ঢাকা, সোমবার, ৯ বৈশাখ ১৪৩১, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১২ শাওয়াল ১৪৪৫

রাজনীতি

নির্বাচনে না আসার খেসারত বিএনপিকে দিতে হবে: ওবায়দুল কাদের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫১৪ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২৪
নির্বাচনে না আসার খেসারত বিএনপিকে দিতে হবে: ওবায়দুল কাদের

ফেনী: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, অবাক লাগে মির্জা ফখরুল জেল থেকে বের হয়ে তিনি জনগণের কাছে অসুস্থতার অজুহাতে যাননি। মার্কিনি প্রতিনিধি আসলে তিনি নালিশ করতে চলে গেছেন।

নালিশ করা তাদের পুরোনো অভ্যাস।

সোমবার (২৬ ফ্রেব্রুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ফেনীর দাগনভূঞাঁয় সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় তিনি আরও বলেন, মার্কিন প্রতিনিধি দলের কাছে বিএনপির অভিযোগের জবাব সরকার দিয়েছে। তারা নালিশ করবে। আমরা চুপচাপ থাকব। এমনতো হতে পারে না। বিএনিপির ৫০ হাজার নেতাকর্মী জেলে আছে। এমন উদ্ভট দাবিও করেছিল। এখন আবার দাবি করছে তাদের ৪ হাজার নেতাকর্মী জেলে। তাহলে জেলে থাকা চোর-ডাকাতরাও বিএনপির নেতাকর্মী এমন প্রশ্ন রাখেন মন্ত্রী।

মন্ত্রী আরও বলেন, সমালোচনা যারা করবে। তারা করবেই। দেশেও করবে। বিদেশেও করবে। যারা ক্ষমতা পায়নি, নির্বাচনে আসেনি। তারা টের পাবে তারা নিজেদের রাজনীতিতে কতটা সংকুচিত করেছে। এ জন্য বিএনপিকে খেসারত দিতে হবে।  

উপজেলা নির্বাচন প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, উপজেলা নির্বাচনে আমরা কাউকে নৌকা দিচ্ছি না। অতএব বুঝেশুনে নির্বাচন করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী এ অভিজ্ঞতাও নিতে চান। জাতীয় নির্বাচনে বিএনপি না আসলেও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা নির্বাচনকে গ্রহণযোগ্য করে তুলেছিলেন।

মন্ত্রী এ সময় আরও বলেন, ঢাকা-চট্রগ্রাম ছয়লেন হবে আপাতত। ভবিষ্যৎ আরও বর্ধিত করার বিষয়ে ভাবতে হতে পারে।

মন্ত্রী বলেন, নোয়খালী- ফেনী মহাসড়ক চার লেন হয়েছে। এটি কল্পনাও কেউ করেনি কেউ আগে। এলাকাটি অন্ধকার ছিল এখন সেটি অনেক প্রশস্ত। এ অঞ্চলের মানুষ এমন পরিবর্তনকে গ্রহণও করেছে।

দেশের সাধারণ নির্বাচন অনেক প্রতিকূলতা চক্রান্ত প্রতিহত করে সম্পন্ন হয়েছে। সংশয় ছিল নির্বাচন হবে কী হবে না। বঙ্গবন্ধু কন্যা নির্ভীক ছিলেন। তিনি দেশের জনগণ ও সংবিধানের কমিটমেন্ট পূরণ করেছেন। অনেক ষড়যন্ত্র সন্ত্রাস হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী লক্ষ্যের পথে এগিয়ে গেছেন। জীবনের ঝুঁকি নিয়েও তিনি তার কর্তব্য সম্পাদন করেছেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, ফেনীতে বড় সমাবেশ করার চিন্তা করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

দাগনভূঞাঁ উপজেলা চেয়ারম্যান দিদারুল কবির রতনের সঞ্চালনায় এ সময় অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারী, ফেনী জেলা প্রশাসক মুসাম্মৎ শাহীনা আক্তার, ফেনী পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী,  সোনাগাজী উপজেলা চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন মাহমুদ লিপটন ও দাগনভূঞাঁ পৌর মেয়র ওমর ফারুক।  

বাংলাদেশ সময়: ১৫১৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২৪
এসএইচডি/জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।