ঢাকা, শুক্রবার, ২০ মাঘ ১৪২৯, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১১ রজব ১৪৪৪

কৃষি

আমনে রোগ-পোকার আক্রমণে দিশেহারা কৃষক

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৪৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ৮, ২০১৭
আমনে রোগ-পোকার আক্রমণে দিশেহারা কৃষক আমনে রোগ-পোকার আক্রমণে দিশেহারা কৃষক। ছবি: বাংলানিউজ

বরগুনা: বরগুনার তালতলীতে আমন ধানের ক্ষেতে পোকা ও রোগের আক্রমণে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন কৃষকরা। মাজরা পোকা, পামরি পোকা, চুঙ্গি পোকা, ঘাস ফড়িং, সবুজ পাতা ফড়িংসহ বিভিন্ন পোকা এবং পাতা ঝলসানো রোগ ও পাতা মোড়ানো রোগের আক্রমণে আমন ক্ষেতের অবস্থা অত্যন্ত নাজুক বলে জানিয়েছেন তারা।

উপজেলার কচুপাত্রা, নলবুনিয়া, শারিখখালী, কড়াইবাড়িয়া, পাঁচশোবিঘা, শানুর বাজার, হরিণবাড়িয়া, তারিকাটা, সুন্দরীয়া, ছাতনপাড়া, লাউপাড়া, কবিরাজপাড়া, তালুকদারপাড়া, চরপাড়া, গাবতলী, বগী, বেহালা ও হেলেঞ্চাবাড়িয়ায় সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, পোকার আক্রমণে আমন গাছের পাতা লালচে আকার ধারণ করেছে। ধান রক্ষায় ক্ষেত বালাইনাশক প্রয়োগ করছেন দিশেহারা কৃষকরা।

কৃষকেরা জানান, আমন মৌসুমের শুরুতে প্রাকৃতিক দুর্যোগ ছিল তাদের প্রতিকূলে। তারপরও ভালো ফলনের আশায় অক্লান্ত পরিশ্রম করে আমনের ক্ষেত তৈরি করেন। রোপা আমন ক্ষেতের অবস্থা তখন অনেক ভালো ছিল। কিন্তু গত ১৫ দিন ধরে বিভিন্ন ধরনের পোকার আক্রমণ দেখা দিয়েছে।

ধান রক্ষায় ক্ষেত বালাইনাশক প্রয়োগ করছেন দিশেহারা কৃষকরা।  ছবি: বাংলানিউজকৃষক মো. আয়নাল মিয়া ও আল-আমিন হাওলাদার বাংলানিউজকে বলেন, গত বৃষ্টির পর থেকে পোকার এ আক্রমণে ধানের পাতা লালচে হয়ে যাচ্ছে।

তালতলী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) এস এম বদরুল আলম বাংলানিউজকে জানান, অতিরিক্ত বাতাসে আমন ধান গাছের পাতা পিটানোর ফলে পাতা ঝলসানো রোগ হয়। এ রোগ দেখা দিলে ১০ লিটার পানির মধ্যে ৬০ গ্রাম এমওপি ও ৬০ গ্রাম থিউবিট মিশ্রণ করে ৫ শতাংশ জমিতে ছিটিয়ে দিতে কৃষকদের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

তালতলীতে এ বছর ১৬ হাজার হেক্টর জমিতে আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে বলে জানিয়েছে উপজেলা কৃষি অফিস।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫০ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৮, ২০১৭
এএসআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa