ঢাকা, শুক্রবার, ৬ মাঘ ১৪২৮, ২১ জানুয়ারি ২০২২, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

ক্রিকেট

টি-টোয়েন্টি বলেই চমকের আশা সালমার

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮১৬ ঘণ্টা, মার্চ ২৫, ২০১৪
টি-টোয়েন্টি বলেই চমকের আশা সালমার

সিলেট থেকে: আইসিসি ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টিতে ছেলেরা শেষটা হেরে গেলেও প্রথম দুই ম্যাচে দুর্দান্ত জয়ে সুপার টেনে উঠেছে। দ্বিতীয় পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে তারা ওয়েস্ট ইন্ডিজকে মোকাবিলা করতে যাচ্ছে।

আর মেয়েরাও একই প্রতিপক্ষের মুখোমুখি হবে বুধবার, সিলেট বিভাগীয় স্টেডিয়ামে। বিশ্বমঞ্চে অভিষেক হওয়ার আগে শেষবারের মতো নিজেদের ঝালিয়ে নিতে সালমা খাতুন তার দলকে নিয়ে হাজির হলেন জেলা স্টেডিয়ামে। অনুশীলনের আগেই সংবাদকর্মীদের সামনে হাজির হলেন দলের অধিনায়ক।

প্রথম ম্যাচেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের মতো বড় প্রতিপক্ষ। সম্প্রতি দলের পারফরমেন্সও হতাশাজনক। তবে নিজ দেশে খেলা বলে দর্শকদের সমর্থনকে সঙ্গে নিয়ে চমক দেখাতে চান সালমা।

এজন্য গত কয়েক দিন ধরেই কঠোর অনুশীলন করে যাচ্ছেন তারা,‘আমরা অনেকদিন ধরে ভালোভাবে অনুশীলন করছি। এখানে আমরা দুদিন প্র্যাকটিস করেছি, আজ দিয়ে তিনদিন হবে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে বড় একটা ম্যাচ হবে। ইনশাল্লাহ ভালো করতে পারব আমরা। ’

জয়ের সাহসী লক্ষ্য নিয়ে মাঠে নামার প্রত্যয় জানালেন সালমা,‘যেহেতু নিজ দেশে খেলা, সেহেতু আমাদের জয়ের লক্ষ্যটাই থাকবে। জয়ের জন্য মাঠে নামব এই ম্যাচে। ’
 
প্রস্তুতি ম্যাচ নিয়ে ব্যাখ্যা দিলেন ১৮টি আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলা এই ক্রিকেটার,‘প্রস্তুতি ম্যাচ নিয়ে আমরা সন্তুষ্ট না। কারণ ব্যাটাররা রান পাচ্ছিল না। আর ঢাকার উইকেটের সঙ্গে এখানে পার্থক্য আছে। ব্যাটাররা যদি রান করতে পারে তবে অবশ্যই আমরা ভালো করব। আশা করি তাদের ব্যাটে রান পাওয়া যাবে। ’
 
সিলেটের উইকেটটি বাউন্সি হবে মনে করছেন সালমা। আর টার্নও কম হবে তবুও স্পিনারেই ভরসা করছেন তিনি,‘দলে স্পিনারই বেশি। কতজন স্পিনার নেওয়া হবে সেই ব্যাপারে জানি না। তবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে আমরা একমাত্র যে ম্যাচটি খেলেছিলাম তাতে স্পিনাররা প্রশংসিত হয়েছিল। আশা করি তারাই বেশি জায়গা পাবে। এছাড়া পান্না, জাহানারা ও লতা আছে পেস বোলিংয়ে। ’

গত কয়েক ম্যাচেই রান আসছে না তেমন। এর কারণ হিসেবে পাওয়ার প্লের সদ্ব্যবহারকে দায়ী করলেন সালমা,‘বোলিং ফিল্ডিংয়ে কিন্তু আমরা ভালো। তবে রান আসছে না ব্যাটাররা ব্যর্থ হচ্ছে বলে। তারা রান করতে পারলে আমার মনে হয় আমাদের দলীয় স্কোর ১৪০ করার সামর্থ্য আাছে। মূলত পাওয়ার প্লে কাজে লাগাতে পারছি না বলে রান কম আসছে। ’

এই টুর্নামেন্টে ১৪০ রান যথেষ্ট কি না এমন প্রশ্নে তিনি বলেন,‘শ্রীলঙ্কা কিন্তু ভারতকে ১২৯ রানের লক্ষ্য দিয়ে জিতেছে। আর এই উইকেটে ১৪০ রান করার পরও আমরা লড়াই করতে পারব। কারণ আমাদের বোলিং লাইন ভালো আছে। ’

দলীয় স্কোরবোর্ডে প্রত্যাশিত রান জমা করতে শুকতারা, পিঙ্কি, রুমানা ও নিজেকে এগিয়ে রাখছেন ডানহাতি ব্যাটার,‘আমরা এই চারজন ভালো রান করতে পারলে ভালো সংগ্রহ হবে আশা করি। ’

ক্যারিবীয়দের নিয়ে সালমার মূল্যায়ন,‘ওরা অনেক ভালো দল। অনেক বছর ধরে খেলছে। আমরা ওদের কাছে কিছু না। তবে টি-টোয়েন্টি যেহেতু বলা যায় না। ছেলেদের প্রতিযোগিতায় জিম্বাবুয়েকে হটিয়ে কিন্তু নেদারল্যান্ডস উঠে গেছে সুপার টেনে। আর স্পিনাররাই ওদের ভালো, ব্যাটিংও ভালো। ’

প্রথমবারের মতো টি-টোয়েন্টির বিশ্বমঞ্চ। কেমন লাগছে দলের,‘সবাই অনেক রোমাঞ্চিত। প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ তাই সবার মধ্যে ভালো খেলার তাগাদা আছে। অনুশীলনও সবাই উপভোগ করছে। হার জিত পরের ব্যাপার। কিন্তু আমরা আমাদের সেরা চেষ্টা করে যাব। ’

বাংলাদেশ সময়: ১৮০১ ঘণ্টা, ২৫ মার্চ ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa