ঢাকা, শুক্রবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৪ মে ২০২৪, ১৫ জিলকদ ১৪৪৫

সৌদি আরব

‘আর কী প্রমাণ দিলে আমি বাংলাদেশি হবো’

মোহাম্মদ আল-আমীন, সৌদি আরব করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৪৪ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০১৫
‘আর কী প্রমাণ দিলে আমি বাংলাদেশি হবো’

রিয়াদ: রিয়াদ থেকে প্রায় ১০০ কিলোমিটার দ‍ূরে আল খারজ শহরের একটি কৃষি খামারে (মাজরাত) কাজ করেন জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার জহিরুল ইসলাম।

কিন্তু কিছুদিন আগে স্পন্সর (কফিল) কার্যালয় থেকে তার পাসপোর্ট হারিয়ে যায়।

বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও তা আর পাওয়া যায়নি।

এরমধ্যে কর্মস্থল থেকে ছুটি না পাওয়ার কারণে এতোদিন নতুন পাসপোর্টের জন্য আবেদনও করেননি জহিরুল।

সম্প্রতি মায়ের অসুস্থ্যতার খবর শুনেছেন। নাড়ির টানে মায়ের কোলে ফিরতে চান। কিন্তু দেশে ফেরার জন্য হারানো পাসপোর্টের বিপরীতে সব ধরনের কাগজপত্র জমা দিয়েও মিলছে না পাসপোর্ট।

‍জানালেন, এক হাজার রিয়াল বেতনে চাকরি করছেন তিনি। নতুন পাসপোর্ট নিতে এ পর্যন্ত তিনদিন এসেছেন দূতাবাসে। প্রতিদিন গাড়ি ভাড়াসহ ‍খরচ হয় ১৫০/২০০রিয়াল। তারপরও তিনি পাসপোর্ট পাবেন কিনা-নিশ্চিত করে বলতে পারছেনা কেউই।

শুধু প্রবাসী শ্রমিক জহিরুলই নন, তার মতো আরও অনেক বাংলাদেশির অবস্থা এমনই। দ‍ূতাবাসের দেওয়া শর্ত প‍ূরণ করে হারিয়ে যাওয়া পাসপোর্টের পরিবর্তে নতুন আবেদন করেও তা পাচ্ছেন না।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাসের দূতাবাসের অ্যাসিসট্যান্ট সাইফার কর্মকর্তা ফজলুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, হারানো পাসপোর্টের কোন তথ্য নাই।

পুরাতন পাসপোর্ট দেওয়া হচ্ছে কিনা? জানতে চাইলে প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে তিনি বলেন, কেস বুঝে দেওয়া হচ্ছে।

‘মনে করেন, আপনি হোম মিনিস্টার অথবা বড় কোন নেতা দিয়ে সুপারিশ করালে সে ক্ষেত্রে দিনে দিনে আমরা পাসপোর্ট ডেলিভারি দিয়ে দিই,’- বলেন ফজলুর রহমান।
বাংলাদেশি অথচ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কিংবা বড় নেতার সঙ্গে যোগাযোগ নেই এমন প্রবাসীরা কী পাসপোর্ট পাবেন না? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,‘পাবে তবে কতোদিন পরে পাবে সেটা বলা যাবেনা। ’

দূতাবাসের কাউন্সিলর মো. খাইরুল আলম বাংলানিউজকে বলেন,‘কিছুদিন আগেও আমরা জরুরি প্রয়োজনে আবেদনকারীদের কিছু পাসপোর্ট দিয়েছি। কিন্তু গত এক সপ্তাহ ধরে স্যারের (রাষ্ট্রদূত) নির্দেশে আমরা তা দিচ্ছি না। ’

সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, কোন কারণে প্রবাসীদের পাসপোর্ট হারানো বা নষ্ট হয়ে গেলে যথাযথ কাগজপত্র দিয়ে আবেদন করলে তা প্রয়োজনীয় তদন্তকাজ শেষে ২৪ ঘণ্টা থেকে ২ মাসের মধ্যে পাসপোর্ট দেওয়ার বিধান রয়েছে। তবে এভাবে আবেদন করলেও রোহিঙ্গা অজুহাতে পাসপোর্ট দিচ্ছে না দূতাবাস।

এদিকে হারানো পাসপোর্ট নিয়ে অভিযোগের কমতি নেই ভোক্তভোগী প্রবাসীদের।

তারা বলছেন, প্রকৃত বাংলাদেশি হয়ে এবং দূতাবাসের চাহিদা অনুযায়ী সব কাগজপত্র দেওয়া সত্ত্বেও পাসপোর্ট পাচ্ছেন না তারা।

জামাল উদ্দিন নামে এক প্রবাসী বাংলানিউজকে বলেন, ‘দূতাবাসের একজন কর্মকর্তা আমার এলাকার লোক। এরপরও কোন অজ্ঞাত কারণে আমি আমার হারিয়ে যাওয়া পাসপোর্টের বিপরীতে নতুন পাসপোর্ট পাচ্ছি না, জানি না। ’

‘সব কাগজপত্র জমা দেওয়ার পাশাপাশি দূতাবাসের ওই কর্মকর্তার পরিচয় দিলেও আমার পাসপোর্ট দেওয়া হচ্ছে না। আরও কী প্রমাণ দিলে আমি বাংলাদেশি হবো?,’ বলেন তিনি।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গত ফেব্রুয়ারিতে আবেদন করেও এখনও পর্যন্ত অনেকে পাসপোর্ট নিতে পারছেন না। ‍

এ বিষয়ে জানতে সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসিহের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।

বাংলাদেশ সময়: ১০৪৫ ঘণ্টা, জুলাই ১৩, ২০১৫
এমএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

সৌদি আরব এর সর্বশেষ