ঢাকা, শুক্রবার, ৮ আষাঢ় ১৪৩১, ২১ জুন ২০২৪, ১৩ জিলহজ ১৪৪৫

আইন ও আদালত

প্রাথমিকের ম্যানেজিং কমিটি গঠনে এমপিদের পরামর্শ অবৈধ: হাইকোর্ট

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২৭ ঘণ্টা, মে ২৫, ২০২৪
প্রাথমিকের ম্যানেজিং কমিটি গঠনে এমপিদের পরামর্শ অবৈধ: হাইকোর্ট হাইকোর্ট

ঢাকা: সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনার জন্য ১১ সদস্যের কমিটিতে স্থানীয় সংসদ সদস্যদের (এমপি) পরামর্শে দুইজনকে মনোনীত করাকে অবৈধ ঘোষণা করেছেন হাইকোর্ট। ফলে এখন থেকে ম্যানেজিং কমিটি গঠনে স্থানীয় এমপিরা আর পরামর্শ দিতে পারবেন না।



কুমিল্লার মেঘনার একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির এক সদস্যের করা রিটে জারি করা রুল চূড়ান্ত করে এ রায় দেন হাইকোর্ট।  

২০২২ সালে ১৬ আগস্ট বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি কাজী জিনাত হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রায় দেন। সম্প্রতি এ রায়ের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি প্রকাশিত হয়।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার তাপস কান্তি বল ও জর্জ চৌধুরী। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাশগুপ্ত।
২০১৯ সালের ৬ নভেম্বর প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিদ্যালয় শাখা-২ একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে। প্রজ্ঞাপনে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠন এবং কমিটির দায়িত্ব বিষয়ে নীতিমালা রয়েছে।

সভাপতিসহ কমিটির সদস্য সংখ্যা হবে ১১ জন। কমিটির সদস্য সচিব হবেন বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক বা ভারপ্রাপ্ত প্রধানশিক্ষক।

নীতিমালাটির ২.২ ধারায় বলা হয়েছে, ১১ জনের মধ্যে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের মধ্যে থেকে দুইজন সদস্য স্থানীয় সংসদ সদস্যের পরামর্শক্রমে সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের প্রধানশিক্ষক কর্তৃক মনোনীত হবেন।

এ বিধানের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করেন কুমিল্লার মেঘনার রতনপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটি সদস্য মো. শহীদ উল্লাহ। ওই রিটের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট রুল জারি করেন। রুলের শুনানি শেষে হাইকোর্ট ২০২২ সালের ১৬ আগস্ট রায় দেন।

ব্যারিস্টার তাপস কান্তি বলেন, ২০১৯ সালের ৬ নভেম্বরের প্রজ্ঞাপনের বিধান হচ্ছে, প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটিতে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের মধ্য থেকে দুইজনকে (নারী ও পুরুষ) মনোনয়ন দেবেন স্থানীয় সংসদ সদস্য। এ প্রজ্ঞাপনটিকে চ্যালেঞ্জ করেছেন কুমিল্লার একটি স্কুলের একজন সদস্য। যিনি ওই স্কুলের সভাপতি পদে কনটেস্ট করে সভাপতি পদে নির্বাচিত হওয়ার পরেও সংসদ সদস্যের মনোনয়ন না পাওয়ার কারণে সভাপতি দায়িত্ব পালন করতে পারছেন না এবং কমিটি স্থগিত অবস্থায় ছিল। সে অবস্থায় প্রজ্ঞাপনটি চ্যালেঞ্জ করে রিট আবেদনকারীকে সভাপতি পদে যেন নিয়োগ করা হয়। রিটে জারি করা রুলের রায়ে হাইকোর্ট বিভাগ ২০১৯ সালের ৬ নভেম্বরের প্রজ্ঞাপনের সংসদ সদস্যের মনোনয়নের অংশটুকু বাদ দিয়ে দেন, অসাংবিধানিক বললেন।

একইসঙ্গে আবেদনকারীকে সভাপতি ঘোষণা করে ম্যানেজিং কমিটির কার্যক্রম শুরু করতে বলেছেন। ফলে এখন থেকে প্রাথমিক স্কুলের ম্যানেজিং কমিটিতে এমপিদের পরামর্শ নেওয়ার বিধান আর থাকল না।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৭ ঘণ্টা, মে ২৫, ২০২৪
ইএস/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।