ঢাকা, সোমবার, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ১৭ মে ২০২১, ০৪ শাওয়াল ১৪৪২

কৃষি

১০০ ডিজিটাল কৃষি গ্রাম গড়ে তুলতে চায় সরকার: পলক

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৩৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৩, ২০২১
১০০ ডিজিটাল কৃষি গ্রাম গড়ে তুলতে চায় সরকার: পলক ভার্চ্যুয়ালি বক্তব্য রাখছেন জুনাইদ আহমেদ পলক। ছবি: বাংলানিউজ

নাটোর: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বিশ্বের মধ্যে ধান উৎপাদনে বাংলাদেশ চতুর্থ স্থানে আর পাট উৎপাদনে দ্বিতীয় স্থানসহ কৃষিতে বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে রয়েছে। এ জন্য বর্তমান সরকার কৃষি ও কৃষকদের সুবিধার্থে ৩০০টি অ্যাগ্রিকালচার ইনফরমেশন সেন্টার চালু করেছে।

তিনি বলেন, উন্নত কৃষি প্রযুক্তির মাধ্যমে কৃষিকে আধুনিকায়ন করতে দেশে ১০০টি ডিজিটাল কৃষি গ্রাম গড়ে তোলার জন্য সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে।

মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) সকালে উপজেলা চলনবিল হলরুমে খরিপ- ২০২০-২১ অর্থবছরে কৃষি প্রণোদনার আওতায় ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মধ্যে বিনামূল্যে রোপা আউশ ধানের বীজ ও সার বিতরণ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভার্চ্যুয়ালি অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

নাটোরের সিংড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এমএম সামিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন— বাংলাদেশে দু’টি বড় সম্পদ হচ্ছে সোনার মাটি, আর সোনার মানুষ। কৃষকরা সোনার ফসল উৎপাদন করছেন বলেই দেশে আজ খাদ্য ঘাটতি নেই। কৃষি ও কৃষকের কল্যাণে বর্তমান সরকার কাজ করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুই ফসলি জমিকে তিন ফসলি জমি করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। সে অনুযায়ী মাঠ প্রশাসনকে কাজ করতে হবে। কোনো জমি যেন অনাবাদী না থাকে, শেখ হাসিনা সেই নির্দেশ দিয়েছেন।  

তিনি আরও বলেন, এক সময় সারের জন্য কৃষকদের অনেক কষ্ট করতে হয়েছে। এখন  দেশে উৎপাদনমুখী কৃষি ব্যবস্থা গড়ে উঠেছে। দেশের খাদ্য ঘাটতি মোকাবিলায় চলন বিলের কৃষকরা ভূমিকা রাখছেন। সিংড়ায় শতাধিক কিলোমিটার খাল খনন হয়েছে। বিপণনসহ কৃষি উন্নয়নে ৫০ কিলোমিটার সাবমার্সিবল (ডুবো সড়ক) সড়ক নির্মাণে উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।  

করোনা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে জুনাইদ আহম্মেদ পলক বলেন, আমরা এখন চরম দুর্যোগের মুখোমুখি অবস্থান করছি, অনেক আপনজন আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন। এর মধ্য দিয়ে সরকার, সরকারি কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধিরা, স্বাস্থ্যকর্মীরা করোনা মোকাবিলায় কাজ করে যাচ্ছেন। বৈশ্বিক মহামারি মোকাবিলায় আমরা সম্মিলিতভাবে কাজ করছি। সম্মিলিতভাবেই এই কাজ অব্যাহত রাখতে হবে। সবাইকে সচেতনতার পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। এ সময় করোনা মোকাবিলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে সবার প্রতি আহ্বান জানান প্রতিমন্ত্রী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান কামরুল হাসান কামরান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান শামিমা হক রোজি, ইউএনও মো. সেলিম রেজা, উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা রুহুল আমিন, ডাহিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান এম আবুল কালাম, কৃষক গোলাম মোস্তফাসহ গণমাধ্যম কর্মীরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩০ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৩, ২০২১
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa