ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ মাঘ ১৪২৮, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

লাখো ভক্তের আমিন ধ্বনিতে শেষ হলো মাইজভাণ্ডারীর ওরশ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২১০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০১৪
লাখো ভক্তের আমিন ধ্বনিতে শেষ হলো মাইজভাণ্ডারীর ওরশ ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চট্টগ্রাম: দেশি-বিদেশি লাখো ভক্তের আমিন আমিন ধ্বনিতে আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিযে শেষ হয়েছে মাইজভাণ্ডার দরবার শরীফের অধ্যাত্ম শরাফতের প্রতিষ্ঠাতা গাউছুল আজম হযরত মওলানা শাহ ছুফী সৈয়দ আহমদ উল্লাহ (ক.) এর ১০৮ তম বার্ষিক ওরশ শরীফ।

১০ মাঘ বৃহস্পতিবার ওরশের শেষ দিনে বিশ্ব মুসলিম উম্মাহ এবং দেশের সার্বিক সুখ সমৃদ্ধি ও কল্যাণ কামনা করে মহান আল্লাহর দরবারে আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করেন গাউছিয়া আহমদিয়া মঞ্জিলের একমাত্র মনোনীত সাজ্জাদানশীন আলহাজ্ব হযরত মওলানা শাহ ছুফী সৈয়দ এমদাদুল হক মাইজভাণ্ডারী (ম.)।



এসময় তিনি বলেন,‘হযরত গাউছুল আজম মাইজভাণ্ডারী মওলানা শাহ ছুফী সৈয়দ আহমদ উল্লাহ (ক.) এর আধ্যাত্মিক শক্তি ও শিক্ষাকে ধারণ করে মাইজভাণ্ডারী তরিকার সূচনা হয়। এই তরিকা অসাম্প্রদায়িক, উদার, নৈতিক ধর্ম প্রাধান্যসম্পন্ন, শ্রেণী বৈষম্যহীন ও মানবদরদী। ’

শাহ ছুফী সৈয়দ এমদাদুল হক মাইজভাণ্ডারী বলেন,‘মানুষের মনে ঐশী প্রেম জাগ্রত করে সুন্দর ও ন্যায়ের পথে জীবন যাপনে মানব সমাজকে উদ্বুদ্ধ করে মানবতার ইহকালীন ও পরকালীন মুক্তি ও কল্যাণ নিশ্চিত করার শিক্ষা ও দীক্ষা দেয়। ’

মোনাজাতে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নায়েব সাজ্জাদানশীন আলহাজ্ব সৈয়দ ইরফানুল হক মাইজভাণ্ডারী, আলহাজ্ব সৈয়দুল হক খান, আলহাজ্ব ক্যাপ্টেন সৈয়দ সোহেল হাসনাত, আলহাজ্ব জহিরুল ইসলাম চৌধুরী আলমগীর।

প্রতি বছর হযরত গাউছুল আজম হযরত মওলানা শাহ ছুফী সৈয়দ আহমদ উল্লাহ মাইজভাণ্ডারী’র (ক.) বার্ষিক ওরশ শরীফ মহান ১০ মাঘ ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও গুরুত্বের সাথে পালিত হয়।

এ উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের পাশাপাশি ভারত, মায়ানমার, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ইংল্যান্ড, মধ্যপ্রাচ্যসহ বিভিন্ন দেশ থেকে পীর মাশায়েখ, আলেম ওলামা, ভক্ত, জায়েরীন, পর্যটক ও গবেষকরা মাইজভাণ্ডার শরীফে সমবেত হন।

লাখো মুসুল্লির আগমনে মাইজভাণ্ডার দরবার শরীফ ও আশপাশের এলাকা জনসমুদ্রে পরিণত হয়। আল্লাহু-আল্লাহু, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ জিকির, মিলাদ ও ছেমা মাহফিলের ধ্বনিতে পুরো এলাকা মুখরিত হতে থাকে।

ওরশ শরীফ উপলক্ষে বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকায় মহামান্য রাষ্ট্রপতির বাণী বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করা হয়।

এদিকে মাইজভাণ্ডারীর ওরশ উপলক্ষে আশপাশের এলাকাগুলোতে জমে উঠে গ্রাম্য মেলা। এসব মেলা ও ওরশকে কেন্দ্র করে আইন শৃংখলার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে র‌্যাব, পুলিশ ও প্রশাসনের বিশেষ টীম কাজ করেছে।
 
গাউছিয়া আহমদিয়া মঞ্জিলের সাথে সংশ্লিষ্ট শেখ শাকিল মাহমুদ বাংলানিউজকে জানান, ওরশ শরীফ উপলক্ষে ৮ মাঘ মঙ্গলবার মাইজভাণ্ডারী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এবছর জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় জিপিএ ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের মাঝে গাউছুল আজম মাইজভাণ্ডারী মেধা বৃত্তি প্রদান, মেধা বিকাশ কার্যক্রমের পুরষ্কার বিতরণ ও সুধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়া ৯ মাঘ বুধবার দুপুরে হযরত গাউছুল আজম মাইজভাণ্ডারী মওলানা শাহ্ ছুফী সৈয়দ আহমদ উল্লাহ (কঃ) এর রওজা শরীফে গোসল শরীফ ও গিলাপ চড়ানো হয়।

মাইজভাণ্ডারী শাহ এমদাদীয়া ব্লাড ডোনার্স গ্রুপের উদ্যোগে দুইদিন ব্যাপী বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ফ্রি ব্লাড গ্রুপিং ক্যাম্প পরিচালিত হয় বলে তিনি জানান।

সুষ্ঠুভাবে ওরশ সম্পন্ন হওয়ায় নায়েব সাজ্জাদানশীন ও মোন্তাজেমে দরবার আলহাজ্ব সৈয়দ ইরফানুল হক মাইজভাণ্ডারী (ম.) স্থানীয় প্রশাসন, এলাকাবাসীসহ সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa