ঢাকা, রবিবার, ৮ কার্তিক ১৪২৮, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

তারার ফুল

পূর্ণিমার সঙ্গে কিছুক্ষণ

‘বিজ্ঞাপনের কারণে পুরোটা দেখতে পারিনি’

জান্নাতুল মাওয়া, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৪৫ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০১৬
‘বিজ্ঞাপনের কারণে পুরোটা দেখতে পারিনি’ পূর্ণিমা, ছবি-নূর- বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী পূর্ণিমা আবারও অভিনয়ে নিয়মিত হয়েছেন। ঈদে বোকাবাক্সে ছিলো তার সরব উপস্থিতি।

নাটক, টেলিছবি, টকশো ও ম্যাগাজিন অনুষ্ঠানগুলোতে পূর্ণিমাকে পেয়ে খুশি তার ভক্তরা। বাংলানিউজের সঙ্গে আলাপে জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী বলেছেন আরও অনেক কথা। পড়ুন তার সাক্ষাৎকার-

বাংলানিউজ: কেমন কাটলো আপনার ঈদ?
পূর্ণিমা:
পরিবারের সঙ্গে ঈদ কাটিয়েছি। ঈদ মানেই আনন্দ। পরিবার-পরিজনের পাশে না থাকলে ঈদের আনন্দটা বোঝা যায় না। আমার জন্মভূমি চট্রগ্রামে গিয়ে ঈদ করেছি।

বাংলানিউজ: কয়েকটি নাটকে অভিনয় করেছিলেন। নাটকগুলো দেখেছেন? সাড়া কেমন?
পূর্ণিমা:
এবারের ঈদে ছয়টি নাটকে কাজ করেছি। এর মধ্যে পাঁচটি প্রচার  হয়েছে। পারিবারিক ব্যস্ততার কারণে সব নাটক দেখতে পারিনি। তবে দুটি নাটক বেশ মনোযোগ দিয়ে দেখেছি। এগুলো হলো- আবীর খানের ‘ম্যানিকুইন’ ও ইমরাউল রাফাতের ‘ভিমরতি বিড়ম্বনা’। দর্শক হিসেবে দেখতে ভালেই লেগেছে। ধারাবাহিক নাটক ‘লাভ অ্যান্ড কোং’ দেখতে বসেছিলাম। সত্যি বলতে, অতিরিক্ত বিজ্ঞাপনের কারণে পুরোটা দেখতে পারিনি।  

বাংলানিউজ: কোন নাটকের চরিত্রটি আলাদা মনে হয়েছে?
পূর্ণিমা:
প্রতিটি নাটকের চরিত্রই আলাদা। ‘ম্যানিকুইন’ নাটকের চরিত্রটি আমার বেশি ভালো লেগেছে। ম্যানিকুইনের চরিত্রে আমি এবারই প্রথম অভিনয় করলাম। একটি শাড়ির দোকানে সাজানো পুতুলের ভঙ্গিমায় অভিনয় করেছি। দোকানের সেলসম্যান সজল পুতুলটির প্রেমে পড়ে যায়। একসময় পুতুলটি তার কল্পনা থেকে বাস্তবরূপে হাজির হয়, তার সঙ্গে কথা বলে। সজল বুঝতে পারে এটি কেবলিই একটি পুতুল। তখন সে পাগল হয়ে যায়। ফেরদৌসের লেখা এই গল্পটিতে কাজ করে বেশ ভালো লেগেছে।

বাংলানিউজ: ঈদে বিভিন্ন টিভি অনুষ্ঠানেও তো উপস্থিত ছিলেন…
পূর্ণিমা:
বিটিভির ‘ইত্যাদি’তে ফেরদৌসের সঙ্গে নেচেছি। সঙ্গে অপি করিম আর নোবেল ছিলেন। এছাড়া ঈদের বিশেষ ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘সেলিব্রিটি লাউঞ্জ’-এ তৌকীর আহমেদ ও বিপাশা হায়াতের মুখোমুখি হয়েছি। সঙ্গে আরও ছিলেন তারিন ও ইমন।  ‘লাক্স স্টাইল চেক’ অনুষ্ঠানেও অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলাম। সব মিলিয়ে ঈদটা ভালোই কেটেছে।  

বাংলানিউজ: চলচ্চিত্রে ফেরার সম্ভাবনা আছে?
পূর্ণিমা:
চলচ্চিত্রে অভিনয় করবো না- এমন কথা কখনও বলিনি। তেমন ভালো গল্প পাচ্ছিনা, তাই কাজ করছি না। তবে শাহরিয়ার নাজিম জয়ের নির্দেশনায় ‘বন্ধ দুয়ার’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের কথা থাকলেও এখনো শুটিংয়ের দিন-তারিখ ঠিক হয়নি। আমি অবশ্যই চুড়ান্তভাবে জানাবো কবে নাগাদ চলচ্চিত্রে নিয়মিত হবো। আমার মতে, ছবির কাজ করতে হয় বেশ সময় ‍নিয়ে। এতোটা সময় আমি দিতে পারছি না, কারণ আমার মেয়ে আর্শিয়া এখনও বেশ ছোট।  

বাংলানিউজ: পারিবারিক ব্যস্ততা কেমন উপভোগ করছেন?
পূর্ণিমা:
পরিবার নিয়ে বরাবরের মতো এখনও ব্যস্ত আছি, ভালো আছি। আমার মেয়েকে নিয়েই সময় কেটে যাচ্ছে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪৩ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০১৬
জেএমএস/এসও 
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa