ঢাকা, বুধবার, ২০ আশ্বিন ১৪২৯, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

বইমেলা

এখনো জনপ্রিয়তায় রবীন্দ্রনাথ-নজরুল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৪৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২২
এখনো জনপ্রিয়তায় রবীন্দ্রনাথ-নজরুল ছবি: শাকিল আহমেদ

বইমেলা থেকে: রবীন্দ্রনাথ বাঙালিকে প্রায় সব দিয়েছেন। ছড়িয়ে আছেন আমাদের নিঃশ্বাসে-প্রশ্বাসে।

আর তার সঙ্গে কাজী নজরুল ইসলামও আমাদের প্রাণ। তাইতো এতো বছর পরও তারা সমকালীন ও প্রাসঙ্গিক।

বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) অমর একুশে গ্রন্থমেলার বিভিন্ন প্যাভিলিয়ন ও স্টল ঘুরে দেখা যায়, সেখানে শোভা পাচ্ছে কাজী নজরুল ইসলাম এবং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের রচনাবলি। শুধু তাই নয়, তাদের নিয়ে বিভিন্নজনের বিভিন্ন আঙ্গিকে লেখা বইও শোভা পাচ্ছে বেশ।

সেগুলো একটু হাতে নেড়ে দেখলেই বোঝা যায়, এখনো রবীন্দ্রনাথ ও নজরুল নানাভাবে আবিষ্কৃত হওয়ার অপেক্ষায় আছেন, তাদের ঘিরে এখনো অপেক্ষা করছে নিত্যনতুন বিশ্লেষণ।

এবারের বইমেলায় কাজী নজরুল ইসলামের বিভিন্ন কাব্যগ্রন্থ, সংগীত সংগ্রহ, শিশু-কিশোর সাহিত্য, জাগরণী গান, ছোটগল্প, উপন্যাস, প্রবন্ধ, পত্রাবলি, নাট্যসমগ্র, নজরুল সংগীত স্বরলিপিসহ বইয়ের বিশাল এক সম্ভার রয়েছে। এছাড়া নজরুলকে নিয়ে বিভিন্ন লেখকের পর্যালোচনা, প্রবন্ধ, চর্চার ইতিবৃত্ত, নজরুল ভাবনাও ঠাঁই পেয়েছে।

বিভিন্ন স্টলের বিক্রয় কর্মীরা জানান, পাঠকরা এখনো অন্যান্য বইয়ের তুলনায় রবীন্দ্রনাথ, কাজী নজরুল ইসলামের বইয়ের প্রতি আগ্রহ দেখাচ্ছে। বিক্রিও হচ্ছে বেশ ভালো।

বাংলা একাডেমির বইয়ের তালিকাটি নিয়ে নাড়াচাড়া করলেও দেখা যাবে, আলাদা বিশেষ অংশ রয়েছে নজরুল এবং রবীন্দ্রবিষয়ক বই নিয়ে। তবে সেখানে রবীন্দ্রনাথের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। রবীন্দ্রকাব্যে লোক উপাদান, সাধারণ মানুষ, গীতিনৃত্য, রবীন্দ্র নাট্যসঙ্গীত, চিঠি, বিজ্ঞানচেতনা, গ্রামোন্নয়নসহ এমন অজস্র বিষয় সেখানে খুঁজে পাবেন পাঠকরা।

 প্রকাশকরা বলছেন, যারা সত্যিকারের পাঠক, তারা ‘ক্লাসিক্যাল’ সাহিত্য পাঠ করেন। সেদিক থেকে রবীন্দ্রনাথ ও নজরুল অনেক বেশি প্রাসঙ্গিক। আর সকল শ্রেণির মানুষেরই এগুলো পাঠের আগ্রহ রয়েছে।

এদিকে বৃহস্পতিবার মেলায় নতুন বই এসেছে ১০৬ টি। এর মধ্যে গল্প ১৪ টি, উপন্যাস ২৬ টি, প্রবন্ধ ৫ টি, কবিতা ২৭ টি, গবেষণা ৪ টি, শিশুসাহিত্য ১টি, জীবনী ৪টি, রচনাবলি ১টি, মুক্তিযুদ্ধ ৩টি, বিজ্ঞান ৩টি, ইতিহাস ২টি, রাজনীতি ১টি, বঙ্গবন্ধু ১টি, ধর্মীয় ২টি, অনুবাদ ৩টি, অভিধান ১টি, সায়েন্স ফিকশন ১টি এবং অন্যান্য ৭টি।  

অন্বেষা প্রকাশন এনেছে জিল্লুর রহমানের উপন্যাস ‘ঘোর’, কথাপ্রকাশ এনেছে আনিনুল হকের কিশোর গল্প ‘ছোটদের বকুলমালা ভ‚ত এবং হাসির গল্প’ ও সালেক খোকনের ক্ষুদ্রনৃগোষ্ঠী বিষয়ক বই ‘সমতলের বারো জাতি’।  
চিরদিন প্রকাশনী এনেছে এস এম জাকির হোসেনের মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক বই  ‘একাত্তরে বিদেশি সুহƒদ-দুঃসময়ের সারথি’, বাংলা একাডেমি এনেছে মুস্তাফা মজিদের ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী বিষয়ক বই ‘ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী পরিচয়’।  
সময় প্রকাশনী এনেছে শওকত ওসমানের প্রবন্ধ ‘সমুদ্র নদী সম্পর্কিত’, অন্যপ্রকাশ এনেছে সাদাত হোসাইনের উপন্যাস ‘প্রিয়তম অসুখ সে’, বিদ্যাপ্রকাশ এনেছে জাকিয়া খানের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বই ‘যুদ্ধদিনের স্মৃতি’, পুথিনিলয় এনেছে যতীন সরকারের প্রবন্ধ ‘প্রাকৃতজনের জীবন দর্শন’, আবিষ্কার এনেছে জাহিদ নেওয়াজ খানের এক পরাবাস্তব ভ‚খণ্ডের গল্প ‘সূত্রধর’, আফসার ব্রাদার্স এনেছে সুনীতি ভ‚ষণ কানুনগোর ইতিহাস বিষয়ক বই ‘বাংলার ইতিহাস’।

শুক্রবার ২৫ ফেব্রুয়ারি বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে বিদ্রোহী কবিতার শতবর্ষ এবং বিদ্রোহী কবিতা ও ৭ই মার্চের ভাষণ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন যথাক্রমে সৌমিত্র শেখর এবং রাশিদ আসকারী। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন অনিরুদ্ধ কাহালী, শিহাব শাহরিয়ার এবং তপন বাগচী। সভাপতিত্ব করবেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নুরুল হুদা। সন্ধ্যায় রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।  


বাংলাদেশ সময়: ২০৪০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২২
এইচএমএস/এসআইএস

 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa