ঢাকা, বুধবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৮ মে ২০২২, ১৬ শাওয়াল ১৪৪৩

শিক্ষা

শাবিপ্রবির আন্দোলনে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সংহতি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৪৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০২২
শাবিপ্রবির আন্দোলনে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সংহতি ...

সিলেট: শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) আন্দোলনে সংহতি জানিয়েছে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) রাত ৮টার দিকে শাবিপ্রবি ক্যাম্পাসে উপস্থিত হয়ে তারা সংহতি জানান।

সংহতি জানাতে আসা শিক্ষার্থীরা বলেন, যেকোনো যৌক্তিক আন্দোলনে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের এহেন আচরণ কোনোভাবেই কাম্য নয়। পুলিশ দিয়ে শিক্ষার্থীদের উপর হামলা চালিয়ে ভিসি তার পদে থাকার নীতিগত অধিকার হারিয়েছেন। আমরা এই কর্মসূচি থেকে শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীদের সকল দাবির প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানাচ্ছি। অবিলম্বে উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি, প্রক্টরিয়াল বডির পদত্যাগ দাবি করছি।

সংহতি জানাতে আসা শিক্ষার্থীরা হলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের ছাত্র রাকিব আল হাসান তালুকদার, ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের ছাত্র মনজুরুল হাসান, বরিশাল বিএম কলেজের অর্থনীতি বিভাগের ছাত্র হাসিব আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বায়োকেমিস্ট্রি বিভাগের ছাত্রী উমমা ফাতেমা, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের ছাত্র ইমন সাঈদ, নারায়ণগঞ্জের তুলারাম কলেজের একাউন্টটিং বিভাগের ছাত্র জামান কবির ও মাস্টার্স ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ছাত্রী ফারহানা মানিক এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের ছাত্র গোলাম মোস্তফা।

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) বিকেল ৩টা থেকে শাবিপ্রবির ভিসি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ পদত্যাগ চেয়ে বাসভবনের সামনে অনশনে বসেন ২৪ শিক্ষার্থী। ইতোমধ্যে ১৩ জনকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ১০ জন ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে, ২ জনকে রাগীব-রাবেয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে এবং একজন মাউন্ট এডোরা চিকিৎসা নিচ্ছেন। তাছাড়া একজনের বাবা অসুস্থ হওয়াতে অনশন ছেড়ে বাড়ির উদ্দেশ্যে গেছেন। আর অনশনরত অবস্থায় রয়েছেন ১০ জন।

বাংলাদেশ সময়: ০১৪৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২২, ২০২২
এনইউ/কেএআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa