ঢাকা, সোমবার, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৮ আগস্ট ২০২২, ০৯ মহররম ১৪৪৪

রাজনীতি

বিএনপির স্মরণকালের বড় সমাবেশ হবে খুলনায়: মঞ্জু

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৯, ২০২১
বিএনপির স্মরণকালের বড় সমাবেশ হবে খুলনায়: মঞ্জু সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন নজরুল ইসলাম মঞ্জু

খুলনা: বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মহানগর সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেছেন, খুলনায় মঙ্গলবারের (৩০ নভেম্বর) সমাবেশ হবে স্মরণকালের বড় সমাবেশ। সমাবেশ সফল করতে বিএনপির নেতাকর্মীরা কাফনের কাপড় বেঁধে মাঠে থাকবেন।

এতে কোনো ধরনের বাধা আসলে পরিণাম শুভ হবে না।

খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও বিদেশে সুচিকিৎসার দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে খুলনা বিভাগীয় সদরে ৩০ নভেম্বর (মঙ্গলবার) সমাবেশ সফলের লক্ষ্যে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

সোমবার (২৯ নভেম্বর) দুপুরে মহানগরীর দলীয় কার্যালয়ে খুলনা মহানগর ও জেলা বিএনপি এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

এ সময় নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেন, অবৈধ সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে খালেদা জিয়ার উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করছে না। সরকারের ইশারায় উচ্চ আদালত জামিন না দেওয়ায় তিনি মৃত্যুর দিকে ধাবিত হচ্ছেন। ক্ষমতার অপব্যবহারের কারণে একদিন অবৈধ সরকারকেও আইনের মুখোমুখি হতে হবে। যদি খালেদা জিয়াকে বাঁচতে দেওয়া না হয়, তাহলে এই সরকারও বাঁচতে পারবে না। অতীতের আন্দোলন, আর এখনকার আন্দোলন এক রকম হবে না। কারণ প্রেক্ষাপট ভিন্ন।

তিনি জানান, সমাবেশে প্রধান অতিথি থাকবেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য সাবেক মন্ত্রী গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। বিশেষ অতিথি থাকবেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নিতাই চন্দ্র রায় ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য মসিউর রহমান। সমাবেশের অনুমতি চেয়ে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি) ও খুলনা সিটি কর্পোরেশনের (কেসিসি) কাছে আবেদন করা হয়েছে। সকল বাধা বিপত্তি উপেক্ষা করে হাদিস পার্ক অথবা কেডি ঘোষ রোডে সমাবেশ হবে। নির্ধারিত সময় বেলা ১১টার পরিবর্তে বিকেল ৩টায় এ সমাবেশ হবে।

দলের প্রিয় নেত্রীর চিকিৎসার দাবিতে মানবিক কর্মসূচিতে কেএমপি ও সিটি কর্পোরেশন অনুমতি দেবে এমন অশাবাদ ব্যক্ত করে সাবেক এই এমপি বলেন, গত ২২ নভেম্বরের সমাবেশে পুলিশের তাণ্ডবে প্রায় দুই শতাধিক কর্মী আহত হয়েছেন।

তিনি বলেন, প্রথম ঘোষণায় ৭১ জন আহত হওয়ায় কথা থাকলেও ওয়ার্ড পর্যায়ে আহতদের দেখতে যেয়ে আমরা হতবাক হয়েছি। আহতদের সংখ্যা অনেক বেশি ও নৃশংসতার বিভৎসরূপ আনেক বড়। কারাগারে আটক ৭ জন এখনও মুক্ত হয়নি।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা বিএনপি সভাপতি অ্যাড. শফিকুল আলম মনা ও জেলা সাধারণ সম্পাদক আমির এজাজ খান, বিএনপি নেতা মীর কায়সেদ আলী, শেখ মোশাররফ হোসেন, অ্যাড. ফজলে হালিম লিটন, রেহেনা ঈসা, শাহজালাল বাবলু, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, শেখ আব্দুর রশিদ, এস এ রহমান বাবলু, মোল্লা সাইফুর রহমান মিন্টু, আব্দুর রকিব মল্লিক, অ্যাড. তসলিমা খাতুন ছন্দা, আবু হোসেন বাবু, মো. মাহবুব কায়সার, নজরুল ইসলাম বাবু, কামরুজ্জামান টুকু, মোল্লা মোশারফ হোসেন মফিজ, আসাদুজ্জামান মুরাদ, শামসুল আলম পিন্টু, মেহেদী হাসান দিপু, মহিবুজ্জামান কচি, মজিবর রহমান ফয়েজ, মুর্শিদুর রহমান লিটন, ওয়াহিদুর রহমান রানা, ইকবাল হোসেন খোকন, নিজাম উর রহমান লালু, ইউসুফ হারুন মজনু, সাজ্জাদ আহসান পরাগ, রবিউল হোসেন, সেলিম সরদার, হাসানুর রশিদ মিরাজ প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৯ , ২০২১
এমআরএম/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa