ঢাকা, বুধবার, ১৯ মাঘ ১৪২৯, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৯ রজব ১৪৪৪

রাজনীতি

সরকারের উন্নয়নের ভারে নৌকা ডুবে যাচ্ছে: জাফরুল্লাহ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০২২
সরকারের উন্নয়নের ভারে নৌকা ডুবে যাচ্ছে: জাফরুল্লাহ গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী: ফাইল ফটো

ঢাকা: গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, বর্তমান সরকার এত উন্নয়ন করেছে, যে আজ উন্নয়নের ভারে নৌকা ডুবে যাচ্ছে। আজকে সুষ্ঠ নির্বাচন দিলে দেশ শ্রীলঙ্কা বা মায়ানমার হবে না।

আপনি (প্রধানমন্ত্রী) হেরেও জিতে যাবেন।

তিনি আরও বলেন, আজ উন্নয়নের ভারে নৌকা ডুবি ডুবি প্রায়। নৌকার সঙ্গে আপনিও (প্রধানমন্ত্রী) ডুবে যাবেন। আমরা কেউ আপনার নৌকাডুবিতে মৃত্যু চাই না। আপনাকে আমরা আইনের দরজায় হাজির করতে চাই, বিচারের সম্মুখীন করতে চাই।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) ‘চলমান সংকট উত্তরণে গণ-পরিষদ নির্বাচন এবং রাজনৈতিক দল বা জোটভিত্তক প্রাপ্ত ভোটের আনুপাতিক প্রতিনিধিত্বে সরকার গঠন’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব মন্তব্য করেন।

নিজেদের ১৬তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে এ আলোচনা সভার আয়োজন করে সোনার বাংলা পার্টি।

প্রধানমন্ত্রীকে উন্নয়নের হিসাব দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, পদ্মা সেতু হওয়ার কথা ছিল সাত হাজার কোটি টাকায়। কিন্তু সেটা তৈরিতে খরচ হয়েছে ৪৫ হাজার কোটি টাকা। এ বিপুল পরিমাণ টাকা কোথায় কোথায় খরচ হয়েছে তার একটা হিসাব পেলে আমরা আপনার (প্রধানমন্ত্রী) ওপর খুশি হবো।

সভায় নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন,  এমন একটা সরকার বর্তমানে ক্ষমতায় আছে, এরা জালিমেরও জালিম। এরা প্রতিনিয়ত মিথ্যা কথা বলে। আর নির্যাতন তো আছেই।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী পরশুদিন যশোরে জনসভা করেছেন। সেখানে তিনি যে বক্তৃতা দিয়েছেন, সেটা গিনিস বুক অব ওয়ার্ল্ডে লিখে রাখা যাবে। তিনি বলেছেন, আমাদের রিজার্ভের কোনো সংকট নেই। তাহলে আইএমএফের কাছে ঋণ চেয়েছেন কেন? মানুষ সংকটে পড়লেই কি-না ধার চায়। তিনি বলছেন, ব্যাংকে টাকার কোনো সংকট নেই। তাহলে এলসি দেন না কেন?

তিনি আরো বলেন, আওয়ামী লীগ প্রতিদিন সভা করছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সেটার অনুমতি দিচ্ছে। কিন্তু বিএনপি সমাবেশ করতে চাইলে দিচ্ছে না। বলছে, গোলমাল হতে পারে। আগে থেকেই তারা কীভাবে এ কথা বলছে? বিএনপি তিনমাস ধরে যে সভা করছে, তারা নিয়মশৃঙ্খলা মেনেছে।

সোনার বাংলা পার্টির সভাপতি শেখ আব্দুন নুরের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ হারুন অর রশীদের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি সভাপতি সাইফুল হক, গণপরিষদ আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী নঈম জাহাঙ্গীর, ভাসানী অনুসারি পরিষদের আহ্বায়ক শেখ রফিকুল ইসলাম বাবলু, জাসদের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান ও ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০২২
এসসি/জেএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa