ঢাকা, শুক্রবার, ৫ বৈশাখ ১৪৩১, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫

রাজনীতি

বিএনপির কর্মসূচির দিনে পাল্টা কর্মসূচি না দেওয়ার আহ্বান

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২৩
বিএনপির কর্মসূচির দিনে পাল্টা কর্মসূচি না দেওয়ার আহ্বান

ঢাকা: আওয়ামী লীগকে শান্তি মিটিংয়ের নামে অশান্তি সভা না করার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস।  

তিনি বলেন, শান্তি চাইলে বিএনপির কর্মসূচির দিনে পাল্টা কর্মসূচি দেবেন না, প্রয়োজন হলে আগে কর্মসূচি দেন, আমরা আপনাদের কর্মসূচির দিনে কর্মসূচি দেবো না।

অশান্তির জবাব কীভাবে দিতে হয় সেটা শিগগিরই দেখতে পাবেন।

বুধবার (৮ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় রাজধানীর শাহজাহানপুরে মির্জা আব্বাসের বাসায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণের এক প্রস্তুতি সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ঢাকা মহানগর দক্ষিণের বৃহস্পতিবারের (৯ ফেব্রুয়ারি) পদযাত্রা কর্মসূচি উপলক্ষে এ সভার আয়োজন করা হয়।

মির্জা আব্বাস বলেন, বিএনপির পদযাত্রা নিয়ে আওয়ামী লীগ ভীত হয়ে গেছে। বিএনপি চায় গণবিস্ফোরণের আগেই সরকার ভালোয় ভালোয় যেন ক্ষমতা ছেড়ে দেয়। জনগণ সরকারের জেল ভেঙে বেরিয়ে আসতে চায়, সময় থাকতে জনগণের সঙ্গে আপস করেন।

তিনি বলেন, শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারে পতন ঘটাতে চায় বিএনপি। বিএনপি আন্দোলন করলেও সরকার ভয় পায়, চুপ থাকলেও ভয় পায়। ক্ষমতায় আসার জন্য নয়, বিএনপি জনগণের ভোটের অধিকার আদায়ের আন্দোলন করছে।

মির্জা আব্বাস বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কথা শুনলেই সরকারের মাথাব্যথা শুরু হয়ে যায়। অথচ এটা আওয়ামী লীগ ও জামায়াতের দাবি ছিল।

সভাপতির বক্তব্যে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম বলেন, সরকারের সময় শেষ হয়ে আসছে। তাই তারা নিজেদের দুর্নীতির টাকা সম্পদ রক্ষায় পাগল হয়ে গেছে। পালানোর সুযোগ পাবেন না। ভালোয় ভালোয় আপসে ক্ষমতা ছেড়ে দেন, নয়তো আপনাদের করুন পরিণতি হবে, কেউ রক্ষা করতে পারবে না।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা বলেছেন আমরা বিদ্যুতে আর ভর্তুকি দেব না। আমরা বলছি আপনারা দুর্নীতি বন্ধ করেন তাহলে আর ভর্তুকি দিতে হবে না। আপনাদের দুর্নীতির কারণেই জনগণ ভোগান্তিতে আছে। জনগণের দাবি নিয়ে আমরা রাজপথে আছি। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে থাকবো।

মহানগর দক্ষিণের সদস্য ইশরাক হোসেন বলেন, আগামীতে বাংলাদেশ কোন দিকে যাবে তা বিএনপির কর্মসূচির মাধ্যমে নির্ধারিত হবে। সরকার যেন তেন নির্বাচন দিয়ে ক্ষমতা দীর্ঘায়িত করলে আমাদের নাগরিকত্ব বিলীন হয়ে যাবে।

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক নবী উল্লাহ নবী, ইউনুস মৃধা, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য হাবিবুর রশিদ হাবিব, মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস প্রমুখ।

সভায় পদযাত্রার রুট চূড়ান্ত করা হয়। গোপীবাগ ব্রাদার্স ক্লাব মাঠ থেকে পদযাত্রা শুরু হয়ে কমলাপুর, আরামবাগ মোড়, ফকিরাপুল মোড় হয়ে বিএনপি'র কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হবে।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৮, ২০২৩
এমএইচ/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।