ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ বৈশাখ ১৪৩১, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১৩ শাওয়াল ১৪৪৫

সৌদি আরব

সৌদি শ্রমবাজার উম্মুক্তের খবরে আনন্দিত প্রবাসীরা

মোহাম্মদ আল-আমীন, সৌদি আরব করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯১৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০১৫
সৌদি শ্রমবাজার উম্মুক্তের খবরে আনন্দিত প্রবাসীরা

রিয়াদ: বহু দেন-দরবার আর কুটনৈতিক চিঠি চালাচালির পর বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শ্রমবাজার উম্মুক্ত হচ্ছে। সৌদি আরবের কেবিনেটে পাশ হওয়া এই সিদ্ধান্তের বিষয়ে আগামী সপ্তাহে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা আসতে পারে বলে জানিয়েছেন, সৌদি কর্তৃপক্ষের বিশ্বস্ত একটি সূত্র।



এ ব্যাপারে সৌদি আরবে বসবাসরত বিভিন্ন পেশায় নিয়োজিত কয়েকজন প্রবাসীর সঙ্গে কথা হয় বাংলানিউজের। দীর্ঘদিন পর উম্মুক্ত হতে যাওয়া শ্রমবাজার নিয়ে তারা ব্যক্ত করেছেন নিজেদের অনুভূতি।

কিং সৌদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি অনুষদের সহকারী অধ্যাপক কাজী মহসিন বলেন, এটা বাংলাদেশিদের জন্য অনেক বড় সুসংবাদ (গ্রেট নিউজ)। দীর্ঘদিনের এই প্রচেষ্টায় অবশেষে ভালো একটা কিছু ঘটতে যাচ্ছে। এজন্য তিনি আনন্দ প্রকাশ করেন এবং মন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান।

সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে কর্মরত চিকিৎসক বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি কাজী মাসুদুর রহমান বলেন, খবরটি অবশ্যই ভালো। বর্তমান সরকারের সফল কূটনীতির ফলে ২০০৮ সাল থেকে বন্ধ হওয়া সৌদি আরবের শ্রমবাজার আবার চালুর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

মাসুদুর রহমান বলেন, তিনি শ্রমিকদের সম্পূর্ন নিরাপত্তা এবং কাজের সুষ্ঠু পরিবেশ আশা করছেন। কোন প্রতারণা নয় সঠিক কাজের ভিসা নিয়ে যেন শ্রমিকরা আসতে পারেন সেজন্য প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সুদৃষ্টি প্রত্যাশা করেন তিনি।

আল ইয়ামামা হাসপাতালের গাইনি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক শিরিন সুলতানা বলেন, সৌদি আরবে বিশাল জনগোষ্ঠীর কর্মসংস্থানের মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করে বাংলাদেশ।   তবে দক্ষ শ্রমিক পাঠাতে উদ্যোগ নিতে হবে সরকারকেই।

উপযুক্ত প্রশিক্ষণ ও পেশাজীবীদের নিয়োগ বাড়ানোর প্রতি গুরুত্ব দেন শিরিন সুলতানা। তিনি বলেন, সম্মানজনক পদে শ্রমিক নিয়োগের প্রতি উৎসাহ যোগাতে হবে। পাশাপাশি গৃহপরিচারিকা হিসেবে নারী শ্রমিক পাঠানোর ব্যাপারে সরকারকে সতর্ক থাকতে হবে। কারণ এর আগে গৃহপরিচারিকার কাজ করতে সৌদি আরবে এসে অনেক নারী শ্রমিক চরম দুর্ভোগের সম্মুখীন হয়েছেন।

রিয়াদের একটি প্রতিষ্ঠিত ক্যাটারিং কোম্পানির প্রকল্প ব্যবস্থাপক ও কমিউনিটি নেতা মোহাম্মদ আব্দুস সালাম বলেন, তিনি খুবই  আনন্দিত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও রাষ্ট্রদূত মহ. শহীদুল ইসলামসহ যাদের চেষ্টায় এ কাজ সফল হয়েছে তাদের সবাইকে তিনি ধন্যবাদ জানান।  

সৌদি আরব প্রবাসী সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি মোহাম্মদ আবুল বশির বলেন, বাংলাদেশিদের জন্য এটা বিরাট পাওয়া। সৌদি আরবে সব সময়ই বাংলাদেশি শ্রমিকদের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে।

নতুন করে শ্রমবাজার উম্মুক্ত হলে কম খরচে বাংলাদেশি জনশক্তি সৌদি আরবে আসতে পারবে। পাশাপাশি বাংলাদেশের অর্থনীতির চাকা আরও গতিশীল হবে বলে মনে করেন আবুল বশির।

ব্যবসায়ী ও বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল বুরাইদা শাখার পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান জামাল উদ্দিন বলেন, এটা আমাদের অনেকদিনের প্রত্যাশা। আমি আনন্দিত ও গর্বিত। একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী, প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী এবং রাষ্ট্রদূতকে ধন্যবাদ জানাই।

জামাল উদ্দিন বলেন, গুটিকয়েক লোকের অপকর্মের কারণে আবারও যেন সৌদি আরবে বাংলাদেশের শ্রমবাজার বন্ধ না হয় এজন্য দূতাবাস এবং সরকারকে পদক্ষেপ নিতে হবে।

সৌদি ল্যান্ড ফোর্স ম্যানেজমেন্ট অফিসের তথ্য-প্রযুক্তি বিভাগে কর্মরত রুপু দেওয়ান বলেন, সৌদি শ্রম বাজার উম্মুক্ত হতে যাচ্ছে শুনে খুবই ভাল লাগছে। আশা করছি খুব দ্রুত সৌদি কর্তৃপক্ষের এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে।  

২০০৮ সাল থেকে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় শ্রমবাজার সৌদি আরবে বাংলাদেশিদের কাজের ভিসা, পারিবারিক ভিসা, ইকামা ট্রান্সফার (স্পন্সর ঠিক রেখে কর্মস্থল পরিবর্তন), পেশা পরিবর্তনসহ সব ধরনের সুবিধা বন্ধ করে দেয়, সৌদি সরকার।

পরবর্তীতে এই শ্রম বাজার সচল করতে ২০০৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সৌদি আরব সফর করে বাদশা আব্দুল্লাহ বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সুযোগ সুবিধা পুনর্বহালের আশ্বাস দেন সৌদি বাদশা।

প্রধানমন্ত্রীর সফরের পর ২০১০ সালের ডিসেম্বর মাসে সৌদি আরবে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয় মহ. শহীদুল ইসলামকে। শহীদুল ইসলাম রাষ্ট্রদূত হিসেবে যোগদানের পর সৌদি সরকারের উচ্চ পর্যায়ে বৈঠক করার পাশাপাশি কমিউনিটির বিভিন্ন পর্যায়ের বাংলাদেশিদের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেন। পাশাপাশি অপরাধ প্রবণতা কমিয়ে আনতে বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ নেন।

এরপর আওয়ামী লীগ সরকারের প্রথম মেয়াদে তৎকালীন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডাক্তার দীপু মনি, দ্বিতীয় মেয়াদে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন বেশ কয়েকবার একই ইস্যু নিয়ে সৌদি সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

দূতাবাসের নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র বাংলানিউজকে জানায়, এত কুটনৈতিক তৎপরতার পরও ২০১৪ সালে সৌদি বাদশা আব্দুল্লাহ বিন আব্দুল আজিজ আল সৌদের বিশেষ ক্ষমার তালিকা থেকে বাদ পড়েছিলো বাংলাদেশ। খবর পেয়ে ওই রাতেই সৌদি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে দফায় দফায় আলোচনা শেষে ভোরে বাংলাদেশের নাম সংযুক্ত করতে সফল হন রাষ্ট্রদূত শহীদুল ইসলাম।

ওই সূত্র আরো জানায়, মহ. শহীদুল ইসলাম সৌদি আরবে বাংলাদেশের ইমেজ বাড়াতে সৌদিতে অবস্থানরত  বাংলাদেশিদের আভ্যন্তরীণ হানাহানি কমিয়ে আনার চেষ্টা করেন। এক পর্যায়ে ‘গেস্ট কান্ট্রি’র মধ্যে প্রবাসী বাংলাদেশিদের অপরাধের হার সর্বনিম্ন পর্যায়ে চলে আসে।

সম্প্রতি সৌদি শ্রমমন্ত্রী ডক্টর আদেল ফাকিহ, ডেপুটি ক্রাউন প্রিন্স মুকরিন বিন আব্দুল আজিজের সঙ্গে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন বৈঠক করেন।

ওই বৈঠকে উপস্থিত একজন কর্মকর্তা বাংলানিউজকে জানান, সৌদি আরবে বাংলাদেশিদের অপরাধের হার কমে যাওয়া এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের কর্মকাণ্ড হবে না এমন প্রতিশ্রুতির ভিত্তিতেই বাংলাদেশিদের ভিসাসহ যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সৌদি কর্তৃপক্ষ।

সৌদি সরকারে প্রস্তাবিত ৬টি মেগাসিটি এবং বাংলাদেশিদের পরিচালনাধীন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে প্রায় চার লাখ বাংলাদেশি শ্রমিকের চাহিদা রয়েছে বলেও জানান ওই কর্মকর্তা।

গত ১৮ জানুয়ারি সাত সদস্যের প্রতিনিধি দল নিয়ে সৌদি আরবে পৌঁছেছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন।
১৯ জানুয়ারি বিকেলে সৌদি শ্রমমন্ত্রী ডক্টর আদেল ফাকিহর সঙ্গে বৈঠক করেন। একই দিন রাতে রিয়াদ বাংলাদেশ কমিউনিটির সভায় যোগ দেন।

২০ জানুয়ারি প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী সাক্ষাৎ করেন সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মুকরিন বিন আব্দুল আজিজের সঙ্গে। একই দিন মন্ত্রী রওনা দেন দেশটির তেল সমৃদ্ধ নগরী দাম্মামের উদ্দেশ্যে। সেখানে রাতে বাংলাদেশিদের দেওয়া নাগরিক সংবর্ধনায় যোগ দেন। শুক্রবার (২৩ জানুয়ারি ) মন্ত্রীর  দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৯১৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০১৫

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

সৌদি আরব এর সর্বশেষ