ঢাকা, শুক্রবার, ২০ মাঘ ১৪২৯, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১১ রজব ১৪৪৪

তথ্যপ্রযুক্তি

ডিসেম্বরের মধ্যেই কলড্রপের সমাধান চান তারানা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০৩৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ২০, ২০১৫
ডিসেম্বরের মধ্যেই কলড্রপের সমাধান চান তারানা ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম

ঢাকা: কলড্রপ সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ জানাতে মোবাইল ফোন অপারেটর এবং নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসিকে ডিসেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।
 
সোমবার (১৯ অক্টোবর) বিকেলে সচিবালয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সভাকক্ষে মোবাইল অপারেটরগুলোর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এবং বিটিআরসি কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠককালে এ সময়সীমা বেঁধে দেন তিনি।



তারানা হালিম বলেন, কলড্রপ, থ্রি-জি সার্ভিসের সমস্যা, ইন্টারনেটের দাম বেশি, বিদেশি কলে অযথা টাকা কেটে নেওয়া, রিংটোন বা কলার টিউনে ব্যবহৃত সুরের সংশ্লিষ্ট শিল্পীদের সম্মানি না দেওয়া, আনলিমিটেড প্যাকেজ বলে ফেয়ার ইউজ পলিসিসহ বিভিন্ন সমস্যা এখনও প্রকট রয়েছে।
 
তিনি বলেন, কলড্রপ নিয়ে আগেও আলোচনা করেছি। সে ইস্যু এখনও আছে। এতো দিন সময় লাগার কথা নয়।
 
‘গ্রাহক সেবাই আমাদের মূল উদ্দেশ্য’ জানিয়ে তারানা বলেন, গ্রাহকদের অভিযোগ আমলে নিতে হবে। তাদের সন্তুষ্টির উপরই মন্ত্রণালয়ের সাফল্য নির্ভর করছে।

মোবাইল ফোন গ্রাহকদের অভিযোগ আমলে নিয়ে সুষ্ঠু সমাধানের আহ্বান জানান তিনি।
 
আইজিডব্লিউ, আইসিএক্স, এনটিটিএন এর সঙ্গে বৈঠক করবেন জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এর মধ্যে অপারেটররা কলড্রপ সমস্যার সমাধানে কী উদ্যোগ নিয়েছে তা জানাতে হবে। বিটিআরসিও প্রস্তাব দেবে। আমরা ত্রিপক্ষীয় বৈঠক করবো। কলড্রপের বিষয়ে ডিসেম্বরের মধ্যে একটা সমাধানে আসতে হবে। ’
 
‘কলড্রপের জন্য অপারেটররা গ্রাহকদের কল মিনিট ফেরত দেবে বা বেনিফিট দেবে’ যোগ করেন তিনি।
 
কলড্রপের বিষয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব ফয়জুর রহমান চৌধুরী বলেন, যে শর্তে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে তা যথাযথভাবে পালন করতে হবে। অন্যথায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  
 
প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম বলেন, কোনো প্যাকেজ অটো রিন্যুয়াল হবে না। প্রথমে অফার দিতে হবে, গ্রাহক তা নিতে রাজি থাকলে তারপর চালু হবে। গ্রাহক সাড়া না দিলে কোনো প্যাকেজ অটো রিনিউ হবে না।
 
মোবাইলে ওয়েলকাম টিউন ব্যবহার করা হলেও সংশ্লিষ্ট শিল্পীদের সম্মানী দেওয়া হয় না বলে জানিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, কপিরাইটের ব্যাপারে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা করবো।
 
‘গ্রাহকরা যেন কোনোভাবেই প্রতারিত না হন। বিটিআরসি এবং অপারেটররা এ ব্যাপারে গুরুত্ব দেবেন। একজন গ্রাহকও যেন মনে না করেন কোথাও না কোথাও প্রতারিত হচ্ছেন তিনি,’ যাগ করেন প্রতিমন্ত্রী।  
 
পাশাপাশি কাস্টমার সার্ভিসে কল করার জন্য আলাদাভাবে অর্থ কেটে নেওয়া হবে না বলেও সম্মত হয়েছেন অপারেটররা।
 
১৬ ডিসেম্বর সিম কার্ড নিবন্ধনে বায়োমেট্রিক্স পদ্ধতির উদ্বোধন করা হবে বলে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী অপারেটরদের উদ্দেশ্যে বলেন, এর যেন ব্যতয় না ঘটে।
 
অপারেটরদের রিটেইলার ও ডিস্ট্রিবিউটরদের বিষয়ে যথাযথ তথ্য দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী।
 
প্রায় সবার কাছে টেলিটক সিম থাকলেও কোথাও সংশ্লিষ্ট সার্ভিস সেন্টার খুঁজে পাওয়া যায় না জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী রাষ্ট্রীয় এই অপারেটরের সেবা বাড়ানোর নির্দেশ দেন।

আগামী দুই বছরের মধ্যে সারা দেশে নেটওয়ার্ক কাভারেজের মধ্যে আসবে বলে জানান টেলিটকের কর্মকর্তা।
 
বৈঠকের শুরুতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গ্রাহকদের অভিযোগগুলো প্রজেক্টরের মাধ্যমে প্রদর্শন করা হয়।
 
তারানা হালিম বলেন, আমরা কারও প্রতি পক্ষপাতমূলক আচরণ করতে চাই না। কমবেশি ভোগান্তিতে সব অপারেটরের গ্রাহকরাই রয়েছেন। গ্রাহকের সমস্যা সমাধানে সবাইকে মনোযোগ দিতে হবে।
 
রাত ১২টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত গ্রাহকদের কাছে অপারেটরদের যেন কোনো সার্ভিসের এসএমএস না যায় সে ব্যাপারে নির্দেশনা দেন প্রতিমন্ত্রী।
 
বৈঠকে উপস্থিত বিটিআরসির মহাপরিচালক (সিস্টেম অ্যান্ড সার্ভিস) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইমদাদ উল বারী বলেন, বিটিআরসির নতুন গাইডলাইনে কলড্রপের স্ট্যান্ডার্ড, প্যাকেজের বিষয়গুলো উল্লেখ রয়েছে। তবে সব অপারেটর এখনও পুরোপুরি চালু করতে পারেনি।
 
তিনি জানান, সম্প্রতি বিটিআরসি ১৫ জেলায় মোবাইল সেবা নিয়ে এক হাজার ৩৮০ জন গ্রাহকের উপর জরিপ চালায়। ৪৮ শতাংশ গ্রাহক জানিয়েছে ১০টি কলের মধ্যে একটি ড্রপ হয়, ৩০ শতাংশ জানিয়েছে ১০টির মধ্যে দু’টি কলড্রপ হয়।
 
গ্রাহকদের অভিযোগ গ্রহণ ও প্রতিকার করতে বিটিআরসি একটি সমন্বিত কল সেন্টার চালু করতে যাচ্ছে বলেও জানান এই কর্মকর্তা।
 
সভায় মোবাইল অপারেটর ছাড়াও মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।  
 
বাংলাদেশ সময়: ০০২১ ঘণ্টা, অক্টোবর ২০, ২০১৫
এমআইএইচ/এসকেএস/এমএ

** কলড্রপে জরিমানা চান তারানা হালিম
** গ্রাহক যেন নিজেকে প্রতারিত না ভাবেন
** গ্রাহকের অভিযোগ আমলে নিতে হবে মোবাইল অপারেটরদের

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa