ঢাকা, রবিবার, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩

ক্রিকেট

ভারতকে দ্বিতীয়বার হারাল নিউজিল্যান্ড

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৪৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০১৪
ভারতকে দ্বিতীয়বার হারাল নিউজিল্যান্ড

হ্যামিলটন: নিউজিল্যান্ডের ‍কাছে আরেকবার ৩০০ রানের কাছাকাছি লক্ষ্য পেয়েছিল ভারত। কিন্তু এবার সেটা করতে হতো ৪২ ওভারে।

বিরাট কোহলি ও মহেন্দ্র সিং ধোনি ফিফটি পেলেও ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে টানা দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচ হারল তারা। দুই ম্যাচ শেষে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ২-০ ব্যবধানে অনেকটাই নিশ্চিন্তে এগিয়ে থাকল কিউইরা।

নিউজিল্যান্ড: ২৭১/৭ (৪২/৪২ ওভার)
ভারত: ২৭৭/৯ (৪১.৩/৪১.৩ ওভার, লক্ষ্য ২৯৩)
ফল: নিউজিল্যান্ড জয়ী ১৫ রানে  

বৃষ্টি বিঘ্নিত নিউজিল্যান্ডের ইনিংস একবার থামে ৩৩ ওভার দুই বলে, স্বাগতিকদের স্কোরবোর্ডে তখন দুই উইকেটের বিনিময়ে ১৬৭ রান। এরপর রস টেলর ও কোরি এন্ডারসনের ব্যক্তিগত পারফরমেন্সের সুবাদে নির্ধারিত ৪২ ওভারে ২৭১ রান করে কিউইরা। শেষ তিন ওভার দুই বলে ভারত ২৩ রান দিয়ে চার উইকেট নিয়ে তাদের লাগাম টেনে ধরেছিল।

হ্যামিলটনে টসে জিতে নিউজিল্যান্ডকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় ভারত। ওপেনার জেসি রাইডার শুরু করেছিলেন দারুণ, চারটি বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ভালো সূচনা ইঙ্গিত দেন তিনি। কিন্তু ব্যক্তিগত ২০ রানে তাকে থামান মোহাম্মদ সামি।

এরপর মার্টিন গাপ্টিল ও কেন উইলিয়ামসনের ৮৯ রানের জুটিতে বড় সংগ্রহের পথে এগোতে থাকে স্বাগতিকরা। গাপটিল ৪৪ রানে থামলে উইলিয়ামসনকে সঙ্গ দেন টেলর। তৃতীয় এই উইকেট জুটিতে আসে ৬০ রান। দুজনেই ব্যক্তিগতভাবে ফিফটি পেয়েছেন। উইলিয়ামসন ইনিংস সেরা ৭৭ রানে রবিন্দ্র জাদেজার শিকার হন।

বৃষ্টিতে ম্যাচের দৈর্ঘ্য কমে এলে ঝড়ো ইনিংস শুরু করেন এন্ডারসন। ১৭ বলে দুই চার ও পাঁচ ছয়ে ৪৪ রান করেন তিনি। টেলরের সঙ্গে ২৮ বলে ৭৪ রানের অসাধারণ জুটি গড়েন দ্রুততম সেঞ্চুরির মালিক। টেলর আউট হন ৫৭ রানে।

বল হাতে ভারতের সামি তিনটি উইকেট নেন।

ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে শুরুতে ভারতের লক্ষ্য দাঁড়ায় ২৯৭ রান। ধুমধাড়াক্কা ব্যাটিং ছাড়া উপায় ছিল না তাদের। অবশ্য সেভাবে শুরু করতে পারেনি তারা। ৩৭ রানের মধ্যে দুই ওপেনার শিখর ধাওয়ান (১২) ও রোহিত শর্মাকে (২০) মাঠ ছাড়া করেন পেসার টিম ‍সাউদি।

অজিঙ্কা রাহানে ও বিরাট কোহলি দলকে টেনে তোলার চেষ্টা করেছিলেন। ৯০ রানের এই সেরা জুটিটি বিচ্ছিন্ন করেছেন মিচেল ম্যাকক্লেনাঘান। ৩৬ রানে থামেন রাহানে। মাঠে কোহলি থাকায় সফরকারীদের আশা তখনও ছিল। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যানকে অ্যান্টনি ডেভচিচের তালুবন্দি করেন সাউদি। ৬৫ বলে সাত চার ও দুই ছয়ে ৭৮ রানে সাজানো তার ইনিংস।

শেষ চেষ্টা করে গিয়েছিলেন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। ৪২ বলে ৫২তম ফিফটি পাওয়া এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান দুই বল পরই ৫৬ রানে এন্ডারসনের শিকার হন। পরবর্তীতে কিউই এই পেসার জোড়া আঘাত হানলে রানের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে পেরে ওঠেনি সফরকারীরা।

৪১ ওভার তিন বল শেষে আবারও বৃষ্টিতে ভেস্তে যায় ম্যাচ। লক্ষ্য কমে দাঁড়ায় ২৯৩ রান। শেষ কয়েকটি বল খেলা অনর্থক মনে হওয়ায় নিউজিল্যান্ডকে ১৫ রানে জয়ী ঘোষণা করা হয়।

সাউদি চারটি ও এন্ডারসন তিনটি উইকেট নেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩০ ঘণ্টা, ২২ জানুয়ারি ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa