ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

ফুটবল

পেরাল্টার গোলে এগিয়ে মেক্সিকো

ওয়ার্ল্ড কাপ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২৩২৫ ঘণ্টা, জুন ১৩, ২০১৪
পেরাল্টার গোলে এগিয়ে মেক্সিকো

ঢাকা: বিশ্বকাপের দ্বিতীয় ম্যাচে ৬১ মিনিটে পেরাল্টার গোলে এগিয়ে আছে মেক্সিকো। জিওভান্নি দস সান্তোসের জোরালো শট ক্যামেরুনের গোলরক্ষক ইতানজিডি আটকে দিলেও ছুটে এসে ফিরতি বলটিকে ক্যামেরুনের জালে পৌঁছে দেন পেরাল্টা।



ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের তারকা হাভিয়ের হার্নান্দেজকে সাইড বেঞ্চে বসিয়ে পেরাল্টাকে মাঠে নামানোর সিদ্ধান্তকে সঠিক  প্রমাণ করলেন পেরাল্টা দলকে এগিয়ে নিয়ে।

যদিও ৭৪ মিনিটে মেক্সিকো দলের সবচেয়ে বড় তারকা হার্নান্দেজ মাঠে নামার সুযোগ পান। এ ম্যাচের একমাত্র গোলদাতা পেরাল্টার বদলি হিসেবেই মাঠে নামেন মানচেস্টার ইউনাটেডের স্টার হার্নান্দেজ।

প্রথমার্ধ গোল শূন্য হওয়ায় দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ক্যামেরুনকে চেপে ধরে মেক্সিকো। বিরতি পর ৪৮ মিনিটেই দস সান্তোসের অসাধারণ পাস থেকে মেক্সিকোকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার সুযোগ পান পেরাল্টা। কিন্তু বলের ওপর তীক্ষ্ণ নজর রাখা ক্যামেরুনের গোলরক্ষক ছুটে এসে আটকে দেন পেরাল্টার শট।  

এরপর ৫৭ মিনিটে ক্যামেরুন ফরোয়ার্ড এমবিয়া তীব্র গতিতে পাল্টা আক্রমণে গেলে মেক্সিকো ডিফেন্ডার মরেনো অবৈধভাবে ট্যাকল করেন। এরফলে এ খেলার প্রথম হলুদ কার্ড দেখেন মরেনো।    

এর আগে খেলার প্রথমার্ধেই তিন তিনটি গোল বাতিল করেন দুই লাইন্সম্যান। বাতিল হওয়া তিন গোলের দুটি করেন মেক্সিকো স্ট্রাইকার সান্তোস, ক্যামেরুন স্ট্রাইকার ইতো।  

বল মাঠে গড়াতেই ক্যামেরুনকে চেপে ধরে মেক্সিকোর খেলোয়াড়েরা। খেলার ৩ মিনিটেই ডান পাশ দিয়ে মারকুয়েজ ও পেরাল্টার ওয়ান টু ওয়ানে খেলে আক্রমণ করেন, পেরাল্টার শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। এরপর বেশ কয়েকবার ক্যামেরুনের ডিফেন্স ভেঙে বক্সে ঢুকে পড়েলেও গোল করতে পারেননি মেক্সিকোর ফরোয়ার্ডরা।

১২ মিনিটে মারকুয়েজের ডিফেন্স চেরা পাস ঠান্ডা মাথায় ক্যামেরুনের গোলরক্ষক ইতানজিকে ফাঁকি দিয়ে জালে জড়ান জিওভান্নি। কিন্তু লাইন্সম্যানে অফসাইডের বাঁশি বাজিয়ে গোলটি বাতিল করেন।

১৭ মিনিটে পাল্টা আক্রমণে ক্যামেরুনের করা একটি গোলও অফসাইডের কারণে বাতিল হয়। এরপর ২২ মিনিটে ইতোর জোরালো শট মেক্সিকোর গোলরক্ষক ওচোয়া নিপুণ দক্ষতায় আটকে দেন।  

খেলার ৩০ মিনিট পর্যন্ত দু’দলের আকমণ পাল্টা আক্রমণে ম্যাচ জমে ওঠে। এ সময় চৌপো-মোটিংয়ের কর্নার কিক থেকে জিওভান্নি দস সান্তোসের আরও একটি গোল বাতিল করেন লাইন্সম্যান।

এরপর খেলার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আরও কিছু আকমণ করলেও মেক্সিকো পায়নি কাঙ্ক্ষিত গোল। প্রথমার্ধ থেকে যায় গোল শূন্য।
  
বাংলাদেশ সময়: ২২৩০ ঘণ্টা, জুন ১৩, ২১০৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa