ঢাকা, বুধবার, ২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৮ মহররম ১৪৪৪

তথ্যপ্রযুক্তি

শুরু হয়েছে কম-টেক ফেসটিভ্যাল

আইসিটি ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪০৬ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৪, ২০১৬
শুরু হয়েছে কম-টেক ফেসটিভ্যাল

ঢাকার বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ‘ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ’এ শুরু হয়েছে দুই দিনব্যাপী ‘৫ম জাতীয় কম-টেক ফেসটিভ্যাল’। বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) পান্হপথ ক্যাম্পাস মিলনায়তনে বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের উদ্যোগে কম-টেক ফেসটিভ্যাল উদ্বোধন করা হয়।

ঢাকার বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ‘ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ’এ শুরু হয়েছে দুই দিনব্যাপী ‘৫ম জাতীয় কম-টেক ফেসটিভ্যাল’। বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) পান্হপথ ক্যাম্পাস মিলনায়তনে বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের উদ্যোগে কম-টেক ফেসটিভ্যাল উদ্বোধন করা হয়।

বিশ্ববিদল্যায়ের  উপাচার্য প্রফেসর ড. আবদুল মান্নান চৌধুরীর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুল মান্নান।

এছাড়া, অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম নুরুল ইসলাম, প্রযুক্তিবিদ এবং বেসিস সভাপতি মোস্তাফা জব্বার, প্রথম আলো ইয়ুথ প্রোগ্রামের কোঅরডিনেটর মুনির হাসান, কোষাধ্যক্ষ মোর্শেদা চৌধুরী, বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সাধারণ সম্পাদক ড. মুশফিক এম চৌধুরী প্রমুখ।  
  
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক আব্দুল মান্নান বলেন, দিন দিন প্রযুক্তির উন্নয়ন ঘটছে, আর এই উন্নয়নের অংশীদার হয়ে আমরাও থাকতে চাই। শিক্ষার্থীদের উদ্দ্যেশে তিনি জানান, প্রযুক্তি আজ তোমাদের পড়াশুনা থেকে শুরু করে সকল কাজকেই সহজ করে দিয়েছে, তোমরা নতুন নতুন উদ্ভাবনে মনোনিবেশ করো যার মাধ্যমে ভবিষ্যতে দেশের নাম উজ্জ্বল করতে পারো।
 
মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমাদের তরুণরা মেধাশক্তিতে পরিপূর্ণ এবং তারা ভবিষ্যতে  নতুন সব উদ্ভাবনের মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে।
 
উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে অতিথিরা ফেস্টে অংশ নেওয়া বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের স্টল ঘুরে দেখেন।

ফেস্টে কলেজ এবং বিশ্ববিদ্যালয়, উভয় পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের জন্য আইটি অলিম্পিয়াড, বিতর্ক প্রতিযোগিতা, রোবটিক্স কন্টেস্ট, প্রজেক্ট শোকেসিং, গেমারদের জন্য গেমিং প্রতিযোগিতা, প্রোগ্রামারদের জন্য প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা, সেমিনার এবং ওয়ার্কশপ এর আয়োজন করা হয়েছে।

উৎসবের অন্যতম আকর্ষণ হচ্ছে তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পৃক্ত পণ্য উৎপাদনকারী ও সেবাদানকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর অংশগ্রহণে স্মার্ট টেকনোলজির আইসিটি ফেয়ার।  

আগামীকাল (২৫ নভেম্বর, শুক্রবার) সন্ধ্যায় এ উৎসবের সমাপনী অনুষ্ঠিত হবে। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রালয়ের মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

বাংলাদেশ সময়: ২০০১ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৪, ২০১৬
এমআইটি/এসেজডএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa