ঢাকা, রবিবার, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০৬ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

খেজুরের রস খেয়ে হাসপাতালে ৫ জন, নিপা ভাইরাসের সম্ভাবনা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০২ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০২২
খেজুরের রস খেয়ে হাসপাতালে ৫ জন, নিপা ভাইরাসের সম্ভাবনা

সাভার (ঢাকা): পাবনা থেকে আসা খেজুরের রস খেয়ে জ্বর-ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হওয়ায় ২ শিশুসহ একই পরিবারের ৫ জনকে সাভারের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে চিকিৎসকদের ধারনা তারা ‘নিপা ভাইরাসে’ আক্রান্ত।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন সাভার প্রাইম হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের চিকিৎসক ডা. এম এ রাজ্জাক।

অসুস্থ সবাই সাভারের শিমুলতলা এলাকার বাসিন্দা।

অসুস্থ রোগী ও তাদের স্বজনরা জানান, গত বুধবার (২২ নভেম্বর) গ্রামের বাড়ি পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার দরগাপাড়া থেকে সাভারে খেজুরের রস পাঠায় স্বজনরা। পরে সেই রস খাওয়ার পর ৫ জন জ্বর-ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়। পরে তাদের সাভারের প্রাইম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে তাদের সেখানে চিকিৎসা চলছে।

তাদের দাবি, গ্রামের বাড়ি থেকে পাঠানো খেজুরের রস যে ৫ জন খেয়েছেন, তাদের সবাই জ্বর-ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া গ্রামের বাড়িতে আরও ৩ জন রস খেয়ে একই ধরনের সমস্যা নিয়ে স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

সাভার প্রাইম হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের চিকিৎসক ডা. এম এ রাজ্জাক বাংলানিউজকে বলেন, এই পরিবারটিতে ৮ জন সদস্য। এর মধ্যে যে পাচঁজন গ্রামের বাড়ি থেকে পাঠানো খেজুরের রস খেয়েছেন, শুধু তারাই যেহেতু জ্বর-ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। একই রস খেয়ে গ্রামের বাড়িতেও যেহেতু আরও ৩ জন জ্বর-ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে, তাই ধারনা করছি তারা সবাই নিপা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের অবস্থা কিছুটা উন্নতির দিকে, আজ তাদের হাসপাতাল থেকে রিলিজ দেওয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, মূলত যখন খেজুরের রস গাছ থেকে উৎপাদন করা হয় রাতে, তখন বাদুর সেই রসের হাড়ির ওপর এসে বসে রস খায়। সেই থেকে রস বাদুরের সংস্পর্শে আসে। এতে এই নিপা ভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই আমি মানুষকে সচেতনতার জন্য খেজুর রস খাওয়া থেকে বিরত থাকার অনুরোধ করছি।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৯ ঘণ্টা, ২৬ নভেম্বর ২০২২
এসএফ/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa