ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ কার্তিক ১৪২৮, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

রাজনীতি

প্রধানমন্ত্রীর পছন্দ হুদার মতো লোক: রিজভী

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬১৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১
প্রধানমন্ত্রীর পছন্দ হুদার মতো লোক: রিজভী

ঢাকা: বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, নির্বাচন কমিশন গঠনের জন্য মন্ত্রিপরিষদ থেকে প্রধানমন্ত্রীর কাছে নির্দেশনা চায়। অথচ সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন কমিশন গঠনের অথরিটি হলেন রাষ্ট্রপতি।

প্রধানমন্ত্রীর প্রথম পছন্দ তো নূরুল হুদার মতো লোক। যে ব্যক্তিটি বাংলাদেশের ইতিহাসের সবচাইতে অপরিচ্ছন্ন নির্বাচন করেছেন। তার মতো লোক প্রধানমন্ত্রীর অত্যন্ত প্রয়োজন।   

মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে পাওয়ার অব ইউথ নামে একটি সংগঠন আয়োজিত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ১৪তম কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার নূরুল হুদার কথা উল্লেখ করে রিজভী বলেন, উনিতো (নির্বাচন কমিশিন) প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী যে যে প্রার্থীতা ঘোষণা করতে বলা হয়, সেসব প্রার্থীদের নির্বাচিত ঘোষণা করেন। নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর যদি নতুন নির্বাচন কমিশনার ঘোষণার নির্দেশ দেওয়া হয় তাহলে প্রধানমন্ত্রী এ নুরুল হুদাকেই পছন্দ করবেন। আর যদি সে আবার নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব পায় তাহলে নির্বাচন আরও ধ্বংসস্তূপে পরিণত হবে।

সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে দুর্নীতি হচ্ছে এমন দাবি করে রিজভী বলেন, এতই যদি উন্নয়ন হয়ে থাকে তাহলে কেন দেশ-বিদেশের মিডিয়াতে বলা হচ্ছে গত কয়েক বছরে ১১ হাজার লাখ কোটি টাকা পাচার করা হয়েছে। বর্তমান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা দেশের বাইরে বিভিন্ন সুন্দর সুন্দর কটেস কিনেছেন। ইন্ডিয়ার কেরালাতে, কানাডার বেগম পাড়াসহ আরও বিভিন্ন জায়গায় তারা কটেস কিনেছেন। সেই টাকাগুলো হলো দেশের ব্রিজ তৈরি ও অন্যান্য উন্নয়নের জন্য বরাদ্দকৃত টাকা।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে রিজভী বলেন, আপনার মধ্যে যদি কর্তব্যবোধ দায়িত্বশীলতা থাকতো তাহলে আপনি এ কথাগুলো বলতেন না। এ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর আমলে শুধু জাল-জালিয়াতি আর চুরি হয়েছে। জনগণ মারা গেলে বা করোনায় আক্রান্ত হলে তাতে তার কিছু আসে যায় না।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনি বাংলাদেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করেছেন। আপনি ফ্লাইওভার দেখান, ব্রিজ দেখান, এগুলোতো বিভিন্ন স্বৈরাচার ফ্যাসিস্ট সরকারও দেখাতো। এগুলো দেখে কী জনগণ উপকৃত হয়?  

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি শওকত আজিজের সভাপতিত্বে ও কৃষকদল নেতা রকিবুল ইসলাম রিপনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা প্রফেসর আব্দুল কুদ্দুস, বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, সহ-প্রচার সম্পাদক আমিরুল ইসলাম খান আলিম, ঢাকা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আবু আশফাক, ছাত্রদলের সহ-সভাপতি পার্থদেব মণ্ডল প্রমুখ বক্তব্য দেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৩ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১
এমএইচ/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa