ঢাকা, রবিবার, ৭ বৈশাখ ১৪৩১, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১১ শাওয়াল ১৪৪৫

খেলা

ঢাকায় প্রথমবার খোলা আকাশের নিচে ‘মিক্সড মার্শাল আর্ট’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট (স্পোর্টস) | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪
ঢাকায় প্রথমবার খোলা আকাশের নিচে ‘মিক্সড মার্শাল আর্ট’

বিশ্বের অনেক দেশে বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রে এমএমএ (মিক্সড মার্শাল আর্ট) বেশ জনপ্রিয় খেলা। তবে বাংলাদেশে এই খেলাটি তেমন পরিচিত নয়।

ইনডোরে কয়েকবার এই খেলার প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হলেও তেমন সাড়া মেলেনি। তাই দেশের ক্রীড়া অঙ্গনে পেশাদার বক্সিংয়ের প্রচার ও বিকাশের লক্ষ্যে রাজধানীতে অনুষ্ঠিত হলো ‘ঢাকা ফাইট নাইট ২০২৪’।  

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল ধানমন্ডির রবীন্দ্র সরোবরে ‘অল বাংলাদেশ ন্যাশনাল এমএমএ অ্যাসোসিয়েশন’ এবং ‘রয়্যাল বেঙ্গল ফাইটিং চ্যাম্পিয়নশিপ’ (আরবিএফসি) এর যৌথ উদ্যোগে এবং বার্জার পেইন্টসের পৃষ্ঠপোষকতায় এই ইভেন্ট আয়োজন করা হয়। এবারই প্রথম ‘ওপেন এয়ারে’ এ ধরনের প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হলো। যা উপভোগ করতে উপস্থিত হয়েছিল হাজারো দর্শক। যাদের জন্য ছিল লাইভ মিউজিক ও দর্শকদের সরাসরি অংশগ্রহণে বিভিন্ন আয়োজন। ছিল অনলাইনে লাইভ দেখার সুযোগও।

ইভেন্টে তিনটি পেশাদার ম্যাচের আয়োজন করার কথা ছিল। মূল আকর্ষণ ছিলেন দুই পেশাদার এমএমএ (মিক্সড মার্শাল আর্ট) ফাইটার মঞ্জুরুল আলম (স্বর্ণজয়ী ফাইটার) এবং মুস্তাফিজুর রহমান। দুজনেই তাদের শক্তিশালী স্ট্রাইকিং এবং লাগামহীন আগ্রাসনের জন্য পরিচিত। শিরোপা জেতার লড়াইয়ে তাদের মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিল। তাদের লড়াই দেখার জন্য উন্মুখ দর্শকদের অবশ্য হতাশ হতে হয়েছে। কারণ পুরো আয়োজনে ছিল স্পষ্ট অব্যবস্থাপনার ছাপ। পেশাদার বক্সারদের পাশাপাশি খেলার প্রচারের জন্য সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সারদেরও খেলার আয়োজন ছিল। তবে পেশাদারদের খেলার চেয়ে অ্যামেচারদের ম্যাচই বেশি প্রাধান্য পেয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।  এমনকি ফলাফল নিয়েও চলে বাকবিতণ্ডা।  

টাইটেল ফাইটে নামতে না পেরে হতাশ মঞ্জুরুল আলম ক্ষোভ ঝেড়েছেন আয়োজকদের ওপর। পুরো প্রস্তুতি নিয়ে এলেও আসল লড়াইয়ে নামতে পারেননি তিনি। দর্শকরাও এ নিয়ে আয়োজকদের একহাত নিয়েছেন। অভিযোগ, যাদের লড়াই দেখার জন্য এত মানুষ জড়ো হয়েছেন, তাদের শেষ পর্যন্ত হতাশ হয়েই ফিরতে হয়েছে। কেউ কেউ ছয় ঘণ্টাও অপেক্ষায় ছিলেন দুই আন্তর্জাতিক ফাইটারের লড়াই দেখার জন্য। তবে এক দর্শকের অভিমত, এমএমএ-কে যদি সঠিকভাবে প্রচারের আলোয় আনা যায় এবং সঠিক ব্যবস্থাপনায় আয়োজন করা যায়, তাহলে বাংলাদেশে এই খেলাটির ভবিষ্যৎ বেশ উজ্জ্বল।

অভিযোগের জবাবে ‘অল বাংলাদেশ মিক্সড মার্শাল আর্ট অ্যাসোসিয়েশন’ এর সাধারণ সম্পাদক হাবিবুল্লাহ পারভেজ বলেন, ‘রবীন্দ্র সরোবর ভাড়া নেওয়া হয়েছিল রাত ১০টা পর্যন্ত। কিন্তু ৯টার দিকেই কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে বিশ মিনিটের মধ্যে জায়গাটা খালি করে দিতে বলা হয়। কিন্তু এই সময়ের মধ্যে পেশাদার ম্যাচ আয়োজন করা সম্ভব হয়নি। এটাই মূল ইস্যু। তবে অন্য ম্যাচগুলো ঠিক সময়েই হয়েছে। মঞ্জুরের ম্যাচটা দেখতেই অনেক দর্শক এসেছিলেন। কিন্তু তিনি যখন আসেন, তখন অন্য ম্যাচ চলছিল। আমরা ৯ তারিখে (ফেব্রুয়ারি) আবার ম্যাচগুলো কন্টিনিউ করার চেষ্টা করছি। স্পন্সররা এগিয়ে এলে এটা করতে পারবো আশা রাখি। ’

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪
এমএইচএম/এআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।