ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৯ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

বাবার সমাধীর পাশে গাছে ঝুলছিল ছেলের মরদেহ

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩৪ ঘণ্টা, মার্চ ৩০, ২০২৩
বাবার সমাধীর পাশে গাছে ঝুলছিল ছেলের মরদেহ

পাথরঘাটা (বরগুনা): বাবা মারা গেছেন আট বছর আগে। মায়ের মৃত্যু তারও আগে।

পাথরঘাটার কাঠালতলী ইউনিয়নের পংকজ ও আশা রানী দম্পতির একমাত্র সন্তান প্রদীপও (১৫) চলে গেল বাবা-মার পথেই।  

বৃহস্পতিবার (৩০ মার্চ) সকালে বাবার সমাধীর পাশে একটি নিম গাছ থেকে তার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

বুধবার (২৯ মার্চ) রাতের কোনো এক সময় ঘটে এই ঘটনা। এতে হতবিহ্বল হয়ে পড়ে এলাকার লোকজন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পাথরঘাটার কাঠালতলী ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য অঞ্জন ভট্টাচার্য বলেন, প্রদীপের বাবা পংকজ আমার বন্ধু ছিলো। সে মারা যাওয়ার আগে তার স্ত্রী আশা রানীর মানসিক রোগ ছিলো। সে কারণে অস্বাভাবিক মৃত্যু হয় তার। একমাত্র সন্তান প্রদীপের লেখাপড়ার দায়িত্ব আমি নিই। কিন্তু পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত কোনো রকম লেখাপড়া করলেও মায়ের মতো মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে সে। নিকটতম স্বজনরা চিকিৎসা করালেও তেমন সুস্থ হয়নি।

হঠাৎ আজ (৩০ মার্চ) সকালে প্রদীপের মরদেহ তার বাবার সমাধীর পাশে একটি নিম গাছে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখা যায়। মনে হচ্ছে, মানসিক ভারসাম্যহীনতার কারণে এ ঘটনা ঘটে। তবে তার কোনো প্রতিপক্ষ আছে এমনটা জানা নেই।

এ বিষয়ে পাথরঘাটা থানার কর্তব্যরত উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. শহিদুল ইসলাম জানান, মরদেহের সুরতহাল রিপোর্ট করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা পাঠানো হবে। ‌ তদন্তের রিপোর্ট পেলেই বিস্তারিত বলা যাবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৯ ঘণ্টা, মার্চ ৩০, ২০২৩
এনএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।