ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৩ জুন ২০২৪, ০৫ জিলহজ ১৪৪৫

জাতীয়

ঘূর্ণিঝড় রিমাল

নোয়াখালীর উপকূলে বাড়ছে বৃষ্টি-বাতাস, নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৫৮ ঘণ্টা, মে ২৭, ২০২৪
নোয়াখালীর উপকূলে বাড়ছে বৃষ্টি-বাতাস, নিম্নাঞ্চল প্লাবিত

নোয়াখালী: ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার বিভিন্ন এলাকার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। সোমবার (২৭ মে) সকাল থেকে টানা বৃষ্টি ও বাতাসে জনজীবন স্থবির হয়ে পড়েছে।

 হাতিয়ার সঙ্গে সব ধরনের নৌ-চলাচল বন্ধ থাকায় অনেকে আটকা পড়েছে চেয়ারম্যান ঘাট এলাকায়। হাতিয়া উপজেলা প্রশাসন জানান, রোববার (২৬ মে) মধ্যরাত থেকে বৃষ্টি ও বাতাস শুরু হয়, যা এখন পর্যন্ত অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া দুপুর ১২টার পর থেকে জোয়ারের পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে হাতিয়ার নিঝুমদ্বীপ, ঘাসিয়ার চর, ডালচর, হরণি ও বয়ারচর এলাকার অন্তত ১৫টি গ্রাম প্লাবিত হয়।

উপজেলার তমরুদ্দি ইউনিয়নের বেড়িবাঁধ ভেঙে আরও কয়েকটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে।  এছাড়া নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়নে একটি মাদ্রাসা ও ১০টির মতো কাঁচা ঘর ভেঙে পড়ে এবং জোয়ারে সেগুলো ভাসিয়ে নিয়ে যায়। এদিকে বয়ারচরে চেয়ারম্যান ঘাট এলাকার চতলার ঘাটের বাঁধের কিছু অংশ ভেঙে পড়ে। এতে করে বাঁধের পাশের দোকানিরা তাদের দোকানপাট সরিয়ে নিতে দেখা যায়।  

হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শুভাশীষ চাকমা জানান, কিছু নিম্নাঞ্চল জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হয়েছে। তবে তা স্থায়ী নয়, রাতের মধ্যে দিকে জোয়ারের পানি নেমে গেলে স্বাভাবিক হয়ে যাবে।

নিম্নাঞ্চলের মানুষজনকে স্থানীয় সাইক্লোন সেল্টারে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫৬ ঘণ্টা, মে ২৭, ২০২৪
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।