ঢাকা, বুধবার, ১১ বৈশাখ ১৪৩১, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১৪ শাওয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

দুই বিদেশিকে নিয়ে গোপনে তিস্তার চর পরিদর্শন বাণিজ্যমন্ত্রীর

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮০৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৮, ২০২৩
দুই বিদেশিকে নিয়ে গোপনে তিস্তার চর পরিদর্শন বাণিজ্যমন্ত্রীর

লালমনিরহাট: দুইজন বিদেশিকে নিয়ে অনেকটা গোপনেই লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর চরাঞ্চল পরিদর্শন করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সি। শুক্রবার (২৭ জানুয়ারি) বিকেলে তাদের নিয়ে কালীগঞ্জ উপজেলার শৌলমারী গ্রামে তিস্তার চরাঞ্চল পরিদর্শন করেন তিনি।

স্থানীয়রা জানান, তিস্তা নদীর বুকে জেগে ওঠা বালুচরে বিভিন্ন ফসল চাষাবাদ করছেন চাষিরা। শৌলমারী চরাঞ্চলের চাষিরা প্রতিদিনের মতো শুক্রবার বিকেলেও নিজ নিজ ক্ষেতের পরিচর্যায় ব্যস্ত ছিলেন। হঠাৎ কয়েকটি দামি গাড়ি সেখানে এলে প্রথমে চমকে ওঠেন তারা। পরে গাড়ি থেকে নেমে আসেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সি। তার সঙ্গে ছিলেন স্পেনের দুই নাগরিক।

গাড়ি থেকে নেমে বাণিজ্যমন্ত্রী বিদেশি নাগরিকদের সঙ্গে কথা বলতে বলতে চরাঞ্চলের অনেকটা জায়গা ঘুরে ঘুরে দেখান। চরবাসীর সুখ-দুঃখ এবং চাষাবাদ, জীবন-জীবিকা নিয়েও চাষিদের সঙ্গে কথা বলেন মন্ত্রী। এ সময় বন্যা, নদী ভাঙন  আর খরার সঙ্গে নিজেদের নিত্য লড়াই করে চলা জীবন কাহিনীও বর্ণনা করেন চাষিরা। ভিটে মাটি হারানোর বেদনাও অকুত ভয়ে জানান তারা।

জন্মলগ্ন থেকে খনন না করায় তলদেশ ভরাট হওয়া তিস্তায় সামান্য পানি এলেই দুই তীরে ভয়াবহ বন্যা আর তীব্র ভাঙনে দেখা দেয়। এতে দিশেহারা হয়ে পড়েন দুই পাড়ের মানুষ। তাই তিস্তা নদী খনন করে দুই তীরে বাঁধ নির্মাণের দাবি দীর্ঘদিন ধরে করে আসছেন তারা। সেই দাবি পূরণে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত প্রতিশ্রুতি তিস্তা মহাপরিকল্পনা দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জানান এলাকাবাসী।

বিদেশি নাগরিকরাও চাষিদের সঙ্গে তাদের চাষাবাদ পদ্ধতি ও ফসলের ধরন নিয়ে কথা বলেন। এছাড়া চরবাসীর জীবনমান নিয়েও তাদের সঙ্গে কথা বলেন। বিশেষ করে চরাঞ্চলে ভুট্টা চাষের ব্যাপারে বেশ খোঁজ খবর নিয়েছেন। চাষিদের ধারণা ওই দুই বিদেশি কৃষি বিষয়ের কোনো কাজে এসেছিলেন।

এ সময় বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সির সঙ্গে আরও ছিলেন কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জহির ইমাম ও কালীগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম রসুল।

ইউএনও জহির ইমাম বলেন, আগে থেকে বাণিজ্যমন্ত্রীর আসার কোনো সূচি ছিল না। অনেকটা হঠাৎ করেই চরাঞ্চল পরিদর্শনে এসেছেন তিনি। চাষাবাদ ও জীবনমান নিয়ে চরাঞ্চলের চাষিদের সঙ্গে কথা বলেছেন। বিশেষ করে চরাঞ্চলের ভুট্টার চাষাবাদের বিষয়ে কথা বলেছেন। সম্ভবত উন্নত জাতের ভুট্টার চাষাবাদের বিষয়ে সম্ভবতা যাচাইয়ের জন্য স্পেনের দুই নাগরিকসহ তিনি এসেছেন। বিদেশি নাগরিকরা কৃষি উৎপাদন ও বিপণন বিভাগের হতে পারে। তাদের উদ্ভাবিত উন্নত জাতের ভুট্টার চাষাবাদের জন্য হয়তো এসেছেন।

কিছু সময় পরিদর্শন শেষে বাণিজ্যমন্ত্রী দিনাজপুরের বিরলের উদ্দেশ্যেওই এলাকা ত্যাগ করেন বলেও জানান ইউএনও জহির ইমাম।

বাংলাদেশ সময়: ০৮০২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৮, ২০২৩
এফআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
welcome-ad