ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

স্বাস্থ্য

প্রতি মাসে ৩ কোটির বেশি মানুষ টিকা পাবে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৯, ২০২১
প্রতি মাসে ৩ কোটির বেশি মানুষ টিকা পাবে

ঢাকা: নভেম্বর থেকে প্রতিমাসে দেশে তিন কোটিরও বেশি মানুষ টিকা পাবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬টার দিকে মহাখালীর শেখ রাসেলে জাতীয় গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।



জাহিদ মালেক বলেন, দেশের প্রতিটা মানুষকে টিকা দেওয়ার লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি। অনেকে আমাদেরকে মালদ্বীপ ও ভুটানের সঙ্গে তুলনা করে। মালদ্বীপ ৫ লাখ, ভুটান ৬ লাখ আর আমরা ৬ কোটি ভ্যাকসিন ইতোমধ্যে দিয়েছি। আমাদের কেনা টিকা রয়েছে ২১ কোটি। যা এখন আমরা পাচ্ছি। এ মাসে আমরা ৩ কোটির মতো টিকা দিয়েছি। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং চীনের কাছ থেকে যে টিকার সিডিউল পেয়েছি, প্রতি মাসে তিন কোটির অধিক টিকা এ দেশবাসীরা পাবে।

বর্তমান স্বাস্থ্য ব্যবস্থায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অবদান উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমাদের নির্দেশ দেওয়া আছে দেশের মানুষকে চিকিৎসা দিতে সব থেকে ভালো মেশিন যেন কেনা হয়। আমাদের দেশের মানুষ যেন সবচেয়ে দামি মেশিনের চিকিৎসা পায়। গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতাল সবচেয়ে দামি মেশিনগুলো আনা হয়েছে। গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতাল এদেশের মানুষের চিকিৎসা দিতে যেকোনো জিনিসের প্রয়োজন হলে, আপনারা চাহিদা দিলে তা দ্রুত পূরণ করা হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, যুদ্ধ করে বাঙালিরা করোনার বিরুদ্ধে জয় অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। বিশ্বে করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে আমরা ২৬তম আর দক্ষিণ এশিয়ায় আমরা প্রথম স্থান অর্জন করেছি। এটা কোনও ম্যাজিক নয়, সবাই মিলে আমরা কাজ করেছি বলেই সম্ভব হয়েছে।  

সাম্প্রতিক সময়ে সাম্প্রদায়িক হামলা প্রসঙ্গ উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, দেশে কয়েক দিন ধরে জ্বালাও-পোড়াও, মন্দির ভাঙচুর করা হলো। মন্দির ভাঙা উদ্দেশ্য নয়, উদ্দেশ্য হচ্ছে দেশের উন্নয়ন ব্যাহত করা, শান্তি-শৃঙ্খলা নষ্ট করা। দেশের শান্তি নষ্ট হলেই তো উন্নয়ন ব্যাহত হয়ে যাবে। তারা জানে না, বঙ্গবন্ধু এবং তার পরিবার দেশের প্রতিটা মানুষের অন্তরে বসবাস করে, মেরে কেটে হত্যা করে তাদেরকে মুছে ফেলা যায় না।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব লোকমান হোসেন মিয়া, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশিদ আলম, বিএমএ সভাপতি মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন ও মহাসচিব ডা. ইহতেসাম স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এম এ আজিজ প্রমুখ।

সভার আগে শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪২ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৮, ২০২১
আরকেআর/এমএমজেড/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa