ঢাকা, বুধবার, ২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৮ মহররম ১৪৪৪

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

ঢাকার পোলা সত্যজিতের লালমোহন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬০৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২, ২০১৫
ঢাকার পোলা সত্যজিতের লালমোহন

কলকাতা: সেই সময়  ফেলুদাকে নিয়ে আর চলচ্চিত্র বানাবেন না, এই কথা ঘোষণা করে দিয়েছেন সত্যজিৎ রায়। কিন্তু কেন? কেন তিনি আর ফেলুদাকে নিয়ে সিনেমা বানাবেন না? জল্পনা ছিল বিভিন্ন মহলে।

সেই সময় সাহস করে অভিনেতা সব্যসাচী চক্রবর্তী অর্থাৎ যিনি পরবর্তী সময়ে সত্যজিৎ রায়ের পুত্র সন্দ্বীপ রায়ের ছবিতে ফেলুদা হয়েছিলেন তিনি হাজির হয়েছিলেন সত্যজিৎ রায়ের বিশপ লেফ্রয় রোডের বাড়িতে।

সবিনয়ে সত্যজিৎ রায়কে তিনি জানিয়েছিলেন তিনি অভিনয় করতে চান ফেলুদার চরিত্রে। সব্যসাচী চক্রবর্তীর মুখ থেকেই শোনা, অনেকক্ষণ গম্ভীরভাবে তার মুখের দিকে চেয়ে বসেছিলেন পরিচালক সত্যজিৎ রায়।

বেশ কিছুক্ষণ চুপ থাকার পর বলেছিলেন, ‘সন্তোষ দত্তকে ছাড়া লালমহোন বাবু বা জটায়ু’র চরিত্র আর অন্য কারো পক্ষে করা সম্ভব নয়’। কে ছিলেন এই সন্তোষ দত্ত? না তিনি কোন থিয়েটার চোস্ত অভিনেতা ছিলেন না, পেশায় তিনি ছিলেন উকিল। সেই উকিলকেই নিজের চলচ্চিত্রে লেখক লালমোহন গাঙ্গুলির চরিত্রে অভিনয় করিয়েছিলেন সত্যজিৎ রায়।

প্রথম তাকে ‘পরশ পাথর’ ছবিতে ছোট্ট একটি ভূমিকায় কাজ দিয়েছিলেন সত্যজিৎ রায়। তারপর ‘সোনার কেল্লা’ থেকে ফেলুদার সব অভিযানের সঙ্গী ছিলেন তিনি। ১৯৮৮ সালে প্রয়াত হন সন্তোষ দত্ত বন্ধ হয়ে যায় সত্যজিৎ রায়ের পরিচালিত ফেলুদা সিরিজ।

ঢাকায় জন্মেছিলেন সন্তোষ দত্ত। তখনও ভাগ হয়নি দুই বাঙলা। এরপর কলকাতায় এসে ওকালতি শুরু করেন। আজ ২ ডিসেম্বর এই মহান অভিনেতার জন্মদিন। বাংলাদেশের মাটিতে জন্ম নেওয়া এই গুণী অভিনেতা সন্তোষ দত্ত চলে গেলেও তাকে ‘জটায়ু’ নামে মনে রেখেছে বিশ্বের আপামর চলচ্চিত্র প্রেমীরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০২, ২০১৫
ভি.এস/আরআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa