ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আশ্বিন ১৪২৯, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

উত্তরায় গার্ডারচাপা: তদন্তে চীনা প্রতিনিধিদল, শাস্তিতে আপত্তি নেই

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫০৪ ঘণ্টা, আগস্ট ১৮, ২০২২
উত্তরায় গার্ডারচাপা: তদন্তে চীনা প্রতিনিধিদল, শাস্তিতে আপত্তি নেই

ঢাকা: উত্তরায় গার্ডারচাপায় ৫ জনের মৃত্যুর ঘটনায় বিআরটি প্রকল্পের সওজ অংশের নির্মাণকাজের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের উচ্চ পর্যায়ের একটি প্রতিনিধিদল প্রতিষ্ঠানটির পক্ষে তদন্তের জন্য চীন থেকে বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছে। প্রতিনিধিদলটি সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের তদন্ত কমিটিকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা করতে প্রস্তুত।

বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) সকালে সচিবালয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এ বি এম আমিন উল্লাহ নুরীর সঙ্গে সৌজন্য স্বাক্ষাৎকালে এ কথা জানিয়েছেন।

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য জানানো হয়।

গত ১৫ আগস্ট উত্তরায় একটি প্রাইভেট কারের ওপর প্রকল্পের গার্ডার পড়ে ৫ জন নিহত হয়। এ ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটি প্রাথমিক তদন্তে চীনা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে দায়ী করেছে।

বিআরটি প্রকল্পের এই কাজের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চীনের গ্যাঝুবা গ্রুপ করপোরেশন (সিজিজিসি)। প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে অবহেলাজনিত মৃত্যুর অভিযোগ এনে সোমবার রাতেই মামলা করেছেন নিহতের এক স্বজন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, চীনের রাষ্ট্রদূত গত ১৫ আগস্ট উত্তরায় ঢাকা বিআরটি প্রকল্পের গার্ডার দুর্ঘটনায় প্রাণহানিতে গভীর শোক প্রকাশ করেন এবং নিহতদের পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানান। তিনি আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেন। চীনের রাষ্ট্রদূত গার্ডার দুর্ঘটনা তদন্তে গঠিত কমিটির প্রতিবেদনের সুপারিশ অনুযায়ী শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষেত্রে কোনো আপত্তি থাকবে না বলে জানান।

ঢাকা বিআরটি প্রকল্পের সওজ অংশের নির্মাণ ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের উচ্চ পর্যায়ের একটি প্রতিনিধিদল প্রতিষ্ঠানের পক্ষে তদন্তের জন্য চীন থেকে বাংলাদেশে এসে পৌঁছেছেন বলে রাষ্ট্রদূত জানান। প্রতিনিধিদলটি সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ কর্তৃক গঠিত তদন্ত কমিটিকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত বলেও জানান তিনি।

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব বলেন, এ মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় সমগ্র জাতি ব্যথিত। যে কোন উন্নয়নমূলক কাজে নিরাপত্তার বিষয়টি সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। ঘটনার তদন্তে গঠিত কমিটিতে আমরা বুয়েটের একজন বিশেষজ্ঞ অন্তর্ভুক্ত করেছি। আগামী সাত দিনের মধ্যে কমিটিকে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য বলা হয়েছে। প্রতিবেদনের সুপারিশ অনুযায়ী কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এই সময় সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী একেএম মনির হোসেন পাঠান, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব নীলিমা আখতার, বিআরটি প্রকল্পের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সফিকুল ইসলাম, প্রকল্পের পরামর্শক টিমের প্রধান টিগ ম্যাকরিন, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ এবং প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫০২ ঘণ্টা, আগস্ট ১৮, ২০২২
এমআইএইচ/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa