ঢাকা, শনিবার, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

মালয়েশিয়া

প্রবাসীদের কল্যাণে মিডিয়া সচেষ্ট থাকবে

কুয়ালালামপুর করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১১৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৯, ২০১৬
প্রবাসীদের কল্যাণে মিডিয়া সচেষ্ট থাকবে ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

প্রবাসীদের কল্যাণে সংবাদ কর্মীদের আরো সচেতন হওয়ার তাগিদ দিলেন বাংলাদেশের সিনিয়র সাংবাদিকরা।

বার্জায়া টাইম স্কয়ার (কুয়ালালামপুর): প্রবাসীদের কল্যাণে সংবাদ কর্মীদের আরো সচেতন হওয়ার তাগিদ দিলেন বাংলাদেশের সিনিয়র সাংবাদিকরা।

শনিবার (১৯ নভেম্বর) কুয়ালালামপুরের বার্জায়া টাইম স্কয়ারে শুরু হওয়া দু’দিনব্যাপী বাংলাদেশ গ্লোবাল সামিটের প্রথম দিনের শেষ অধিবেশনে আয়োজিত বিশেষ টক শোতে তারা এ তাগিদ দেন।

সিনিয়র সাংবাদিকরা বলেন, পাঠকের কাছে খবর পৌঁছে দিলেই মিডিয়ার দায়-দায়িত্ব শেষ হয়ে যায় না। সমাজ কাঠামোতেও মিডিয়ার গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব রয়েছে।

প্রবাসীদের কল্যাণে বাংলাদেশের মিডিয়া সদা সচেষ্ট থাকবে বলেও টক শো’তে প্রতিশ্রুতি দেন বক্তারা।  

এতে অংশ নেন সংবাদ প্রতিদিন সম্পাদক আবেদ খান, একুশে টেলিভিশনের সিইও মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, বাংলাদেশ প্রতিদিন সম্পাদক নঈম নিজাম, যুগান্তরের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাইফুল আলম, সময় টেলিভিশনের আহমেদ জোবায়ের, ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত, বিবিসি বাংলা বিভাগের প্রধান সাবির মোস্তফা, বাংলানিউজের কনট্রিবিউটিং এডিটর মাহমুদ হাফিজ, পূর্ব-পশ্চিমবিডি.কম সম্পাদক পীর হাবিবুর রহমান প্রমুখ।

নিজেদের বক্তব্য শেষে তারা বিভিন্ন দেশ থেকে আসা প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রশ্নের জবাব দেন।

অল ইউরোপিয়ান বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন এ সামিটের আয়োজক। ৪ বছর বয়সী সংগঠনটির উদ্যোগে এটা প্রথম সামিট। এ অ্যাসোসিয়েশন চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার জয়নাল আবেদিন ও সেক্রেটারি কাজী এনায়েত উল্লাহ। সামিটের প্রধান সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করেন মাঈনুল ইসলাম নাসিম।

প্রথম দিনের স্বাগত বক্তব্যে সব প্রতিবন্ধকতা জয় করে বিশ্বের বুকে মাথা তুলে দাঁড়ানোর জন্য প্রবাসী বাংলাদেশিদের প্রতি আহ্বান জানান কুয়ালালামপুরস্থ বাংলাদেশের হাই কমিশনার মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম।
মধ্যাহ্নভোজের পর শুরু হয় বিশেষায়িত কর্মশালা। ২০ ডিসেম্বর দিনভর কয়েকটি বিশেষ সেমিনার শেষে বিকেলে এ সামিটের যবনিকা নামবে।  

প্রথম দিনের দ্বিতীয় অধিবেশনে বিভিন্ন দেশ থেকে আসা প্রবাসীরা বাংলাদেশিদের সম্ভাবনা ও করণীয় নিয়ে আলোচনা করেন।

দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠানে মালয়েশিয়ার পর্যটন ও সংস্কৃতি মন্ত্রী দাতো সেরি মোহাম্মদ নাজরি বিন আব্দুল আজিজ উপস্থিত থাকবেন। প্রবাসীদের সমস্যা,  সম্ভাবনা, দেশে বিনিয়োগ, জ্বালানি, পরিবেশ, পর্যটন, অভিবাসনসহ উন্নয়নের সব বিষয়ের নিয়ে আলোচনা শেষে কুয়ালালামপুর ডিক্লারেশন নামে একটি ঘোষণাপত্র প্রকাশ করবেন আয়োজকরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৯, ২০১৬
জেডএম/এসএইচ

**
গ্লোবাল বাংলাদেশ সামিটে প্রবাসীদের মেলা

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa