ঢাকা, শুক্রবার, ৫ বৈশাখ ১৪৩১, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫

কৃষি

হেক্টরে ৬ টন পর্যন্ত ফলন মিলেছে ব্রি-৭৮ ও ৮৭ ধানে

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৩, ২০২২
হেক্টরে ৬ টন পর্যন্ত ফলন মিলেছে ব্রি-৭৮ ও ৮৭ ধানে

সাতক্ষীরা: ব্বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট উদ্ভাবিত ব্রি-৭৮ ও ৮৭ জাতের ধানের হেক্টর প্রতি উৎপাদন হয়েছে ৫-৬ টন। এছাড়া লবণ সহিষ্ণু হওয়ায় আমন মৌসুমে সাতক্ষীরা অঞ্চলে এই জাতের ধানের বিশেষ উপযোগিতা রয়েছে।

মঙ্গলবার (১৩ ডিসেম্বর) বিকেলে সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার মুন্সিগঞ্জের উত্তর কদমতলায় ব্রি-৭৮ ও ৮৭ জাতের ধানের ফলন নির্ণয়ের লক্ষ্যে নমুনা শস্য কর্তন শেষে এ তথ্য জানানো হয়।

এ উপলক্ষে শ্যমনগর উপজেলা কৃষি অফিস আয়োজিত অনুষ্ঠানে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ড. মো. জামাল উদ্দীনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেব উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, খুলনা অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক মো. ফরিদুল হাসান।

অনুষ্ঠানে কৃষকরা জানান, তারা অতীতে যেসব জাতের ধান চাষ করেছেন, তার তুলনায় ব্রি-৭৮ ও ৮৭ জাতের ফলন বেশি। এছাড়া ব্রিধান ৭৮ ও ৮৭ লবণ সহিষ্ণু।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন শ্যামনগর উপজেলা কৃষি অফিসার এস. এম এনামুল ইসলাম ও উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার লতিফুল হাসান, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. মহিউদ্দীন, শামসুর রহমান, কামরুল হাসান, মাসুম বিল্লাহ, আলী হাসান, জামাল হোসেন, এস এম আহসানউল্লাহ, আশালতা, শামীম ইসলাম প্রমুখ।

এর আগে শ্যামনগর উপজেলা কৃষি অফিসে ৪০ জন কৃষকের মাঝে টাটা ক্রপ কেয়ার কোম্পানির রাজলক্ষ্মী ২৭৬০ জাতের ভুট্টার বীজ বিনামূল্যে বিতরণ করা হয়। এসময় টাটা ক্রপ কেয়ার কোম্পানির ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার মো. শহিদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৩, ২০২২
এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।