ঢাকা, সোমবার, ৯ বৈশাখ ১৪৩১, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১২ শাওয়াল ১৪৪৫

ব্যাংকিং

ঋণের ঝুঁকি মোকাবিলার নীতিমালা আরেক বছর শিথিল

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩, ২০২৪
ঋণের ঝুঁকি মোকাবিলার নীতিমালা আরেক বছর শিথিল

 

ঢাকা: কোনো গ্রাহকের ঋণ নেওয়ার ক্ষেত্রে প্রাক যাচাইয়ে মান ৬০ শতাংশ হলে তিনি নতুন করে আর ঋণ পাবেন না। এ নীতিমালা ২০২৪ সাল থেকে কার্যকর হওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু বৈশ্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে এ নীতিমালা কার্যকরে আরও এক বছর সময় লাগবে। অর্থাৎ মান ৪০ শতাংশ হলেই গ্রাহক ঋণ পাবেন। এ সুযোগ চলতি ২০২৪ সাল ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।

বুধবার (৩ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে এ সম্পর্কিত একটি সার্কুলার জারি করে বাণিজ্যিক ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের পাঠানো হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়, দেশব্যাপী ব্যবসায়ী কার্যক্রম গতিশীল রাখতে ব্যাংকের ঋণ গ্রহীতাদের বিদ্যমান আর্থিক অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে ব্যাংকিং খাত হতে প্রয়োজনীয় ঋণ সুবিধা প্রদানসহ বিদ্যমান ঋণ নবায়ন অব্যাহত রাখতে বিআরপিডি সার্কুলার লেটার ০৭/২০২২ এর নির্দেশনা বলবতের সময়সীমা ৩১ ডিসেম্বর ২০২৪ পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হলো। ২০২৫ সালের ১ জানুয়ারি হতে বিআরপিডির ২০১৯ সালের ২০ জুনের ১২ নম্বর সার্কুলার পুনর্বহাল হবে।  

ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে গ্রাহকদের বছর শেষে আর্থিক বিবরণী তৈরি করে তা ব্যাংকে দিতে হয়। এতে প্রতিষ্ঠানগুলোকে চারটি ভাগে ভাগ করা হয়। এর মধ্যে আগের নিয়মে ৭৫ শতাংশের বেশি পেলে সেটিকে অতি উত্তম; ৬৫ শতাংশের বেশি থেকে ৭৫ শতাংশের কম পেলে তাকে ভালো; ৫০ শতাংশের থেকে ৬৫ শতাংশের কম পেলে প্রান্তিক এবং ৫৫ শতাংশের কম পেলে অগ্রহণযোগ্য হিসাবে বিবেচিত হবেন। তবে ৪০ শতাংশের কম পেলে তিনি পাওয়ার অযোগ্য বলে বিবেচিত হয়।  

২০২৫ সা‌লের ১ জানুয়ারি থেকে ৮০ শতাংশের বেশি পেলে অতি উত্তম, ৭০ শতাংশের বেশি থেকে ৮০ শতাংশের কম পেলে ভালো, ৬০ শতাংশের বেশি থেকে ৭০ শতাংশের কম পেলে প্রান্তিক এবং ৬০ শতাংশের কম পেলে অগ্রহণযোগ্য হিসাবে বিবেচিত হবেন। তবে ৫০ শতাংশের কম পেলে তিনি আর নতুন ঋণ পাবেন না।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৩, ২০২৪
জেডএ/এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।