ঢাকা, সোমবার, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২২ শাবান ১৪৪৫

জাতীয়

হোটেলের দরজা ভেঙে মিলল যুবকের লাশ, পাশে চিরকুট

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯১০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২৩
হোটেলের দরজা ভেঙে মিলল যুবকের লাশ, পাশে চিরকুট

কক্সবাজার: কক্সবাজারের চকরিয়া পৌর শহরের একটি আবাসিক হোটেল থেকে মো. মহিউদ্দিন (১৮) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে চকরিয়া থানা পুলিশ আবাসিক হোটেলের দরজা ভেঙে তার মরদেহ উদ্ধার করে।

 

নিহত মহিউদ্দিন রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের জুমছড়ি এলাকার পেয়ার মোহাম্মদের ছেলে।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী জানান, দুই দিন আগে চকরিয়া পৌর শহরের চিরিঙ্গা সিটি পার্ক নামে একটি হোটেলে অবস্থান করছিলো মহিউদ্দিন। শনিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রুম ছেড়ে দেওয়ার কথা থাকলেও রুম না ছেড়ে দরজা বন্ধ করে রাখে সে। হোটেল বয় ডাকাডাকি ও দরজায় নক করে। এতে কোনো সাড়া না পেয়ে রুমের জানালা দিয়ে উঁকি দিয়ে দেখে খাটের ওপর তার মরদেহ পড়ে আছে। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে রুমের দরজা ভেঙ্গে মহিউদ্দিনের মরদেহ উদ্ধার করে।

এসময় তার পাশ থেকে একটি চিরকুট উদ্ধার করা হয় বলেও জানান ওসি চন্দন কুমার চক্রবর্তী।

ওই চিরকুটে, করিমসহ দুই জনের কাছে তার ২ লাখ ২০ হাজার টাকা পাওনা দাবি করে ফোন নম্বর লেখা রয়েছে। যেখানে টাকাগুলো উদ্ধার করে জন্য বলা হয়েছে।

মহিউদ্দিনের বড় বোন শাজেদা বেগম বলেন, আমার ভাই বাসের হেলপার ছিল। বাসা থেকে ২ লাখ ২০ হাজার টাকা দুই বন্ধু হাতিয়ে নিয়ে চকরিয়া পালিয়ে আসে। সেই টাকা উদ্ধারের চেষ্টা চলছিল। টাকা হাতিয়ে নেওয়া বন্ধুরা ফোন করে তাকে চকরিয়ায় যেতে বলে। গত ২ ফেব্রুয়ারি সে চট্টগ্রামের ভাড়া বাসা থেকে বের হয়ে যায়। এরপর তার খোঁজ না পাওয়ায় শুক্রবার (৩ ফেব্রুয়ারি) রাতে চকরিয়া থানায় অভিযোগ করি। এর মধ্যে শনিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) ভাইয়ের মরদেহ উদ্ধার হলো।

এ বিষয়ে চকরিয়া থানার ওসি জানান, শুক্রবার (৩ ফেব্রুয়ারি) অভিযোগ পাওয়ার পর শনিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে চকরিয়া উপজেলার বরইতলী ইউনিয়নের মোজাহের পাড়ার আবদুল করিম ও মো. ইছমাইল নামের দুই যুবককে জিজ্ঞাসাবাদ করতে হেফাজতে নেওয়া হয়। এর ৪ ঘণ্টা পরেই হোটেল কক্ষে মহিউদ্দিনের মরদেহ মিলল।

চন্দন কুমার চক্রবর্তী বলেন, মরদেহের পাশে একটি খাতায় তার হাতে লেখা একটি চিরকুট পেয়েছি। তার নাক ও মুখে ফেনা দেখা গেছে। সংগে বিষের গন্ধও। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছি। প্রতিবেদন হাতে পেলে হত্যা নাকি আত্মহত্যা জানা যাবে।

এদিকে, হেফজতে নেওয়া ওই দুই যুবককে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে বলেও জানান ওসি।

বাংলাদেশ সময়: ০৮৩৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২৩
এসবি/এনএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
welcome-ad