ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ মাঘ ১৪২৯, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৫ রজব ১৪৪৪

রাজনীতি

রিজভীর প্রশ্ন

মানুষকে আহাম্মক মনে করেন শেখ হাসিনা?

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৪৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২২, ২০২২
মানুষকে আহাম্মক মনে করেন শেখ হাসিনা?

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মানুষকে বেকুব মনে করেন কিনা প্রশ্ন করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। ঢাকার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত প্রাঙ্গণ থেকে দুই জঙ্গি পালানোর ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় তিনি এ প্রশ্ন করেন।

রিজভী বলেন, হাতকড়া পরা দুই জঙ্গি চলে গেল। পুলিশের কোনো নিরাপত্তা নেই। আপনি কি দেশের মানুষকে বেকুব মনে করেন। তাদেরকে আহাম্মক মনে করেন শেখ হাসিনা? এ সময় জজ কোর্টে জঙ্গি নাটক হয়েছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ৫৮তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন রিজভী।

অনুষ্ঠানে ‘জঙ্গি সৃষ্টি করছে বিএনপি’ তথ্যমন্ত্রী হাসান মাহমুদের এমন মন্তব্যের জবাব দেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব। তথ্যমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আপনি কি দেখেননি কীভাবে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরে ছাত্রদলের নেতা নয়নকে বন্দুক ঠেকিয়ে হত্যা করেছে? এটা তো পুলিশ করেছে। এটা কি জঙ্গির মতো আচরণ নয়? ইলিয়াস আলী গুম, এটা তো জঙ্গিদের কাজ। জাকির খুন, এটাও তো জঙ্গিদের কাজ। প্রকৃতপক্ষে জঙ্গিদের কাজ ও আওয়ামী সরকারের কাজের মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই। ওরা যে জঙ্গিদের মতো কাজ করে তার প্রমাণ ভুরি ভুরি। সাবেক আইজিপি শহীদুল হক তার বইয়ে লিখেছেন। আসলে তারাই জঙ্গির নাটক করে।

রিজভী বলেন, মানবসেবার মাধ্যমেও কিন্তু রাজনীতিবিদ গড়ে ওঠে। যেমনটি আমাদের নেতা তারেক রহমান মানুষের সেবার জন্য সুদূর পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও ছুটে গেছেন। তিনি মানুষের মাঝে ছাগল ও হাঁস-মুরগি বিতরণ করছেন। হুইল চেয়ার বিতরণ করেছেন। বিনামূল্যে সার ও বীজ বিতরণ করেছেন। যেমনটি করেছিলেন তার বাবা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান। আপনারা দেখেছেন মহামারী করোনাকালেও বিএনপির নেতাকর্মীরা গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে ছুটে গেছেন তারেক রহমানের নির্দেশনায়। সম্প্রতি ভয়াবহ বন্যার সময়ও বিএনপির নেতাকর্মীরা ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন। এটাই হচ্ছে দেশনায়ক তারেক রহমানের দর্শন। তারেক রহমানের রাজনীতি অম্লান। তার রাজনীতিকে কখনও মুছে দিতে পারবে না।

বিএনপির জ্যেষ্ঠ এ নেতা আরও বলেন, জাপানের রাষ্ট্রদূত বলেছেন নিশিরাতে ভোট হয়। আর পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, তিনি দেখা করে প্রতিবাদ জানিয়েছেন। আবার জাপানের রাষ্ট্রদূত বলেছেন, তার সাথে কারও কোনো দেখা হয়নি। মানুষ যখন পতনের দ্বারপ্রান্তে চলে আসে তখন প্রচণ্ড আবোল তাবোল বলে।

অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করেন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ’র (ড্যাব) সভাপতি অধ্যাপক ডা. হারুন আল রশিদ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন মহাসচিব ডা. মো. আব্দুস সালাম। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, মীর সরফত আলী সপু, ড্যাবের ডা. এরফানুল হক সিদ্দিকী।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ২২, ২০২২
টিএ/এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa