ঢাকা, রবিবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৬ মে ২০২৪, ১৭ জিলকদ ১৪৪৫

রাজনীতি

নির্বাচন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য কেউ বিশ্বাস করে না: মোশাররফ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩০১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৭, ২০২৩
নির্বাচন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য কেউ বিশ্বাস করে না: মোশাররফ

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী আগামী নির্বাচন নিয়ে যা বলেছেন তা এদেশের মানুষ বিশ্বাস করে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

শনিবার (৭ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টায় নয়াপল্টনে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

আগামী নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও প্রতিযোগিতামূলক হবে জাতির উদ্দেশে দেওয়া প্রধানমন্ত্রীর এই ভাষণের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ড. মোশাররফ বলেন, প্রধানমন্ত্রী গতকাল আগামী নির্বাচনের বিষয়ে আশ্বাস দিয়েছেন। আমরা তো একটা না, ওনার দেওয়া দুটি সরকারের নির্বাচন আগেই দেখেছি। ২০১৪ সালে এদেশের মানুষ নির্বাচন বয়কট করেছিল। যেখানে সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাগে ১৫৩টা আসন। সেখানে ভোট হয়নি, কেউ দাঁড়ায়নি, জনগণ ভোট দেয়নি। সেখানে বয়কট জয়লাভ করেছিল। সেটাতে গায়ের জোরে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করেছিল।  

তিনি আরও বলেন, ২০১৮ সালে শুধু আমরা না, আজকে আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত যে, দিনের ভোট রাতে ডাকাতি হয়েছিল। জাপানের রাষ্ট্রদূত নিজে বলেছেন। অতএব এই প্রধানমন্ত্রী আগামী নির্বাচন সম্পর্কে কি বললেন এটা আমরা কেন এদেশের কোনো জনগণ বিশ্বাস করে না।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপির এই সিনিয়র নেতা বলেন, সরকার সর্বক্ষেত্রে ব্যর্থ হয়ে রাজনৈতিক নেতাদের দমন করার জন্য দুদককে ব্যবহার করছে। যারা বিদেশে টাকা পাচার করেছে তাদের নাম উচ্চ আদালত থেকে প্রচার করার আদেশ দিয়েছিল। সেটা সরকার করছে না। জাতিসংঘ থেকে বার বার বলছে এই এই ব্যক্তিরা মানবাধিকার লঙ্ঘনের শিকার। আমাদেরকে খোঁজ খবর দাও, কিন্তু দিচ্ছে না। অতএব এটা এখন সারাবিশ্বে প্রমাণিত যে এই সরকার সর্বক্ষেত্রে ব্যর্থ, দেশকে ধ্বংসের কিনারায় নিয়ে গেছে।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, সেলিমা রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান এজে মোহাম্মদ আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, ভারপ্রাপ্ত দপ্তর সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১২৫৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৭, ২০২৩
এমএইচ/এসএএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।