ঢাকা, রবিবার, ১০ আষাঢ় ১৪৩১, ২৩ জুন ২০২৪, ১৫ জিলহজ ১৪৪৫

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

কিশোর গ্যাং লিডারসহ গ্রেফতার ৮, অস্ত্র উদ্ধার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৩৪ ঘণ্টা, মে ১৮, ২০২৪
কিশোর গ্যাং লিডারসহ গ্রেফতার ৮, অস্ত্র উদ্ধার

চট্টগ্রাম: নগরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে একাধিক মামলার আসামী কিশোর গ্যাং লিডার হেলাল বাদশা চৌধুরীসহ কিশোর গ্যাং এর ৮ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে নগরের খুলশী থানা পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে ১টি দেশীয় তৈরি আগ্নেয়াস্ত্র (এলজি) ও ২টি কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

 

শুক্রবার (১৭ মে) রাতে নগরের বিভিন্ন স্থান থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, কিশোর গ্যাং লিডার হেলাল বাদশা চৌধুরী (২৫), মো. রাকিব হোসেন (২২), মো. কাউসার (২২), মো. মেহেরাজ সামি (২১), শেখ সাদি হাসান (২০), মো. সাগর হোসেন (২৭), সাইফুল ইসলাম শান্ত (২৬) ও আব্দুর রহমান (২১)।

পুলিশ জানিয়েছে, গত ১৭ মে নগরের খুলশী থানাধীন নাসিরাবাদ সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে থেকে কিশোর গ্যাং লিডার হেলাল বাদশা চৌধুরীসহ অজ্ঞাতনামা ১০ থেকে ১৫ জন মিলে মো. আরিফ নামে এক জনকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে। পরে অপহরণ করে পার্শ্ববর্তী বাটা গলি বাহার সাহেবের খালি জায়গায় নিয়ে যায়। একই সময় কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যগণ আরিফের পকেটে থাকা বিভিন্ন মডেলের ৪টি মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। তখন মোবাইল দিতে না চাওয়ায় কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা এসএস পাইপ ও হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে আরিফকে গুরুতর জখম করে। এসময় ভিকটিম মো. আরিফের কাছ থেকে ১ লাখ টাকা চাঁদাও দাবি করে অপহরণকারীরা। আরিফের ভাই মো. রাকিব ৯৯৯ এর ফোন করে অপহরণের বিষয়টি পুলিশকে জানায়।  

খুলশী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নুরুল বাশার বাংলানিউজকে বলেন, আরিফ নিখোঁজ হওয়ার সংবাদের ভিত্তিতে নগরের বাকলিয়া থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে অপহরণের সঙ্গে জড়িত আব্দুর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে আরিফের মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়। গ্রেপ্তার আব্দুর রহমানকে সঙ্গে নিয়ে নগরের আকবরশাহ্ থানার ইস্পাহানী ১ নম্বর গেইট পাহাড়ীকা পেট্রোল পাম্পের পিছনে অভিযান চালিয়ে অপহরণের স্বীকার আরফিকে উদ্ধার করা হয়। একই সময় ঘটনার মূল হোতা একাধিক মামলার আসামী কিশোর গ্যাং লিডার হেলাল বাদশা চৌধুরীসহ জড়িত থাকা রাকিব, কাউসার, মেহেরাজ সামি, শেখ সাদি হাসান, সাগর হোসেন ও সাইফুল ইসলাম শান্তকে গ্রেপ্তার করা হয়।  

তিনি আরও বলেন, গ্রেপ্তারকৃতদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে আরিফের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেওয়া বিভিন্ন মডেলের ৪টি মোবাইল সেট, ঘটনায় ব্যবহৃত কিরিচ, এসএস পাইপ, অপহরণে ব্যবহৃত মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়েছে। হেলাল বাদশা চৌধুরীর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে নগরের খুলশী থানার বাটাগলির তাহের সাহেবের খালি প্লট থেকে  ১টি দেশীয় তৈরী আগ্নেয়াস্ত্র (এলজি) ও  ২টি কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারৃকতদের বিরুদ্ধে থানায় অপহরণ ও অস্ত্র আইনে দুইটি মামলা করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৩ ঘণ্টা, মে ১৮ , ২০২৪
এমআই/টিসি
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।