ঢাকা, রবিবার, ২৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০, ১১ জুন ২০২৩, ২২ জিলকদ ১৪৪৪

রাজনীতি

দেশ বাঁচাতে সরকার পতনের বিকল্প নেই: খন্দকার মুক্তাদির

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২১ ঘণ্টা, এপ্রিল ১, ২০২৩
দেশ বাঁচাতে সরকার পতনের বিকল্প নেই: খন্দকার মুক্তাদির

সিলেট: দেশ যেভাবে চলছে, আর কিছুদিন গেলে এটি হাবিয়া দোজখ হয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির।

তিনি বলেন, এই পরিণতি থেকে দেশকে বাঁচাতে হলে ফ্যাসিস্ট সরকারের পতন নিশ্চিত করার বিকল্প নেই।

শনিবার (০১ এপ্রিল) সিলেটে দক্ষিণ সুরমার চন্ড্রিপুল এলাকায় বিএনপির কেন্দ্রীয় ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে সিলেট জেলা বিএনপির উদ্যোগে অবস্থান কর্মসূচিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, পৃথিবীতে কোনো স্বৈরশাসক টিকতে পারেনি। ফেরাউন কিংবা নমরুদও টিকতে পারেনি। তাই এই স্বৈরাচারি সরকারও টিকতে পারবে না। জনগণের বিজয় হবে ইনশাআল্লাহ।

খন্দকার আব্দুল মুক্তাদির আরও বলেন, দ্রব্যমূল্য, তেল, গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির কারণে মানুষ আজ দিশেহারা। সরকারের ভয়াবহ দূর্নীতির কারণে দেশ আজ ভয়াবহ সংকটে। এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে কথা বললেই চলে ঝুলুম-নির্যাতন। সরকারের ভয়ে মানুষ নির্বিঘ্নে ধর্মকর্মও করতে পারছে না। সেদিন তারাবির নামাজ থেকে তিন জন হাফেজ, দুজন মহিলা ও একটি শিশুসহ ১৭ জনকে পুলিশ তুলে নিয়ে গেছে। মানুষ নামাজও শান্তিতে পড়তে পারছে না। মানুষ পেটভরে খেতে পারছে না। মানুষের জীবনের নিরাপত্তা নেই।

সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরীর সঞ্চালনায় অবস্থান কর্মসূচিতে ১০ দফা বাস্তবায়ন ও বলে ভিন্ন দাবি দাওয়া নিয়ে বক্তব্য রাখেন দলটির নেতারা।  

সভাপতির বক্তব্যে সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী বলেন, বিএনপি জনগনের দাবি আদায়ে আন্দোলন সংগ্রাম করছে। দেশে আজ আইনের শাসন, বাক স্বাধীনতা, ভোট ও ভাতের অধিকার নেই। মানুষের এসব মৌলিক অধিকার ফিরিয়ে দিতে হবে। নিশিরাতে ভোট ডাকাতির মাধ্যমে ক্ষমতা দখল করে থাকা আওয়ামী লীগকে অবিলম্বে পদত্যাগ করে নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্বাবধায়ক সরকারের অধিনে জাতীয় নির্বাচিন দিতে হবে। ভোট ডাকাত আওয়ামী লীগের অধিনে কোনো নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে না।

অবস্থান কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন- সিলেট জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আশিক উদ্দিন আশুক, সহ-সভাপতি মামুনুর রশিদ মামুন, হাজী শাহাব উদ্দিন, একেএম তারেক কালাম, ইকবাল বাহার চৌধুরী, শহীদ আহমদ চেয়ারম্যান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইশতিয়াক আহমদ সিদ্দিকী, অ্যাডভোকেট হাসান আহমদ পাটোয়ারী রিপন, তাজরুল ইসলাম তাজুল, ওয়াহিদুজ্জামান চৌধুরী সুফি, কোহিনূর আহমদ, আবুল কাশেম, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুর রহমান, মুশিকুর রহমান মুহি, অ্যাডভোকেট আল আছলাম মুমিন, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদকদের মধ্যে ঈসমাইল হোসেন সেলিম, আলী আকবর, আজিজুর রহমান আজিজ, নজরুল ইসলাম, জেলা যুবদলের সভাপতি অ্যাডভোকেট মুমিনুল ইসলাম মুমিন, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব শাকিল মোর্শেদ, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মকসুদ আহমদ মকসুদ, সিলেট জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আলতাফ হোসেন সুমন, বিএনপি নেতা ইয়াহইয়া আহমদ প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ২০২০ ঘণ্টা, মার্চ ০১, ২০২৩
এনইউ/এসএ
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa