০২২
ওয়ান ব্যাংকের ২ কর্মকর্তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

ঢাকা: অবৈধভাবে প্রায় সাড়ে ১১ কোটি টাকা আত্মসাৎ ও পাচারের অভিযোগে ওয়ান ব্যাংকের গুলশান-১ শাখার দুই কর্মকর্তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছেন আদালত।

সোমবার (০৩ জানুয়ারি) ঢাকার সিনিয়র স্পেশাল জজ কে এম ইমরুল কায়েশ এই আদেশ দেন।

দুই কর্মকর্তা হলেন—ওয়ান ব্যাংকের গুলশান-১ শাখার প্রিন্সিপাল অফিসার মোহাম্মদ এমরান হোসেন (৩৮) ও একই শাখার এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট ফয়সাল আদিল (৪৭)।

এ দু’জনসহ মোট তিনজনের বিরুদ্ধে গত ১৫ ডিসেম্বর মামলা করেন দুদকের উপপরিচালক সৈয়দ নজরুল ইসলাম। অপর আসামি হলেন—ওয়ান ব্যাংক গুলশনা-১ শাখার ফার্স্ট এসিস্টেন্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট শফিউল আলম।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, দুদকের পক্ষে তদন্ত কর্মকর্তা সৈয়দ নজরুল ইসলাম এ দু’জনের বিদেশগমনে নিষেধাজ্ঞা জারির জন্য আদালতে আবেদন করেন। শুনানি শেষে আদালত আগামী ৬০ দিনের জন্য তাদের বিদেশ গমনের উপর নিষেধাজ্ঞা দেন।

মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধির ৪২০/৪০৯/৪৬৭/৪৬৮/৪৬৯/৪৭১/১০৯ ধারায় এবং ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারা এবং মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ২০১২ এর ৪(২) ও (৩) ধারায় অভিযোগ আনা হয়।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, অসৎ উদ্দেশ্যে একে অন্যের সহায়তায় প্রতারণা ও জালিয়াতির আশ্রয়ে অপরাধজনক বিশ্বাসভঙ্গ করে ক্ষমতার অপব্যবহারপূর্বক চারটি ইন্সুরেন্স কোম্পানির ব্যাংক হিসাবসহ অন্যান্য ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমে অবৈধ প্রক্রিয়ায় ১১ কোটি ৪০ লাখ ২৩ হাজার ৯২০ টাকা স্থানান্তরের মাধ্যমে জমা করে উত্তোলনপূর্বক আত্মসাত অবৈধ কার্যক্রমের মাধ্যমে অর্জিত উক্ত অপরাধলব্ধ আয়ের উৎসগোপন করার লক্ষ্যে উহা স্থানান্তর, রূপান্তর ও হস্তান্তরের মাধ্যমে মানি লন্ডারিং ধরায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯২৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৩, ২০২২
কেআই/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa